স্বাধীনতা দিবসে ফখরুলের শুভেচ্ছা

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১১:৫৩ এএম, ২৫ মার্চ ২০১৯

সবার সুখ শান্তি ও সমৃদ্ধি কামনা করে মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষে আন্তরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। দলটির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী স্বাক্ষরিত বাণীতে ফখরুল দেশবাসীকে শুভেচ্ছা জানান।

ফখরুল বলেন, ‘এই মহান দিবসে আমি শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করি সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানকে। গভীরভাবে শ্রদ্ধা জানাই সব জাতীয় নেতার প্রতি, যারা দেশ ও জাতির জন্য অসামান্য অবদান রেখেছেন।’

বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘রক্ত আর ত্যাগ-তিতিক্ষার বিনিময়ে অর্জিত হয়েছিল মহিমান্বিত আমাদের স্বাধীনতা। কথা ছিল একটি পতাকা পেলে দেশের মানুষ সুখে শান্তিতে থাকবে। কিন্তু আজ দেশের মানুষ সুখে নেই, শান্তিতে নেই। দেশের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্ব বিপণ্ন করার জন্য আজও দেশি-বিদেশি চক্রান্তকারীরা নানামুখী ষড়যন্ত্রে লিপ্ত রয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘বহুদলীয় গণতন্ত্রের যে যাত্রা সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান শুরু করেছিলেন সেটিও আজকে বিনষ্ট করে গণতন্ত্রের নামে কর্তৃত্ববাদী অপশাসন চালু করা হয়েছে। কেউ যাতে মানুষের মৌলিক মানবিক অধিকার নিয়ে কথা না বলে, নাগরিক স্বাধীনতার জন্য আওয়াজ না তোলে সেজন্যই বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়াকে কারাগারে আটকে রাখা হয়েছে।’

ফখরুল বলেন, ‘গণতন্ত্রের মা’ বেগম জিয়াকে বন্দী করার অর্থ গণতন্ত্রকেই বন্দী করে রাখা। ৩০ ডিসেম্বরের আগের দিন মধ্যরাতের নজীরবিহীন নির্বাচনের পর সুষ্ঠু নির্বাচন চিরদিনের জন্য নির্বাসিত করার মাধ্যমে জনগণকে চূড়ান্তভাবে ক্ষমতাহীন করা হয়েছে।’

আর এজন্যই সব ষড়যন্ত্র রুখে দিয়ে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত ও অপহৃত গণতন্ত্র রক্ষায় সাহসী ভূমিকা রাখতে হবে। তবেই একটি সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ে তোলা সম্ভব। মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবসে এই হোক আমাদের অঙ্গীকার।

কেএইচ/এমআরএম/এমকেএইচ

আপনার মতামত লিখুন :