কৃষক ক্ষেতে আগুন দিলেও সরকার নির্বিকার

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০২:৪১ পিএম, ১৯ মে ২০১৯

ধানের ন্যায্যমূল্য না পেয়ে কৃষক তার ক্ষেতে আগুন দিলেও সরকার নির্বিকার ভূমিকা পালন করছে বলে মন্তব্য করেছেন কৃষকদলের আহ্বায়ক শামসুজ্জামান দুদু।

তিনি বলেন, বাংলাদেশে এখন ভয়ঙ্কর একটি শাসন চলছে। যে শাসনে এদেশের কৃষক-শ্রমিক-মেহনতী মানুষ ছাত্র যুব নারী কেউ নিরাপদ নয়, কারোর পক্ষেই স্বাভাবিক জীবন যাপন করা সম্ভব হচ্ছে না। গত এক শতাব্দীতে লক্ষ্য করবেন কৃষক তার উৎপাদিত ধানে আগুন দিয়েছে এরকম ঘটনা ঘটেনি। কিন্তু এই সরকারের আমলে ঘটেছে। কী ভয়ঙ্কর কৃষক তার ধানের ন্যায্যমূল্য না পেয়ে ক্ষেতে আগুন দিচ্ছে আর সরকার নির্বিকার ভূমিকা পালন করছে।

রোববার দুপুরে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে ধানসহ সব ধরনের ফসলের ন্যায্যমূল্যের দাবিতে জাতীয়তাবাদী কৃষক দল আয়োজিত মানববন্ধনে তিনি একথা বলেন।

দুদু বলেন, বর্তমান সরকার দেশে লুটপাট করবে, শেয়ারবাজার ব্যাংক লুটপাট করবে কৃষকরা তার ধানের ন্যায্যমূল্য পাবে না। উপকরণ কিনতে গেলে তিনগুণ দাম দিয়ে কিনতে হবে এভাবে তো চলতে পারে না। এই অবৈধ সরকার ক্ষমতায় আসার আগে বলেছিল ঘরে ঘরে চাকরি দেবে কৃষকের ফসলের ন্যায্যমূল্য দেবে, ১০ টাকা সের চাল খাওয়াবে এখন বাস্তবে আমরা কী দেখছি? শিক্ষিত যুবকরা বেকার হয়ে আছে কৃষকের ন্যায্যমূল্য পাচ্ছে না, ১০ টাকা সের চাল ৬০-৭০ টাকা কিনে খেতে হচ্ছে।

ছাত্রদলের সাবেক এই সভাপতি বলেন, কৃষকের জন্য সবচাইতে বেশি কাজ করেছেন শহীদ জিয়া, বেগম জিয়া ও বিএনপি। এই জন্য বেগম জিয়াকে কারাগারে আটকে রেখেছে যাতে তিনি কৃষকদের পক্ষে কথা না বলতে পারে এবং আন্দোলন করতে না পারেন।

এ সময় কৃষকের উৎপাদিত ধানের ন্যায্যমূল্য নিশ্চিতের দাবিতে সপ্তাহব্যাপী কর্মসূচি ঘোষণা করেন তিনি। কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে ২১, ২২, ২৩, ২৪ মে সারাদেশের সব ইউনিয়ন হাটে প্রতিবাদ সমাবেশ, ২৫ মে সব উপজেলা সদরে বিক্ষোভ সমাবেশ এবং ২৬ মে সারা দেশের প্রত্যেকটি জেলায় জেলা প্রশাসক বরাবর কৃষকের ধানের ন্যায্যমূল্য দাবিতে স্মারকলিপি দেয়া হবে।

আয়োজক সংগঠনের যুগ্ম-আহ্বায়ক তকদির হোসেন মোহাম্মদ জসিমের সভাপতিত্বে এবং সদস্য এসকে সাদীর সঞ্চালনায় মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা হাবিবুর রহমান হাবিব, কৃষকদলের সদস্য সচিব কৃষিবিদ হাসান জাফির তুহিন, যুগ্ম-আহ্বায়ক সৈয়দ মেহেদী আহমেদ রুমী, জামাল উদ্দিন খান মিলন, সদস্য আবুল কালাম আজাদ সিদ্দিকী, মাইনুল ইসলাম, মিয়া মোহাম্মদ আনোয়ার খলিলুর রহমান ইব্রাহিম, কে এম রকিবুল ইসলাম রিপন, এম জাহাঙ্গীর আলম প্রমুখ।

কেএইচ/জেএইচ/জেআইএম

আপনার মতামত লিখুন :