আসামের ১৯ লাখ মানুষ নিয়ে মন্তব্যে সরকার প্রতিবাদ করে না : ফখরুল

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৯:৩৯ পিএম, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯

বর্তমান সরকারকে ‘নতজানু সরকার’ আখ্যা দিয়ে বিএনপি মহাসচিব মির্জ ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, ‘আসামে প্রায় ১৯ লাখ মানুষকে রাষ্ট্রহীন করা হয়, তাদের বলা হয় তারা সবাই বাংলাদেশ থেকে এসেছে তাদের বাংলাদেশে পাঠিয়ে দেয়া হবে- তখন এই নতজানু সরকারকে কোনো প্রতিবাদ করতে আমরা দেখি না।’

সোমবার সন্ধ্যায় রাজধানীর তোপখানা রোডে শিশুকল্যাণ পরিষদ মিলনায়তনে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের অন্যতম শরিক নাগরিক ঐক্যের উদ্যোগে ‘বিশ্ব গণতন্ত্র দিবস ও আমরা’ শীর্ষক এই মতবিনিময় অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

ফখরুল বলেন, যারা বিশ্ব রাজনীতিকে নিয়ন্ত্রণ করে আজ তাদের একটা ক্রীড়ানক হয়ে এই সরকার ক্ষমতায় আছে। যে কারণে আমরা দেখি যখন রোহিঙ্গা সমস্যা সৃষ্টি হয়, সেই সমস্যার সমাধান বাংলাদেশ তার কূটনৈতিক ম্যানুভারিং করে করতে পারে না। আসাম নিয়েও কোনো প্রতিবাদ করে না।

তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশে যে গণতন্ত্রহীনতা- এটা কোনো বিচ্ছিন্ন ঘটনা নয়। সামগ্রিকভাবে গোটা বিশ্বে পলিটিক্যাল চেঞ্জ যেগুলো ঘটছে তার মধ্যে বাংলাদেশ পড়ে গেছে। আজকের সরকার ওই আন্তর্জাতিক গোষ্ঠীর সঙ্গে যোগসাজশ করে বাংলাদেশের জনগণের অধিকারকে হরণ করে দিচ্ছে। প্রকৃত পক্ষে তারা সম্পূর্ণভাবে পাপেট সরকারে পরিণত হয়েছে।’

ঐক্যফ্রন্ট সক্রিয় আছে উল্লেখ করে ফখরুল বলেন, ‘এখানে বলেছেন, ঐক্যফ্রন্টকে সক্রিয় দেখতে পারছেন না। সক্রিয় কোন দিক দিয়ে না। আমরা নির্বাচনের পূর্বে ঐক্যফ্রন্ট তৈরি করেছিলাম, জোট করেছিলাম, সেই ঐক্য এখনো অটুট আছে। সেখানে কোনো ভাঙন ধরেনি।’

বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘বাংলাদেশে এ সরকার সম্পূর্ণভাবে জনগণের বিরুদ্ধে অবস্থান নেয়া একটি সরকার এবং আওয়ামী লীগ ইতিপূর্বে একদলীয় শাসনব্যবস্থা প্রতিষ্ঠা করেছিল, তারা গণতন্ত্রে বিশ্বাস করে না, কোনো দিন করেওনি। ওরা একটি ফ্যাসিস্ট শক্তি।’

তিনি আরো বলেন, ‘আমি আহ্বান জানাতে চাই, আমাদের মধ্যে যে ছোটখাটো পার্থক্য আছে মতের মধ্যে সেগুলোকে পাশে রেখে আমাদের জনগণের অধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য, গণতন্ত্রকে ফিরিয়ে আনার জন্য আমরা একসাথে কাজ করি। একসাথে আমরা স্লোগান দেই- আমাদের গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনতে হবে-সেটাই হবে আজকের দিনে বড় একটি কথা।’

নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহামুদুর রহমানের সভাপতিত্বে এবং প্রেসিডিয়াম সদস্য শহীদুল্লাহ কায়সারের পরিচালনায় আলোচনা সভায় জেএসডি সভাপতি আ স ম আব্দুর রব, গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী, বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাইফুল হক, গণসংহতি আন্দোলনের জোনায়েদ সাকি, গণফোরামের জগলুল হায়দার আফ্রিক, নাগরিক ঐক্যের এস এম আকরাম, মোমিনুল ইসলাম ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক আসিফ নজরুল বক্তব্য রাখেন।

কেএইচ/এসএইচএস/এমএস