ওমর ফারুক কেন নেই ‘জানা নেই’ প্রেসিডিয়াম সদস্যদের

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০২:১৬ পিএম, ১১ অক্টোবর ২০১৯
ফাইল ছবি

যুবলীগের সর্বোচ্চ নীতি নির্ধারণী ফোরাম প্রেসিডিয়াম সদস্যদের সভায় উপস্থিত হননি সংগঠনের চেয়ারম্যান ওমর ফারুক চৌধুরী। তবে তার অনুপস্থিতির কারণ জানেন না অধিকাংশ প্রেসিডিয়াম সদস্য।

শুক্রবার রাজধানীর বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে যুবলীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সংগঠনটির এক বিশেষ প্রেসিডিয়াম বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

যুবলীগের পক্ষে থেকে বলা হচ্ছে চেয়ারম্যান ওমর ফারুক চৌধুরীর সিদ্ধান্তেই এই বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক মো. হারুনুর রশীদ।

সভা শেষে সাংবাদিকদের এড়িয়ে চলে যান সাধারণ সম্পাদক হারুনুর রশিদ। প্রেসিডিয়াম সদস্য শহীদ সেরনিয়াবাত গণমাধ্যমকর্মীদের বলেন, সভায় চেয়ারম্যান ছিলেন না। উনি বোধহয় ব্যস্ত ছিলেন। তাই আসতে পারেননি।

সংগঠনটির অপর প্রেসিডিয়াম সদস্য শেখ আতিয়ার রহমান দিপু গণমাধ্যমে বলেন, আজকের সভা ডাকার অনুমতি চেয়ারম্যান দিয়েছেন। চেয়ারম্যানের নির্দেশই এই সভা হয়েছে। তবে তিনি কেন আসেননি সে বিষয়টি জানা নেই। হয়তো অসুস্থতার কারণেও না আসতে পারেন।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, যুবলীগের চেয়ারম্যানের পদের বিষয়ে একমাত্র সিদ্ধান্ত রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনার। আর যাদের বিষয়ে অভিযোগ রয়েছে তাদের বিষয়েও তদন্ত করে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। আজকের সভায় যুবলীগের দপ্তর সম্পাদক আনিসুর রহমান আনিসকে বহিষ্কার করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে

সভায় উপস্থিত রয়েছেন- শহিদ সেরনিয়াবাত, শেখ শামসুল আবেদীন, আলতাব হোসেন বাচ্চু, মো. সিরাজুল ইসলাম মোল্লা, মজিবুর রহমান চৌধুরী, মো. ফারুক হোসেন, মাহবুবুর রহমান হিরন, আবদুস সাত্তার মাসুদ, মো. আতাউর রহমান, অ্যাডভোকেট বেলাল হোসাইন, আবুল বাশার, মোহাম্মদ আলী খোকন, অধ্যাপক এবিএম আমজাদ হোসেন, আনোয়ারুল ইসলাম, ইঞ্জিনিয়ার নিখিল গুহ, শাহজাহান ভুইয়া মাখন, ডা. মোখলেছুজ্জামান হিরু, শেখ আতিয়ার রহমান দিপু প্রমুখ।

উল্লেখ্য, সরকারের চলমান ক্যাসিনোবিরোধী অভিযানে যুবলীগের ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সদ্য বহিষ্কৃত সভাপতি ইসমাইল হোসেন সম্রাট ও তার সহযোগী যুবলীগ নেতা আরমান গ্রেফতারের পর ওমর ফারুক চৌধুরীর দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয় বলে খবর রয়েছে সংবাদ মাধ্যমে। তবে দেশত্যাগের ওপর নিষেধাজ্ঞার খবরের পর ওমর ফারুক চৌধুরী একটি গণমাধ্যমকে টেলিফোনে বলেন, আমি দেশ ছেড়ে পালাব কেন? আমি দেশেই আছি, দেশেই থাকব। আমি আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল, কেউই আইনের ঊর্ধ্বে নন।

তবে দৃশ্যত অনেকটা আড়ালেই আছেন যুবলীগের দাপুটে এই নেতা।

এইউএ/এনএফ/এমএস