মন্ত্রী হলে কি মেনন এ কথা বলতেন, প্রশ্ন কাদেরের

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১২:০৯ পিএম, ২০ অক্টোবর ২০১৯

গত নির্বাচন নিয়ে রাশেদ খান মেননের বিতর্কিত বক্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে প্রশ্ন রেখে সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘মন্ত্রী হলে কি তিনি (মেনন) এ কথা বলতেন?’

রোববার সচিবালয়ে সমসাময়িক ইস্যু নিয়ে সংবাদ সম্মেলনে এক প্রশ্নের জবাবে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক একথা বলেন।

গতকাল শনিবার বরিশালে এক অনুষ্ঠানে ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন বলেন, ‘আমিও নির্বাচিত হয়েছি। তারপরও আমি সাক্ষ্য দিচ্ছি, ওই নির্বাচনে জনগণ ভোট দিতে পারেনি। এমনকি পরবর্তীতে উপজেলা এবং ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনেও ভোট দিতে পারেনি দেশের মানুষ।’

মেননের বক্তব্যের বিষয়ে জানতে চাইলে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘সরকার বা দলের পক্ষ থেকে এই বিষয়টা নিয়ে তার সঙ্গে কোন আলাপ হয়নি। তিনি কী বলেছেন, সেটা মিস কোটেড (ভুল উদ্ধৃতি) হয়েছে কিনা সেটাও জানার বিষয় আছে। তার কাছ থেকে জানাটা দরকার। আর যদি তিনি বলেই থাকেন, তাহলে আমার প্রশ্ন হচ্ছে এত দিন পরে কেন? এই সময়ে কেন?’

তিনি বলেন, ‘নির্বাচনটা তো অনেক আগেই হয়ে গেছে। আমার আরেকটা প্রশ্ন সবিনয়ে, উনি একজন সিনিয়র লিডার- মন্ত্রী হলে কি তিনি এ কথা বলতেন? আর কোন কিছু বলতে চাই না।’

আপনারা কী আনুষ্ঠানিকভাবে তার কাছে বক্তব্যের বিষয়ে জানতে চাইবেন- এ বিষয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘আমাদের ১৪ দলের সমন্বয়ক মোহাম্মদ নাসিম সাহেব, তার কাছে আমরা জানতে চাইব।’

রাশেদ খান মেননের নাম ক্যাসিনো ক্লাবের সঙ্গে জড়িত হওয়ায় আক্ষেপ থেকে তিনি এ ধরনের কথা বলেছেন কি না- এ বিষয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘সেটা তাকে জিজ্ঞাসা করুন। তিনি ক্যাসিনোকাণ্ড সময়ে কেন এ কথা বললেন? এর আগে বললেন না কেন? যখন ইলেকশন হলো ইলেকশনের পরে তো বলতে পারতেন! আমি ওই প্রসঙ্গে যাব না।’

রাশেদ খান মেনন শপথ ভেঙেছেন কি না, উনিও তো শপথ নিয়ে সংসদে গেছেন- এ বিষয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘এ প্রশ্নটা তাকে করুন।’

kader

নরসিংদীর সংরক্ষিত আসনের মহিলা সংসদ সদস্য নুসরাত তামান্না নিজের পরীক্ষা অন্যকে দিয়ে দিয়েছেন- এ বিষয়ে জানতে চাইলে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘সেটা আমি দৈনিকগুলোতে দেখেছি। বিষয়টা নিয়ে এখনো দলীয় বা সরকারিভাবে আলোচনা হয়নি। প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বিষয়টা আলাপ করব। নেত্রীর সঙ্গে আলাপ করে পরে বিষয়টা জানাব।’

গণভবনে প্রধানমন্ত্রী যুবলীগকে ডেকেছেন, চেয়ারম্যান ওমর ফারুক চৌধুরীকে ডাকা হয়নি- এ বিষয়ে কাদের বলেন, ‘এটা যুবলীগের জেনারেল সেক্রেটারিকে জিজ্ঞাসা করুন। আমি তো আওয়ামী লীগের অফিসে কাউকে ডাকিনি। গণভবনে যাকে ডাকা হবে এটা প্রধানমন্ত্রীর ইচ্ছার বাইরে কাউকে ডাকা হবে না। যুবলীগ জেনারেল সেক্রেটারি জানেন কাকে ডাকা হয়েছে, তারা নিশ্চয়ই একটা তালিকা দিয়েছেন সেখানে। আমি আওয়ামী লীগের জেনারেল সেক্রেটারি, বিষয়টা জানি না।’

যুবলীগের নেতৃত্বে কারা আসবেন, বয়স কত হবে- জানতে চাইলে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘আমার তো কোনো প্রেডিকশন এই মুহূর্তে নেই। এটা যুবলীগ ঠিক করবে। যুবলীগের বয়স, তারা আমাদের সভাপতি প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বসবেন। সেখানে যদি কোনো নির্দেশনা থাকে, সেটা এই মুহূর্তে আমি বলতে পারছি না। বসবে বিকেল বেলা, আমি এখন কী করে বলব? দেখা যাক কী হয়? আর কোন পরিবর্তন বা কিছু করতে হলে যুবলীগের গঠনতন্ত্রেই করতে হবে। আমার মনে হয় বয়সসীমা গঠনতন্ত্রে বেশি নেই, গঠনতন্ত্রে বেশি থাকে না।’

গ্রেফতার হওয়া ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের ৩৩ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর তারেকুজ্জামান রাজীব আওয়ামী লীগের সিনিয়র যুগ্ম-সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানকের সন্তানতুল্য হিসাবে পরিচয় দেন- এ বিষয়ে কাদের বলেন, ‘নানক সাহেবের একটা মেয়ে আছে, ছেলেটা এক্সিডেন্টে মারা গেছে। আর কোনো সন্তান আছে বলে আমার জানা নেই। এই ধরনের কোনো পাতানো সন্তান কি না- এটা নানক সাহেবকে জিজ্ঞাসা করেন।’

নানকের কারণে প্রভাব বিস্তার করে রাজীব এত টাকার মালিক হয়েছে- এ বিষয়ে কাদের বলেন, ‘আমার মনে হয় হাওয়া থেকে পাওয়া কিছু না বলে আপনি নানক সাহেবকে জিজ্ঞাসা করুন, এ ধরনের একটা খবর বেরিয়েছে সেটা কতটা সত্য?’

আরএমএম/জেএইচ/পিআর