চকলেট নয়, ব্যর্থতার জন্য খালেদার আইনজীবীদের বিষ খাওয়া উচিত

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৫:৫৮ পিএম, ০৫ ডিসেম্বর ২০১৯

দুর্নীতি মামলায় দলের চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার জামিনের আদেশকে কেন্দ্র করে চকলেট খেয়ে আপিল বিভাগের এজলাস কক্ষে বিএনপির সমর্থক আইনজীবীদের অবস্থান কর্মসূচি প্রসঙ্গে আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য এবং কেন্দ্রীয় ১৪ দলের মুখপাত্র মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, ব্যর্থতার জন্য তাদের বিষ খাওয়া উচিত, চকলেট নয়। বিষ খেয়ে আত্মহত্যা করা উচিত।

হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দীর মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে বৃহস্পতিবার (৫ ডিসেম্বর) জাতীয় প্রেস ক্লাবের আব্দুস সালাম হলে বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

মোহাম্মদ নাসিম বলেন, ‘জোর করে খালেদা জিয়ার জামিন নেয়া যাবে না। দেশকে অস্থিতিশীল করে নয়, বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে বিএনপিকে আইনি প্রক্রিয়ায় যেতে হবে। কোর্টের সুষ্ঠু পরিবেশ নষ্ট করে মুখে চকলেট চাবিয়ে বেগম জিয়ার মুক্তি হবে না।’

জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলায় সাত বছরের কারাদণ্ডপ্রাপ্ত বিএনপি চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার জামিন শুনানির দিন ধার্য ছিল বৃহস্পতিবার। তবে নির্ধারিত সময়ে এ প্রতিবেদন তৈরি না হওয়ায় তা আজ আদালতে দাখিল করেনি রাষ্ট্রপক্ষ। সেজন্য বিএনপি চেয়ারপারসনের জামিন শুনানি ফের পিছিয়ে আগামী ১২ ডিসেম্বর শুনানির জন্য পরবর্তী দিন ধার্য করেন আপিল বিভাগ।

জামিন আদেশকে কেন্দ্র করে বিএনপির আইনজীবীরা চকলেট মুখে এজলাস কক্ষে অবস্থানের পাশাপাশি হট্টগোলের সৃষ্টি করেন। হইচই ও হট্টগোলের মধ্যে ১০টার পর এজলাস থেকে নেমে যান প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগের বেঞ্চ। এজলাস থেকে নেমে যাওয়ার সময় প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন বিএনপিপন্থী আইনজীবীদের উদ্দেশ্যে বলেন, সব কিছুর সীমা থাকা উচিত। আপনারা এজলাস কক্ষে যে আচরণ করেছেন, তা নজিরবিহীন।

সেই বিষয়টি টেনে মোহাম্মদ নাসিম বলেন, আজ খালেদা জিয়ার জামিনের জন্য কোর্টকে জিম্মি করেছে বিএনপি। এই কাজ আমরা কোনো দিন করিনি। আমরা আইনি লড়াই করে মুক্ত হয়েছি। চকলেট মুখে দিয়ে আইনজীবীরা সুপ্রিম কোর্টে বসে আছেন। কেউ কোনো দিন বলতে পারবে যে, জোর করে জামিন নেওয়া যায়?

আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর এ সদস্য বলেন, আজ বিএনপি মনে করেছে, কোর্টের সুষ্ঠু পরিবেশ নষ্ট করে, সুপ্রিম কোর্টে অবস্থান ধর্মঘট করে, চকলেট মুখে দিয়ে খালেদা জিয়াকে মুক্ত করবেন। আইনজীবীরা চকলেট মুখে দিয়ে তাকে মুক্ত করবেন। তারা আইনজীবী হিসেবে আন্দোলন করতে পারেননি। ব্যর্থতার জন্য ওদের বিষ খাওয়া উচিত, চকলেট নয়। বিষ খেয়ে আত্মহত্যা করা উচিত।

কমিশন গঠন করে ১৫ আগস্ট ও ৩ নভেম্বর জেলহত্যার দায়ে (বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা) জিয়াউর রহমানের বিচার দাবি করে নাসিম বলেন, কমিশন করে খলনায়কের চরিত্র উন্মোচন করতে হবে। না হলে কেউ বুঝতে পারবে না কীভাবে জিয়াউর রহমান পরিকল্পনা করে, রাজনীতিশূন্য করার জন্য ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে এবং জেলখানায় চার নেতাকে হত্যা করেছে। কমিশন করে এটা বের করতে হবে। জিয়াউর রহমানের খুনির দল হলো আজকে খালেদা জিয়ার দল।

সভায় তথ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসান বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান জীবন দিয়ে বাংলার মানুষকে স্বাধীনতা দিয়ে গেছেন। তাই চক্রন্তকারীদের সব চক্রান্ত মোকাবেলা করে বাংলাদেশকে তার স্বপ্নের বাংলা হিসেবে গড়ে তুলতে হবে।

সোহরাওয়ার্দীর স্মৃতিচারণ করে তিনি বলেন, শহীদ সোহরাওয়ার্দী গণতন্ত্রের জন্য আজীবন সংগ্রাম করে গেছেন। গণতন্ত্র, ন্যায়বিচার ও আইন প্রতিষ্ঠার সংগ্রামে তিনি অসাধারণ অবদান রেখেছেন। গণতন্ত্রের জন্য তার যে সংগ্রাম, সেটি এখনও আওয়ামী লীগ অনুসরণ করে যাচ্ছে।

বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের উপদেষ্টা সৈয়দ হাসান ইমামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য মোজাফফর হোসেন পল্টু, সাবেক খাদ্যমন্ত্রী কামরুল ইসলাম, সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শামসুল হক টুকু, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ, স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের কণ্ঠশিল্পী রফিকুল আলম, বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের সাধারণ সম্পাদক অরুণ সরকার রানা প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

এইউএ/এমকেএইচ