প্লেনের পেঁয়াজ কই, প্রশ্ন মান্নার

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৭:১৫ পিএম, ০৬ ডিসেম্বর ২০১৯

নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না সরকারের উদ্দেশ্যে বলেছেন, আপনারা বলেছেন- পেঁয়াজ নাকি প্লেনে করে আসছে, সেই পেঁয়াজ কই? এলে তো দাম কমতো।

দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে শুক্রবার (৬ ডিসেম্বর) জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে নাগরিক নারী ঐক্যের উদ্যোগে এক মানববন্ধনে মান্না এ কথা বলেন।

ভারত পেঁয়াজ রফতানি বন্ধ করে দিলে দেশের বাজারে এর প্রভাব পড়ে। তখন পেঁয়াজ সরবরাহ ও মূল্য স্বাভাবিক রাখতে সরকারের পক্ষ থেকে ভিন্ন দেশ থেকে পেঁয়াজ আমদানির কথা জানানো হয়।

সেই প্রসঙ্গটিই টেনে মান্না বলেন, আপনারা বলেছেন- পেঁয়াজ নাকি প্লেনে করে আসছে, সেই পেঁয়াজ কই? এলে তো দাম কমতো। এবার যেভাবে পেঁয়াজ থেকে শুরু করে সব দ্রব্যমূল্য বেড়েছে, গত ৫০ বছরে এমন দাম বাড়েনি। এমনকি বিশ্বের কোনো দেশে এত দ্রুত দাম বাড়ে না।

নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক বলেন, বর্তমান সরকার জনগণের ভোটে নির্বাচিত নয়। এ সরকারকে মানুষ ভোট দেয়নি। জোর করে ক্ষমতায় এসেছে। এজন্য কোনো কাজ ঠিক মতো করতে পারে না। শীতকালীন সব সবজির দামও বৃদ্ধি পেয়েছে। এদিকে সরকার বিদ্যুতের দাম বাড়ানোর পাঁয়তারা করছে। গণশুনানিতে বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধির পক্ষে কেউ ছিলেন না। তারপরও নাকি তারা দাম বাড়াবে।

তিনি বলেন, এটি বিজয়ের মাস। তারা আওয়ামী লীগ, ক্ষমতায় আছেন বলে সারাদেশে উৎসব করে বেড়াচ্ছেন। মধ্যপ্রাচ্যে আমাদের মা-বোনেরা নির্যাতিত হচ্ছেন। ধর্ষিত হয়ে শেষ পর্যন্ত তারা মারা যাচ্ছেন। এসব ঘটনা সরকার ও তাদের মন্ত্রীদের নজরে আসছে না। তারা এটাকে বড় কোনো ঘটনাই মনে করছে না। মধ্যপ্রাচ্যের নারীদের মৃত্যুতে তারা এখন পর্যন্ত কোনো প্রতিবাদ করেনি। এতে দেশের ইজ্জত চলে যায়। মুক্তিযুদ্ধের আকাঙ্ক্ষার সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা করা হয়।

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার জামিন আবেদনের শুনানি পিছিয়ে যাওয়ার বিষয়ে মান্না বলেন, আপিল বিভাগ খালেদা জিয়ার মেডিকেল রিপোর্ট দেওয়ার জন্য সময় বেঁধে দেন। তারপরও তারা রিপোর্ট জমা দিতে ব্যর্থ হলেন। তখন আদালত বলতে পারতেন, আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে যেন রিপোর্ট জমা দেওয়া হয়। কিন্তু আদালত সেটা না করে আগামী ১২ ডিসেম্বর শুনানির জন্য দিন ধার্য করেছেন। ১৩ তারিখ থেকে আদালত বন্ধ হয়ে যাবে। সময় আসছে, দিন আসছে, মানুষ মাঠে নামবে। জোর করে হলেও সব অধিকার আদায় করে নেবে।

মানববন্ধনে আরও উপস্থিত ছিলেন নাগরিক নারী ঐক্যর সদস্য লাকী বেগম, অ্যাডভোকেট শিউলি সুলতানা প্রমুখ।

কেএইচ/এইচএ/পিআর