১১ ডিসেম্বর আদালতে যাচ্ছে খালেদার মেডিকেল রিপোর্ট

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৫:০৪ পিএম, ০৯ ডিসেম্বর ২০১৯
ফাইল ছবি

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) চিকিৎসাধীন কারাবন্দি বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার সর্বশেষ শারীরিক অবস্থার মেডিকেল রিপোর্ট ১১ ডিসেম্বর (বুধবার) আদালতে পাঠানো হবে।

মেডিকেল বোর্ডের মতামত সম্বলিত রিপোর্ট এখনও (সোমবার বিকেল সোয়া ৪টা) পর্যন্ত হাতে পাননি বিএসএমএমইউ উপাচার্য অধ্যাপক ডা. কনক কান্তি বড়ুয়া।

বিকেলে তিনি জাগো নিউজকে বলেন, ১১ ডিসেম্বরের মধ্যে বেগম খালেদা জিয়ার সর্বশেষ শারীরিক অবস্থা সম্পর্কে জানাতে আদালত থেকে পাঠানো চিঠি পেয়েছি। মেডিকেল বোর্ডের মতামত হাতে এসে না পৌঁছালেও আদালতের নির্দেশে নির্ধারিত দিনক্ষণেই রিপোর্ট পাঠানো সম্ভব বলে আশাবাদী তিনি।

গত ৫ ডিসেম্বর খালেদা জিয়ার সর্বশেষ স্বাস্থ্যগত অবস্থা জানাতে মেডিকেল বোর্ডের প্রতিবেদন দাখিলে আদালতের নির্দেশনা ছিল। তবে নির্ধারিত সময়ে খালেদার মেডিকেল বোর্ডের প্রতিবেদন আদালতে দাখিল করা হয়নি।

বিএসএমএমইউ উপাচার্য মেডিকেল রিপোর্ট এখনও হাতে পাননি বললেও মেডিকেল বোর্ড সূত্রে জানা গেছে, তারা গত বৃহস্পতিবারই মতামত দিয়ে দিয়েছেন। তাদের দায়িত্ব মতামত দেয়া, প্রতিবেদন দেয়া বা না দেয়ার সঙ্গে তাদের কোনো সম্পর্ক নেই।

এদিকে উপাচার্য বলেন, মতামত তিনি তৈরি করেন না, মেডিকেল বোর্ডের সদস্যরা শারীরিক অবস্থা পর্যালোচনা করে মতামত লিখে দেন। সে মতামতটাই তারা আদালতে পাঠিয়ে দেন।

এদিকে মেডিকেল বোর্ডের একজন সদস্য জানান, খালেদা জিয়া শারীরিকভাবে সুস্থ ও ভালোই আছেন। উচ্চরক্তচাপ ও ডায়াবেটিসও নিয়ন্ত্রণে। শ্বাসকষ্ট নেই, দাঁতের সমস্যাও ভালো হয়ে গেছে। কিন্তু দাঁতটা ফেলে দেয়ার প্রয়োজন থাকলেও এখনো ফেলা হয়নি। তবে সব রোগ ভালোর দিকে থাকলেও গিরার ব্যথা আগের মতোই রয়ে গেছে। কিছুটা শীত নামায় বরং ব্যথাটা বেড়েছে। এ কারণে নিজে চলাফেরা করতে পারেন না। হুইল চেয়ারে বসেই চলাফেরা করতে হয়।

উল্লেখ্য, ১২ ডিসেম্বর (বৃহস্পতিবার) খালেদা জিয়ার জামিন আবেদনের ওপর আপিল বিভাগে শুনানির জন্য দিন ধার্য রয়েছে।

এমইউ/জেএইচ/জেআইএম