ভারতের নাগরিকত্ব আইন সাম্প্রদায়িক-বিদ্বেষপ্রসূত

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৬:০৮ পিএম, ১৩ ডিসেম্বর ২০১৯

সম্প্রতি ভারতে এনআরসি তথা নাগরিকত্ব আইন চালু করার নিন্দা জানিয়েছে বাংলাদেশ জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-বাংলাদেশ জাসদ।

দলটির সভাপতি শরীফ নুরুল আম্বিয়া ও সাধারণ সম্পাদক নাজমুল হক প্রধান এক বিবৃতিতে আজ শুক্রবার এ নিন্দা জানান। বাংলাদেশ জাসদ দফতর সম্পাদক ইউনুসুর রহমান স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

তারা বলেন, আমরা বিস্মিত হয়েছি যে, ভারত তার দীর্ঘদিনের অসাম্প্রদায়িক চরিত্র থেকে সরে এসে কয়েক দিন আগে ধর্মীয় সাম্প্রদায়িক বিদ্বেষমূলক নাগরিক আইন চালু করেছে। ব্রিটিশ ঔপনিবেশিক শক্তি সাম্প্রদায়িক বিভেদ সৃষ্টি করে এদেশকে শাসন করেছে। ১৯৪৭ সালে ভারত ত্যাগে বাধ্য হবার সময় সাম্প্রদায়িকতাকে উসকে দিয়ে ধর্মের ভিত্তিতে ভারত ভাগে উৎসাহিত করে। মুসলিম লীগের সাম্প্রদায়িক নেতৃত্ব ক্ষুদ্রগোষ্ঠী স্বার্থে দ্বিজাতি তত্ত্বের ভিত্তিতে ধর্মীয় রাষ্ট্র পাকিস্তান প্রতিষ্ঠা করে। বাংলাদেশের মানুষ সে দ্বিজাতি তত্ত্বকে প্রত্যাখ্যান করে মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে স্বাধীন বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠা করে।

নেতারা বলেন, বাংলাদেশ-ভারতের জনগণের প্রত্যাখ্যাত দ্বিজাতি তত্ত্বকে কবর থেকে তুলে এনে ভারতের ক্ষমতাসীন দল তাকে আবার অধিষ্ঠান করতে চাইছে এনআরসির নামে। ভারতের এ সিদ্ধান্ত সাম্প্রদায়িক বিদ্বেষকে উসকে দিয়ে এ উপমহাদেশে অস্থিতিশীলতা সৃষ্টির নতুন উপাদান যোগ করবে। আমরা আশা করব, ভারতের জনগণ সাম্প্রদায়িক বিদ্বেষপ্রসূত এ আইনকে প্রত্যাখ্যান করবেন। আমরা বাংলাদেশ সরকারকে এ আইনের বিরুদ্ধে আনুষ্ঠানিক প্রতিবাদ জানানোর জন্য আহ্বান জানাচ্ছি।

এমইউ/এসআর/এমকেএইচ