তাবিথের প্রচারণায় হামলা : ষড়যন্ত্রের অংশ কিনা আশঙ্কা তথ্যমন্ত্রীর

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০২:৩১ পিএম, ২১ জানুয়ারি ২০২০

রাজধানীর গাবতলীতে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি) নির্বাচনে বিএনপি মনোনীত মেয়র প্রার্থী তাবিথ আউয়ালের নির্বাচনি প্রচারণায় হামলা ষড়যন্ত্রের অংশ হতে পারে বলে আশঙ্কা করেছেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।

মঙ্গলবার (২১ জানুয়ারি) সচিবালয়ের তথ্য মন্ত্রণালয় সভাকক্ষে চলচ্চিত্র প্রযোজক সমিতির নবনির্বাচিত পরিষদের সাথে মতবিনিময়কালে তিনি এক প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন।

নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করার জন্য নানা প্রক্রিয়া চলছে বলেও মনে করেন হাছান মাহমুদ।

তাবিথ আউয়ালের প্রচারণায় হামলার অভিযোগ উঠেছে এমন প্রশ্নের উত্তরে তথ্যমন্ত্রীবলেন, ‘প্রথমত আমি বিষয়টি আপনাদের কাছেই জানলাম। কারণ আমরা একনেকের বৈঠকে ছিলাম। বিষয়টি পুরোপুরি না জেনে মন্তব্য করা সমীচিন নয়।’

‘দ্বিতীয়তো আমি মনে করি নির্বাচনি পরিবেশ ঘোলাটে করার জন্য একটি পক্ষ সক্রিয়। এটি সেই পক্ষেরই কারসাজি কিনা সেটি খতিয়ে দেখা প্রয়োজন। আর বিএনপির প্রথম থেকেই প্রচেষ্টা হচ্ছে নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করা। সুতরাং নানা ধরনের ঘটনা প্রবাহের মধ্য দিয়ে নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করার যে প্রক্রিয়া সেই প্রক্রিয়ারও অংশ কিনা সেটিও খতিয়ে দেখা প্রয়োজন।’

নির্বাচনে লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড বিরাজ করছে কি না জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড আছে, তবে সেটা বিএনপির পক্ষে আর আমাদের বিপক্ষে। কারণ পার্শ্ববর্তী দেশ ভারত। পৃথিবীর সবচেয়ে বড় গণতান্ত্রিক দেশ। সেই দেশে মন্ত্রীরা সরকারি প্রোটকল বাদ দিয়ে নির্বাচনি প্রচারণায় অংশ নিতে পারে। সংসদ সদস্যরাতো পারেই। সংসদীয় গণতন্ত্রের সুতিকাগার হচ্ছে যুক্তরাজ্য, সেখানেও পারে।’

তিনি আরও বরেন, ‘পৃথিবীর অন্যান্য গণতান্ত্রিক দেশেও সরকারি প্রোটকল বাদ দিয়ে প্রচারণায় অংশ নেওয়া যায়। আমাদের দেশে আমরা পারছি না। এটি বরং বিএনপিকে সুবিধাজনক অবস্থা দিয়েছে। সুতরাং লেভেল প্লেয়িং ফিল্ডটা তাদের পক্ষে চলে গেছে।’

এমইউএইচ/এনএফ/এমকেএইচ/এমএস