তাবিথকে পূজা ফাউন্ডেশন নেতাদের আশির্বাদ

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৯:৫৪ পিএম, ২৫ জানুয়ারি ২০২০

সিটি নির্বাচনে নির্ভয়ে ভোট কেন্দ্রে গিয়ে নিজেদের পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দেয়ার কথা জানিয়েছেন গুলশান-বনানী সার্বজনীন পূজা ফাউন্ডেশনের নেতারা।

শনিবার (২৫ জানুয়ারি) রাতে বনানীতে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে বিএনপি মনোনীত মেয়রপ্রার্থী তাবিথ আউয়ালের সঙ্গে মতবিনিয়কালে তারা এ কথা জানান। এ সময় ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে ফুলের তোড়া দিয়ে তাবিথ আউয়ালকে শুভেচ্ছা জানানো হয়।

ফাউন্ডেশনের সভাপতি সুবল চন্দ্র সাহা বলেন, আপনারা ভোট কেন্দ্রে যাবেন। নির্ভয়ে ভোট দিবেন। নিজেদের পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দিবেন। ভোট আপনার অধিকার।

ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক অলক সাহা বলেন, বাংলাদেশ অত্যান্ত সৌভাগ্যবান। নতুন প্রজন্ম রাজনীতিতে আসছেন। তাদের হাত ধরে দেশ এগিয়ে যাবে। আমাদের ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে। তাবিথ আউয়াল নতুন প্রজন্মের প্রতিনিধি। তিনি আমাদের সঙ্গে মতবিনিময় করেছেন। তার জন্য আর্শিবাদ রইল।

এ সময় তাবিথ আউয়াল বলেন, ভোট আপনাদের সাংবিধানিক অধিকার। অবশ্যই আপনার ভোট দিতে যাবেন। ভোট দেয়া থেকে বিরত থাকবেন না কেউ। পারিবারিকভাবে শৈশব থেকেই হিন্দু সম্প্রদায়ের সঙ্গে নিজের সম্পর্কের কথা উল্লেখ করে তাবিথ আউয়াল বলেন, আমি অন্য প্রার্থী তুলনায় যোগ্য। আপনারা আমাকে ভোট দিয়ে নির্বাচিত করবেন।

তিনি আরও বলেন, ভোটের ফল যাই হোক, ১ ফেব্রুয়ারি যেমনিভাবে আমি আপনাদের সন্তান, নির্বাচনের পরও আমি তেমনি আপনাদের সন্তান থাকবো। সুখে দুঃখে আপনাদের পাশে থাকবে।

এ সময় তিনি ঢাকা উত্তর সিটিতে একটি বৃহৎ মন্দির গড়ে তোলারও প্রতিশ্রুতিও দেন।

এ সময় বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান বরকত উল্লাহ বুলু বলেন, ঢাকার দুই সিটিতে আমরা দুই মুক্তিযোদ্ধার সন্তানকে প্রার্থী করেছি। আপনার যোগ্য প্রার্থীকে ভোট দিয়ে নির্বাচিত করবেন।

গণফোরামের নির্বাহী সভাপতি অ্যাডভোকেট সুব্রত চৌধুরী বলেন, দেশের মানুষ পরিবর্তনের জন্য জেগে উঠেছে। আপনারা তাবিথ আউয়ালকে ভোট দিয়ে নির্বাচিত করবেন। দেশে পরিবর্তন আসবে।

মতবিনিময় সভায় আরও বক্তব্য দেন, সংগঠনের সহ সভাপতি পান্না লাল দত্ত, দফতর সম্পাদক অপূর্ব কুমার সাহা, বিএনপি নেতা জয়ন্ত কুমার কুণ্ডু, নিপুণ রায় চৌধুরী প্রমুখ।

কেএইচ/এএইচ/পিআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]