কাজী আরেফ রাজনীতির আকাশে ধ্রুবতারা : ইনু

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৮:১৪ পিএম, ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০

জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল জাসদের অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা ও মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক কাজী আরেফ আহমেদের ২১তম হত্যা দিবস পালন করেছে দলটি। রোববার বিকেল ৪টায় রাজধানীর শহীদ কর্নেল তাহের মিলনায়তনে দিবসটি উপলক্ষে আলোচনা সভার আয়োজন করে জাসদ। সভায় সভাপতিত্ব করেন জাসদের সভাপতি হাসানুল হক ইনু। এর আগে সকাল ৬টায় কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে দলীয় পতাকা অর্ধনমিতকরণ ও কালো পতাকা উত্তোলন করা হয়। পরে মিরপুর শহীদ বুদ্ধিজীবী কবরস্থানে কাজী আরেফ আহমেদের সমাধিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন দলটির নেতাকর্মীরা।

সাবেক তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেন, কাজী আরেফ ছিলেন বাংলাদেশের রাজনীতির আকাশে ধ্রুবতারা। ষাটের দশক থেকে মৃত্যুর পূর্ব পর্যন্ত তিনযুগ বাংলাদেশের রাজনীতির প্রতিটি কালপর্বে, প্রতিটি সঙ্কটে, প্রতিটি ক্রান্তিলগ্নে জাতিকে সঠিক পথের দিশা দেখাতে, জাতীয় রাজনীতির সুনির্দিষ্ট গতিমুখ তৈরি করতে অগ্রণী ভূমিকা পালন করেছেন।

ইনু বলেন, বাঙালির স্বাধীকার, সমাজতান্ত্রিক সমাজ ও রাষ্ট্র, সামরিক শাসকের সাজানো বাগানে গণতন্ত্রের চর্চা, সামরিক শাসনকে গণআন্দোলনের মধ্য দিয়ে পরাজিত ও উচ্ছেদ করে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা এসব প্রশ্নে কাজী আরেফ আহমেদ কোনো দোদুল্যমানতায় ভোগেন নাই। এখন স্বাধীন দেশে জাসদ হয়েছে ও সমাজতান্ত্রিক বিপ্লবী আন্দোলন হয়েছে, সামরিক শাসন জনতার আন্দোলনের কাছে পরাজিত হয়েছে, যুদ্ধাপরাধীদের বিচার হয়েছে। কিন্তু আরেফ হত্যার বিচার হয়নি।

তিনি বলেন, কাজী আরেফের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে সাম্প্রদায়িকতা নির্মূল করে সমাজতন্ত্রের পথে দেশকে এগিয়ে নেয়ার সংগ্রাম অব্যাহত রাখতে হবে।

আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন দলের সাধারণ সম্পাদক শিরীন আখতার, কর্যকরী সভাপতি অ্যাডভোকেট রবিউল আলম, স্থায়ী কমিটির সদস্য প্রফেসর ড. আনোয়ার হোসেন, সহ-সভাপতি সফি উদ্দিন মোল্লা, শহীদুল ইসলাম, ফজলুর রহমান বাবুল, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুর রহমান চুন্নু, নাইমুল আহসান জুয়েল, রোকনুজ্জামান রোকন, জাসদের কেন্দ্রীয় নেতা মোখলেছুর রহমান মুক্তাদির প্রমুখ।

এফএইচএস/এমএফ/এমএস