খালেদার মুক্তিতে সুপ্রিম কোর্টের নতুন দৃষ্টিভঙ্গির আশায় মওদুদ

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৬:১৪ পিএম, ২০ ফেব্রুয়ারি ২০২০

সুপ্রিম কোর্ট নতুন দৃষ্টিভঙ্গি নিয়ে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি দেবেন বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ।

বৃহস্পতিবার সুপ্রিম কোর্ট বার কাউন্সিল মিলনায়তনে আয়োজিত এক আলোচনা সভায় তিনি একথা বলেন। ভাষা শহীদ দিবস উপলক্ষে এ আলোচনা সভার আয়োজন করে বিএনপি।

মওদুদ বলেন, বেগম জিয়ার মুক্তি, গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার একই সূত্রে গাঁথা। আমরা জামিনের জন্য আবেদন করেছি, জজ সাহেব বললেন, ‘এটা তো আমরা আগেই দেখেছি, আবার কেন এনেছেন?’ আমরা বললাম, গত দুই মাসে উনার (খালেদা) কতো অবনতি হয়েছে সেটা আপনাদের জানা দরকার। এখন তার অবস্থা অনেক খারাপ। এর আগে জামিন দেননি আমরা এখন নতুন গ্রাউন্ড নিয়ে এসেছি। আমরা শুনানি করতে চাই।

তিনি আরও বলেন, আমার রায় তো সুপ্রিম কোর্ট বহাল রেখেছে। আমরা বললাম, আপনি আমাদের কথাটা শোনেন, এখানে নতুন গ্রাউন্ড পাবেন। মানবিক কারণে তাকে যদি জামিন দেন।

মওদুদ বলেন, আমি এখনও আশা করি, সুপ্রিম কোর্ট নতুন দৃষ্টিভঙ্গি নিয়ে বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্তি দেবেন। আর যদি না দেন আন্দোলন ছাড়া আর কোনো বিকল্প পথ নেই আমাদের কাছে। তখন আমাদের বাধ্য করা হবে একটা কঠোর আন্দোলনের কর্মসূচি গ্রহণ করতে।

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন।

এছাড়া বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার জমির উদ্দিন সরকার, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদ, আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী, বেগম সেলিমা রহমান, ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু, যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন, ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন, মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, হাবিব-উন-নবী খান সোহেল, স্বনির্ভর বিষয়ক সম্পাদক শিরিন সুলতানা, সাংগঠনিক সম্পাদক মো. সেলিমুজ্জামান সেলিম, সহ জলবায়ু বিষয়ক সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান বাবুল, মহিলা দল সভানেত্রী আফরোজা আব্বাস, ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন শ্যামল, সাংগঠনিক সম্পাদক সাইফ মাহমুদ জুয়েল, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবদলের সাধারণ সম্পাদক গোলাম মাওলা শাহিন, মহিলা দলের যুগ্ম সাধারাণ সম্পাদক হেলেন, ছাত্রদলের দফতর সম্পাদক আবদুস সাত্তার পাটোয়ারী জেরিন খান প্রমুখ।

কেএইচ/এমএসএইচ/জেআইএম