আমুকে চেয়েছিলেন ১৪ দলের সবাই

ফজলুল হক শাওন
ফজলুল হক শাওন ফজলুল হক শাওন , বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৬:১০ পিএম, ০৮ জুলাই ২০২০

আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী আমির হোসেন আমু কেন্দ্রীয় ১৪ দলের সমন্বয়ক ও মুখপাত্র নির্বাচিত হওয়ায় শরিক দলের নেতারা তাকে অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা জানিয়েছেন।

১৪ দলের নেতারা বলেন, আমরা আমির হোসেন আমুর মতো একজন দক্ষ রাজনীতিবিদ এবং অসাম্প্রদায়িক, গণতান্ত্রিক ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী মানুষকেই চেয়েছিলাম। আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের যখন ১৪ দলের নেতাদের সঙ্গে কথা বলেন তখন অধিকাংশ নেতাই আমির হোসেন আমুর নাম প্রস্তাব করেছিলেন। তাদের প্রস্তাব অনুযায়ী আমুকে কেন্দ্রীয় ১৪ দলের সমন্বয়ক ও মুখপাত্র নির্বাচিত করায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকেও অভিনন্দন জানান তারা।

আমু কেন্দ্রীয় ১৪ দলের সমন্বয়ক ও মুখপাত্র নির্বাচিত হওয়ায় বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি ও সাবেক সমাজকল্যাণ মন্ত্রী রাশেদ খান মেনন জাগো নিউজকে বলেন, ‘আমি আমির হোসেন আমুকে অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা জানাচ্ছি। একজন অভিজ্ঞ রাজনৈতিক নেতা হিসেবে তার নেতৃত্বে ১৪ দল আরও এগিয়ে যাবে। ভবিষ্যতে আন্দোলন সংগ্রামে মুখ্য ভূমিকা রাখবে বলে আমি মনে প্রাণে বিশ্বাস করি। আমির হোসেন আমু তার দীর্ঘ রাজনৈতিক অভিজ্ঞতা, দক্ষতা ও প্রজ্ঞা দিয়ে ১৪ দলের সমন্বয়কের দায়িত্ব পালনে যথাযথ ভূমিকা পালন করবেন।’

বাংলাদেশের জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জাসদ) সভাপতি ও সাবেক তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু জাগো নিউজকে বলেন, প্রথমে আমরা বলেছিলাম আওয়ামী লীগেরই কোনো সিনিয়র নেতাকে এ পদে দেয়ার জন্য। এরপর ওবায়দুল কাদের আমির হোসেন আমুর নাম প্রস্তাব করে। তখন আমরা সমর্থন দিয়েছিলাম।

তিনি বলেন, ১৪ দল একটা গুরুত্বপূর্ণ জোট। এ জোট অসাম্প্রদায়িক, গণতান্ত্রিক ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাস করে। আমির হোসেন আমু তার দীর্ঘদিনের রাজনৈতিক অভিজ্ঞতা প্রজ্ঞা দিয়ে দল পরিচালনা করলে ১৪ দল উপকৃত হবে।

সাবেক শিল্পমন্ত্রী ও সাম্যবাদী দলের সাধারণ সম্পাদক দিলীপ বড়ুয়া জাগো নিউজকে বলেন, আমির হোসেন আমুর মতো একজন দক্ষ রাজনীতিবিদ এবং অসাম্প্রদায়িক, গণতান্ত্রিক ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী নেতাকে ১৪ দলের সমন্বয়ক ও মুখপাত্র নির্বাচিত করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সঠিক সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। আমির হোসেন আমু একজন আপাদমস্তক রাজনীতিবিদ। ১৪ দলের নেতৃত্ব দিয়ে তিনি প্রধানমন্ত্রীর হাতকে আরও শক্তিশালী করবেন। অসাম্প্রদায়িক, গণতান্ত্রিক ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী আমির হোসেন আমুর নেতৃত্বে ১৪ দল আরও গতিশীল হবে।

কমিউনিস্ট কেন্দ্রের যুগ্ম-আহ্বায়ক অসীত বরণ রায় জাগো নিউজকে বলেন, আমাদেরও আকাঙ্ক্ষা ছিল আমির হোসেন আমু ১৪ দলের নেতৃত্বে আসুক। উনি কেন্দ্রীয় ১৪ দলের সমন্বয়ক ও মুখপাত্র নির্বাচিত হওয়ায় আমরা খুব খুশি হয়েছি। আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের এ বিষয়ে যখন ১৪ দলের নেতাদের সঙ্গে কথা বলেন তখন অধিকাংশ নেতা আমির হোসেন আমুর নাম বলেছেন। রাজনীতিতে অত্যন্ত দক্ষ, অভিজ্ঞ ও অসাম্প্রদায়িক, গণতান্ত্রিক এবং মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী একজন নেতা। আমি মনে করি ১৪ দল সঠিক নেতা পেয়েছে।

জেপি নেতা শেখ শহিদুল ইসলাম জাগো নিউজকে বলেন, আমির হোসেন আমুর নাম যখন প্রস্তাব করা হয় তখন আমরা সমর্থন করেছি। উনি দায়িত্ব গ্রহণ করলে মোহাম্মদ নাসিমের শূন্যতা পূরণ হবে।

তিনি বলেন, ষাটের দশকে সামরিক শাসনবিরোধী আন্দোলন, মুক্তিযুদ্ধ, এরশাদবিরোধী ও বিএনপি-জামায়াত জোটের বিরুদ্ধে ১৪ দলের আন্দোলনে তিনি সাহসী ভূমিকা রেখেছেন। তার অভিজ্ঞতা ও প্রজ্ঞা কাজে লাগিয়ে ১৪ দলকে কার্যকর ভূমিকায় এগিয়ে নেবেন।

এর আগে ১৪ দলের মুখপাত্রের দায়িত্ব পালন করছিলেন মোহাম্মদ নাসিম। গত ১৩ জুন মারা যান আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর এ সদস্য। তার মৃত্যুর পর আওয়ামী জোটের এ গুরুত্বপূর্ণ পদটি ফাঁকা হয়। জোটের সমন্বয়ক সৈয়দা সাজেদা চৌধুরী দীর্ঘদিন অসুস্থ থাকায় অনেকটা নিষ্ক্রিয় আছেন তিনি।

উল্লেখ্য, ২০০৪ সালের ২৫ নভেম্বর তৎকালীন বিরোধী দল আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে ১৪ দলীয় জোটের যাত্রা শুরু হয়। শুরুতে এই জোটের সমন্বয়কের দায়িত্বে ছিলেন আব্দুল জলিল। এরপর আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এলে দায়িত্ব পান প্রবীণ আওয়ামী লীগ নেত্রী সৈয়দা সাজেদা চৌধুরী। মুখপাত্রের দায়িত্ব দেয়া মোহাম্মদ নাসিমকে।

এফএইচএস/এএইচ/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]