বঙ্গবন্ধু হত্যায় মোশতাক-জিয়ার বিচার দাবি তথ্য প্রতিমন্ত্রীর

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৫:১৬ পিএম, ০৯ আগস্ট ২০২০

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে সপরিবারে হত্যার জন্য খন্দকার মোশতাক আহমেদ ও জিয়াউর রহমানের মরণোত্তর বিচার দাবি করেছেন তথ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসান।

আগামী ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে রোববার (৯ আগস্ট) সচিবালয়ে ‘বঙ্গবন্ধুর জীবন ও কর্মের ওপর আলোকচিত্র, ডিজিটাল ডিসপ্লে এবং সংবাদপত্রে বঙ্গবন্ধু’ শীর্ষক সপ্তাহব্যাপী প্রদর্শনীর উদ্বোধন অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে প্রতিমন্ত্রী এ কথা জানান। অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি ছিলেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।

১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে সপরিবারে হত্যার সময় খন্দকার মোশতাক অর্থমন্ত্রী ছিলেন, বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর তিনি রাষ্ট্রপতি হন। জিয়াউর রহমান ছিলেন তখন ঊর্ধ্বতন সেনা কর্মকর্তা, তিনিও পরে রাষ্ট্রপতি হন, গঠন করেন বিএনপি।

তথ্য প্রতিমন্ত্রী বলেন, আগামী ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধুর ৪৫তম শাহাদাতবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবসে আমাদের বাঙালি জাতির এবার একটাই শপথ থাকবে—বঙ্গবন্ধুর পলাতক হত্যাকারী খুনিরা, আত্মস্বীকৃত খুনিরা বিদেশের মাটিতে পলাতক, তাদের যথাযথ আইনি প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে দেশে ফিরিয়ে এনে হাইকোর্ট কর্তৃক যে দণ্ডাদেশ ঘোষিত হয়েছে সে রায় কার্যকর করতে হবে। এ হচ্ছে আমাদের শপথ।

তিনি আরও বলেন, বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যা করার যারা মূল পরিকল্পনাকারী, নীলনকশা প্রণয়নকারী, সেই খুনি মোশতাক ও জিয়াউর রহমান— এদের মুখোশ বাঙালি জাতির সামনে উন্মোচিত করতে হবে এবং তাদের মরণোত্তর বিচার দাবি করছি আমি ডাক্তার মুরাদ হাসান, এ দেশের একজন নাগরিক হিসেবে, বঙ্গবন্ধুর এই দেশের একজন সন্তান হিসেবে।

আরএমএম/এইচএ/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]