‘সরকার নানা অঙ্গনে ক্রিকেট খেলে সেঞ্চুরি মারছে’

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০২:৩২ পিএম, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০

‘সরকার নানা অঙ্গনে ক্রিকেট খেলছেন আর খালি সেঞ্চুরি মারছেন’ বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী। তিনি বলেন, ‘আমরা শুধু সেঞ্চুরির কথা শুনি, খালি সেঞ্চুরির কথা। পেঁয়াজের দাম গত বছর প্রথমে সেঞ্চুরি, পরে ডাবল সেঞ্চুরি, তারপর ট্রিপল সেঞ্চুরিতে পৌঁছেছিল।’

‘শুধু দ্রব্যমূল্যের সেঞ্চুরি নয়, নারীর সম্ভ্রম-হীনতায় সেঞ্চুরির ঐতিহ্য রয়েছে আওয়ামী লীগের ছাত্র সংগঠনের ছাত্রলীগের। ১৯৯৮ সালে জাহাঙ্গীর নগর বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রলীগের নেতা জসিম উদ্দিনের কথা শোনেননি? যিনি নারী ধর্ষণে সেঞ্চুরি করেছিলেন।’

সোমবার (২৮ সেপ্টেম্বর) নয়াপল্টন দলীয় কার্যালয়ের সামনে প্রয়োজনীয় ভোগ্যমূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে নারী ও শিশু অধিকার ফোরাম আয়োজিত মানববন্ধনে তিনি এসব কথা বলেন।

রিজভী বলেন, ‘একদিকে এমসি কলেজে নির্যাতনের পর ওই নারী যখন স্বামীর কাছে ফিরে এসে তাকে জড়িয়ে ধরে কান্না আর আর্তচিৎকার করছিল, অন্যদিকে চলছিল জন্মদিনের উৎসব। সাত/আটজন ওই গৃহবধূর ওপর নির্যাতন করেছে আর অন্যদিকে প্রধানমন্ত্রীর হচ্ছে জন্মদিন! সংবাদপত্রের প্রথম পাতা জুড়ে আপনার জন্মদিনের খবর। বাকশাল, একদলীয় শ্বাসন হলে যা হয়, কারও কোনো খবর নাই।’

সরকারের সমালোচনা করে রিজভী আরও বলেন, ‘বিডিআর হত্যা হলে ইলিয়াস আলী গুম হয়। ইলিয়াস আলীর ঘটনায় আন্দোলন হলে তখন ত্বকীর ঘটনার সৃষ্টি হয়। আবার যখন ত্বকী ইস্যুতে আন্দোলন চলতে থাকে তখন সাত খুনের ঘটনা সৃষ্টি করা হয়।’

‘তারা একটি ঘটনা দিয়ে আরেকটি চাপা দিচ্ছে। তারপর পাপিয়া, সাহেদ, সাবরিনা; তারপর সিনহা। এখন আবার যে মর্মান্তিক ঘটনা, সেটা হচ্চে এমসি কলেজের এই ঘটনা।’

তিনি বলেন, শিক্ষাঙ্গন, বিদ্যাপীঠ ন্যায়নীতির আলোয় আলোকিত হয়ে বেরিয়ে আসবে কিন্তু সেই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে আপনারা ছাত্রলীগকে কী শিক্ষা দিচ্ছেন?

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের সমালোচনা করে রিজভী বলেন, ‘গণমাধ্যমের আলো কেড়ে নিয়ে আপনারা প্রতিদিন কথা বলেন। আর ড. হাছান মাহমুদ, উনি মন্ত্রী কিন্তু ব্যবসা-বাণিজ্য উনি কী করেন?’

‘আমি আপনাদের জানিয়ে দেই, উনার একটা কারখানা আছে, ফ্যাক্টরি আছে। সেই ফ্যাক্টরি হচ্ছে গুজবের ফ্যাক্টরি। তিনি প্রতিদিন জিয়া পরিবারের বিরুদ্ধে যেটা নজরুল ভাই সুন্দর করে বলেছিলেন যে, হাছান মাহমুদ জিয়া পরিবারের সমালোচনা বিষয়ক মন্ত্রী। প্রতিদিন আপনারা এত কথা বলেন, আপনাদের নিজেদের দিকে তাকান। আয়নার দিকে তাকান, আপনারা যে শিক্ষা দিচ্ছেন, সেই শিক্ষা পেয়ে আপনাদের সোনার ছেলেরা ছাত্র হোস্টেলের কর্ণারের রুমে নিয়ে নববধূকে নির্যাতন করল। আজ মানুষ কাঁদছে, বিশ্বের বিবেক কাঁদছে, আর আপনারা জন্মদিন পালন করছেন। আপনাদের ধিক্কার জানাই।’

তিনি বলেন, আজ এত পাপ, এত অন্যায়। আজ দ্রব্যমূল্য হু-হু করে বাড়ছে। এই অনাচার, অবিচার ধর্ষণ, খুন; এগুলো দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি-কে ঢেকে দিচ্ছে।

কেএইচ/এমএআর/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]