ভোটার না হতে পারার আফসোস সালাহউদ্দিনের

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১০:৪২ এএম, ১৭ অক্টোবর ২০২০

ঢাকা-৫ আসনের উপনির্বাচনে বিএনপির প্রার্থী সালাহউদ্দিন আহমেদ প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। তবে এ আসনের ভোটার না হওয়ায় তিনি আফসোস প্রকাশ করেছেন। আর এ কারণে সরকার ও নির্বাচন কমিশনকে দায়ী করেছেন তিনি।

শনিবার (১৭ অক্টোবর) সকাল পৌনে দশটায় যাত্রাবাড়ী আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজ কেন্দ্র পরিদর্শনের মাধ্যমে সালাহউদ্দিন তার দিনের কর্মসূচি শুরু করেন। প্রায় ১৫ মিনিট কেন্দ্র পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপ করে তার ভোটার না হওয়ার বিষয়টি জানান তিনি।

সালাহউদ্দিন বলেন, ২০০৮ সালে আমি এই আসনের ভোটার ছিলাম। পরে ২০১৮ সালে আমাদের দল যখন নির্বাচনে অংশ নেয়, তখন ঢাকা-৪ আসলে আমি ভোটার হই। পরবর্তীতে আবার এই আসনের জন্য আবেদন করলেও নির্বাচন কমিশন এবং সরকারের কারণে আমি ভোটার হতে পারিনি।

আওয়ামী লীগের প্রার্থী কাজী মনিরুল ইসলাম মনু যাত্রাবাড়ী আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজ কেন্দ্রে ভোট দিয়ে গণমাধ্যমে যে বক্তব্য দিয়েছেন, তার সমালোচনা করেন সালাউদ্দিন।

Salahuddin-1

তিনি বলেন, আওয়ামী লীগের এই প্রার্থীও এ আসনের ভোটার না। তিনি যদি ভোট দেয়ার কথা বলে থাকেন, তাহলে সেটা মিথ্যা কথা বলেছেন।

এর আগে শনিবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে যাত্রাবাড়ীর আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজ কেন্দ্রে ভোট দেন ঢাকা-৫ আসনের উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী কাজী মনিরুল ইসলাম মনু।

নেতাকর্মীদের নিয়ে কেন্দ্রে প্রবেশ করে ভোট কক্ষে যান তিনি। ভোট দিয়ে বের হয়ে মনু বলেন, ‘উৎসবমুখর পরিবেশে মানুষ ভোট দিচ্ছে। কোথাও কোনো সমস্যা নেই। এ নির্বাচন একটি নজির হয়ে থাকবে।’

ঢাকা-৫ আসনে আরও চারজন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। তারা হলেন- গণফ্রন্টের এইচ এম ইব্রাহিম ভূইঁয়া, জাতীয় পার্টির মীর আব্দুস সবুর, বাংলাদেশ কংগ্রেসের মো. আনছার রহমান শিকদার ও ন্যাশনাল পিপলস পার্টির মো. আরিফুর রহমান (সুমন মাস্টার)। গত ৬ মে হাবিবুর রহমান মোল্লার মৃত্যুতে ঢাকা-৫ আসন শূন্য হয়।

কেএইচ/এমএসএইচ/পিআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]