মুশতাকের মৃত্যুর দায় সরকারকেই নিতে হবে : ন্যাপ মহাসচিব

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৩:৫১ পিএম, ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২১

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় গাজীপুরের কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগারে বন্দী লেখক মুশতাক আহমেদের মৃত্যুর দায় সরকার তথা রাষ্ট্রকেই নিতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি (ন্যাপ) মহাসচিব এম. গোলাম মোস্তফা ভূঁইয়া।

লেখক মুশতাকের মৃত্যুতে শোক প্রকাশ এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়ে ন্যাপ মহাসচিব বলেন, ‘মুশতাকের মৃত্যুর দায় সরকার তথা রাষ্ট্রকেই গ্রহণ করতে হবে। নিরপেক্ষ তদন্ত করে এই মর্মান্তিক ঘটনার বিচার জরুরি।’

শুক্রবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) তোপখানায় ভাষা আন্দোলনের চিত্র প্রদর্শনী পরিদর্শন শেষে তিনি এসব কথা বলেন।

ন্যাপ মহাসচিব বলেন, ‘ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে গ্রেফতার লেখক মুশতাক আহমেদ গত ২৩ ফেব্রুয়ারিও জামিন পাননি। বৃহস্পতিবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) বন্দী অবস্থায় মারা গেলেন। এটা কি এক ধরনের হত্যাকাণ্ড নয়?’

গোলাম মোস্তফা ভূঁইয়া বলেন, ‘সরকারের সমালোচনা করে নিজের ফেসবুক টাইমলাইনে কার্টুন শেয়ার করায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে গ্রেফতারের পর তিনি দুর্বল, বেশ অসুস্থ বলে অনেকবার তার জামিন চাওয়া হয়েছিল। সরকার তার এই সমালোচককে জামিনের অযোগ্য মনে করেছে। দুঃখজনক, জামিন না হলেও কারাগারেই মারা গেছেন মুশতাক আহমেদ। যে দেশে খুনের দায়ে সাজাপ্রাপ্ত আসামির জামিন হয়, সে দেশে সরকারের সমালোচনার কারণে একজন লেখকের জামিন হয় না, যা দুঃখজনক।’

তিনি আরও বলেন, ‘মহান ভাষা আন্দোলনের পথ ধরে যে স্বাধীন সার্বভৌম বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠিত হয়েছে সেখানে আজ ভাষা আন্দোলন ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ভূলুণ্ঠিত। এই ভাষার মাসেই একজন লেখকের জেলে মৃত্যু রাষ্ট্রের জন্য কতটা লজ্জাজনক তা কি শাসকগোষ্ঠী অনুভব করছেন? লেখক মুশতাক আহমেদের কারাগারে মৃত্যুই কি ভাষার মাসের শ্রেষ্ঠ উপহার? তার বৃদ্ধ বাবা-মা এবং মানসিক ভারসাম্যহীন স্ত্রীকে সান্ত্বনা দেবে কে?’

এ সময় আরও বক্তব্য দেন জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জাসদ উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য এনামুজ্জামান চৌধুরী, গণ রাজনৈতিক জোট-গর্জোর সভা প্রধান সৈয়দ মঈনুজ্জামান লিটু, ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক পার্টি-এনডিপি মহাসচিব মো. মঞ্জুর হোসেন ঈসা, বাংলাদেশ ন্যাপ ভাইস চেয়ারম্যান স্বপন কুমার সাহা প্রমুখ।

কেএইচ/এমআরআর/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]