রোজিনাকে নির্যাতন গণমাধ্যম বন্দির প্রমাণ : মোশাররফ

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৯:৫৪ পিএম, ২০ মে ২০২১
ফাইল ছবি

গণমাধ্যম যে বন্দি সাংবাদিক রোজিনা ইসলামকে হেনস্তার ঘটনা তা প্রমাণ করে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেন।

বৃহস্পতিবার (২০ মে) বিকেলে এক ভার্চুয়াল আলোচনা সভায় এই মন্তব্য করেন তিনি। বিএনপির উদ্যোগে ‘অবরুদ্ধ গণতন্ত্র, শৃঙ্খলিত গণমাধ্যম, মুক্তি পথ কী?’ শীর্ষক এই আলোচনা সভা হয়।

খন্দকার মোশাররফ বলেন, ‘আজকে গণমাধ্যম বন্দি, তার ক্ষুদ্র একটি প্রমাণ সাংবাদিক রোজিনা ইসলামের ওপর নির্যাতন, হেনস্তা ও অপমানের ঘটনা। সর্বশেষে তাকে গ্রেফতার হতে হয়েছে। আমি মনে করি বাংলাদেশে যে সরকার রয়েছে, এই সরকার ফ্যাসিবাদী সরকার। তাদের বাকশাল শাসন প্রতিষ্ঠার ফ্যাসিবাদী চরিত্রের ক্ষুদ্র প্রতিফলন হচ্ছে রোজিনার ওপর ঘটনা।’

তিনি বলেন, ‘আজকে গণমাধ্যম শৃঙ্খলিত, গণতন্ত্র বন্দি। এই সরকার মুক্তিযুদ্ধের সব অর্জনকে ধ্বংস করে দিয়ে ফ্যাসিবাদ প্রতিষ্ঠা করে দেশটাকে ধ্বংসের কিনারায় নিয়ে গেছে। এই অবস্থা থেকে উত্তরণ ঘটাতে হলে দেশে গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনতে হবে, জনগণের শাসন ফিরিয়ে আনতে হবে।’

জাতীয় প্রেস ক্লাবের সাবেক সভাপতি শওকত মাহমুদ বলেন, ‘আজ রক্তবীজের ছাপ কিন্তু সর্বত্র ছড়িয়ে গেছে। এই জেবুন্নেছাকে (স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব) যেরকম দেখেছেন, এই জেবুন্নেছা হচ্ছে আমাদের সামনে একটি চরিত্র। আমলাতন্ত্রে জেবুন্নেছায় ভরে গেছে।’

মির্জা ফখরুল ইসলামের সভাপতিত্বে ও প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানির পরিচালনায় আলোচনা সভায় বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, আবদুল মঈন খান, নজরুল ইসলাম খান, আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী, ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু, মানবাধিকার সম্পাদক অ্যাডভোকেট আসাদুজ্জামান বক্তব্য রাখেন।

সাংবাদিকদের মধ্যে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সাবেক সভাপতি কামাল উদ্দিন সবুজ, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সাবেক সভাপতি আবদুল হাই শিকদার, বর্তমান সভাপতি কাদের গনি চৌধুরী, জাতীয় প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ইলিয়াস খান ও মানবাধিকার কর্মী অ্যাডভোকেট এলিনা খান আলোচনায় অংশ নেন।

কেএইচ/জেডএইচ/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]