রোজিনার সঙ্গে ক্ষমার অযোগ্য অপরাধ হয়েছে : জিএম কাদের

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৩:১৯ এএম, ২১ মে ২০২১

প্রথম আলোর জ্যেষ্ঠ সাংবাদিক রোজিনা ইসলামের সঙ্গে ক্ষমার অযোগ্য অপরাধ করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন জাতীয় পার্টির (জাপা) চেয়ারম্যান গোলাম মোহাম্মদ কাদের (জিএম)। তিনি বলেন, ‘রোজিনাকে হেনস্তা ও তার বিরুদ্ধে মামলার প্রকৃত ঘটনা উন্মোচনের জন্য বিচারবিভাগীয় তদন্ত কমিটি গঠন করতে হবে।’

বৃহস্পতিবার (২০ মে) জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে জাতীয় পার্টি ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আয়োজিত ফিলিস্তিনের ওপর ইসরাইলের পৈশাচিক হামলা বন্ধ এবং দৈনিক প্রথম আলোর অনুসন্ধানী প্রতিবেদক রোজিনা ইসলামের মুক্তির দাবিতে আয়োজিত মানববন্ধনে তিনি এসব কথা বলেন।

জিএম কাদের বলেন, তদন্ত রিপোর্ট দাখিল না হওয়া পর্যন্ত আমরা রোজিনা ইসলামকে জামিন দেয়ার দাবি জানাচ্ছি। যারা সাংবাদিক রোজিনাকে হেনস্তা করেছে, তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নিতে হবে।’

তিনি বলেন, ‘রোজিনা ইসলামের সাথে যে বর্বরতা হয়েছে তা ক্ষমার অযোগ্য অপরাধ। একজন অনুসন্ধানী প্রতিবেদক তথ্য সংগ্রহ করবেন এতে অপরাধের কিছু নেই। অনুসন্ধানী প্রতিবেদকদের জন্যই আমরা জানতে পারি বিভিন্ন দফতরে লুটপাটের খবর।’

তিনি বলেন, ‘করোনাকালে মাস্ক, পিপিই, হাসপাতালের যন্ত্রপাতি ক্রয়ে যে দুর্নীতি হয়েছে তা অনুসন্ধানী প্রতিদেকরাই জাতির সামনে তুলে ধরেছেন। আবার করোনা টিকা আমদানি করে একটি কোম্পানি ইতোমধ্যেই ৫০ কোটি টাকা লোপাট করেছে। বর্তমানে টিকা আমদানিতে কী হচ্ছে আমরা জানি না। রোজিনা ইসলাম তার পেশার স্বার্থেই তথ্য সংগ্রহ করেছেন। জাতিকে জানাতে এবং দেশের স্বার্থেই তিনি দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছেন। তথ্য সংগ্রহ কখনো চুরি হতে পারে না।’

জাপা চেয়ারম্যান বলেন, ‘অফিসিয়াল সিক্রেটস অ্যাক্ট হচ্ছে মেয়াদোত্তীর্ণ কালো আইন। ১৯২৩ সালে বৃটিশ সরকার তাদের ক্ষমতা পাকাপোক্ত করতে নিবর্তনমূলক এই আইনটি পাশ করে। স্বাধীন ও গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রে এমন কালো আইন জনস্বার্থবিরোধী। বর্তমানে তথ্য অধিকার আইনটিও উপনিবেশিক ধারাবাহিকতা বজায় রেখে অর্থাৎ সরকার এবং জনগণ রাজা ও প্রজা এ ধারণাটিকে লালন করা হচ্ছে। আমরা এর ঘোর বিরোধিতা করছি। তথ্য অধিকার আইনকে যত দ্রুত সম্ভব সংশোধন করার দাবি জানাচ্ছি।’

ফিলিস্তিনে ইসরাইলের বর্বর হামলার সমালোচনা করে তিনি বলেন, ‘ফিলিস্তিনিদের জীবন বাঁচাতে ফিলিস্তিনে জাতীসংঘের শান্তিরক্ষী নিয়োগ করতে হবে। প্রয়োজনে জাতিসংঘের নেতৃত্বে শক্তি প্রয়োগ করে নিবৃত করতে হবে ইসরাইলকে।’

মানববন্ধনে জাপা মহাসচিব জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলু বলেন, ‘রোজিনা ইসলামকে যেভাবে হেনস্তা করা হয়েছে তা স্বাধীনতার চেতনা পরিপন্থী। ১৯৭১ সালে আমরা মুক্তিযুদ্ধ করেছি মানুষের বাক ও ব্যক্তি স্বাধীনতার জন্য। কিন্তু আজ দেশে গণতন্ত্রহীনতার কারণে মানুষ কথা বলতে পারছে না।’

সভাপতির বক্তব্যে জাতীয় পার্টির কো চেয়ারম্যান ও ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সভাপতি সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা বলেন, ‘সাংবাদিক রোজিনা ইসলামের সঙ্গে যে অবিচার করা হয়েছে তা সুষ্ঠু বিচারের দাবিতে আজ সকল স্তরের মানুষ এক হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী নিজেও একজন নারী। আমরা বিশ্বাস করি বিষয়টিতে তিনি সরাসরি হস্তক্ষেপ করে দ্রুত রোজিনা ইসলামের মুক্তির ব্যবস্থা করবেন।’

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যানের উপদেষ্টা ও ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সাধারণ সম্পাদক জহিরুল আলম রুবেল এবং পার্টির যুগ্ম সাংগঠনিক সম্পাদক সুজন দের পরিচালনায় মানববন্ধনে আরও বক্তব্য রাখেন জাতীয় পার্টির সিনিয়র কো-চেয়ারম্যান ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ, প্রেসিডিয়াম সদস্য সাহিদুর রহমান টেপা, হাজী সাইফুদ্দিন আহমেদ মিলন, রেজাউল ইসলাম ভূঁইয়া, আলমগীর সিকদার লোটন প্রমুখ।

এসএম/ইএ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]