গণতান্ত্রিক দাবি আদায়ে ১৮ দফা কর্মসূচি মুক্তি কাউন্সিলের

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৭:৪৮ পিএম, ১১ জুন ২০২১

নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যের মূল্যবৃদ্ধি রোধ, পুলিশি নির্যাতন বন্ধ, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিল, যথাযথ মজুরি বাস্তবায়ন, ডিসেম্বরের মধ্যে টিকা দেয়াসহ বেশকিছু গণতান্ত্রিক দাবি আদায়ে ১৮ দফা কর্মসূচি বাস্তবায়নের আহ্বান জানিয়েছে জাতীয় মুক্তি কাউন্সিল।

শুক্রবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে সমাবেশে এ আহ্বান জানানো হয়। সমাবেশে বক্তারা বাজেটকে অকার্যকর বলে আখ্যায়িত করে বলেন, সরকার ৬ লাখ ৩ হাজার ৬৮১ কোটি টাকার ঘাটতি বাজেট পেশ করেছে।

তারা বলেন, করোনা অতিমারিতে জনগণের জীবন ও জীবিকা যখন বিপর্যস্ত তখন বাংলাদেশের লুটেরা ব্যবসায়ী ও দুর্নীতিবাজ আমলারা নিত্যপ্রয়ায়োজনীয় দ্রব্যের মূল্যবৃদ্ধি ও সরকারি কেনাকাটায় দুর্নীতি করে হাজার হাজার কোটি টাকা শোষণ ও লুণ্ঠন করেছে।

বক্তারা বলেন, দেশে গত বছর ২০২০ সালের ৮ মার্চ প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হওয়ার পর যেভাবে এই মহামারি মোকাবিলায় সুনির্দিষ্ট পরিকল্পনা ও পদক্ষেপ গ্রহণ করা জরুরি ছিল তা করা হয়নি।

তারা বলেন, করোনায় দেশে নতুন করে গত এক বছরে আড়াই কোটি মানুষ যে দরিদ্র হয়েছে তাদের রক্ষায় বাজেটে বরাদ্দ দেয়া হয়নি। স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা সেবার জন্য প্রয়োজনীয় অর্থ বরাদ্দ দেয়া হয়নি। টিকা সংক্রান্ত ব্যয় এবং বিভিন্ন কর্মসূচি বাস্তবায়নে সুনির্দিষ্ট কোনো পরিকল্পনা অর্থমন্ত্রীর বক্তব্যে পাওয়া যায়নি।

অন্যদিকে প্রস্তাবিত ঘাটতি বাজেটের ২ লাখ ১৪ হাজার ৬৮১ কোটি টাকা বিশ্বব্যাংক, এডিবির কাছ থেকে এবং দেশের ব্যাংকগুলো থেকে সরকার ঋণ গ্রহণ করতে যাচ্ছে।

এ অবস্থায় চাল, ডাল, তেল, পেঁয়াজসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যের মূল্যবৃদ্ধির বিরুদ্ধে, কর্মক্ষম মানুষের সারা বছর কাজের দাবিতে, পুলিশি নির্যাতন ও জুলুমের বিরুদ্ধে, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনসহ সকল দমনমূলক আইন বাতিলের দাবিতে, সভা সমাবেশে পুলিশের বাধা বন্ধের দাবিতে, শ্রমিকদের বাজার দরের সঙ্গে মিল রেখে মনুষ্যোচিত মজুরির দাবিতে, ১৮ বছর ঊর্ধ্ব সকলকে আগামী ডিসেম্বর ২০২১ এর মধ্যে টিকা দেয়ার দাবিসহ গণতান্ত্রিক দাবি আদায়ে ১৮ দফা কর্মসূচি বাস্তবায়নের আহ্বান জানান বক্তারা।

এনএইচ/এমআরএম/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]