‘চাকরিজীবী লীগ’র প্রচারণার সেই পোস্ট সরিয়ে নিলেন হেলেনা জাহাঙ্গীর

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০২:৪৪ পিএম, ২৬ জুলাই ২০২১

চাকরিজীবী লীগ সম্পর্কে কিছুই জানেন না এবং এ বিষয়ে অস্বীকার করলেও নিজেই ভেরিফাইড ফেসবুকে এ নিয়ে প্রচারণা চালিয়েছিলেন আলোচিত ব্যবসায়ী হেলেনা জাহাঙ্গীর। এমনকি এ সংক্রান্ত পোস্টারও ফেসবুকে আপলোড করেন তিনি। এখন সেসব পোস্ট ডিলিট করলেও তার দেয়া পোস্টগুলোর স্ক্রিনশট ভাইরাল হয়েছে।

তিনি চাকরিজীবী লিগ সম্পর্কে লিখেছেন, ‘দুর্নীতিমুক্ত বাংলাদেশ গড়ার প্রত্যয় আর সরকারের হাতকে শক্তিশালী করার প্রত্যাশায় বাংলাদেশের আওয়ামী চাকুরীজীবি লীগ...। নামটি অনেকের কাছে নতুন মনে হলেও এটি অনেক দিন ধরে কাজ করা একটি সংগঠন। এটির বয়স প্রায় তিন থেকে চার বছর। অনেক দিন ধরে কাজ করে যাচ্ছে দেশব্যাপী। বাংলাদেশের ৬৪টি জেলার মধ্যে ৩২ জেলায় অফিসসহ কমিটি দেয়া হয়েছে। এই মুহূর্তে এই সংগঠনটির সদস্য লক্ষ লক্ষ। অবসরপ্রাপ্ত নৌবাহিনী, পুলিশ, সেনাবাহিনী (সদস্য), ব্যাংকার, বেসরকারি অনেক চাকরিজীবী এখানে আছেন। প্রচার-প্রচারণা নেই, হয়তাে এজন্য অনেকের অজানা। কিছুদিনের মধ্যেই সবাই জেনে যাবেন। কারণ প্রতিদিন জুম মিটিংয়ের মাধ্যমে আগামীর কার্যক্রম (নিয়ে) আলােচনা চলছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী অনুমােদন দিলেই এটি অনেক বেশি শক্তিশালী হয়ে দেশ ও জনগণের জন্য নিবেদিত সহায়তাকারী সংগঠন হিসেবে কাজ করবে।’

পরে অবশ্য তার ফেসবুক পেজে এই স্ট্যাটাস পাওয়া যায়নি।

এ বিষয়ে সোমবার (২৬ জুলাই) যোগাযোগ করলে জাগো নিউজকে তিনি বলেন, ‘স্ট্যাটাসটি আমারই। কিন্তু এখানে কি কিছু লেখা আছে যে আমি পদ নিয়েছি?’

নানা সময়ে বিতর্কিত কর্মকাণ্ডে আলোচনায় এসেছেন ব্যবসায়ী হেলেনা জাহাঙ্গীর। এরই মধ্যে কুমিল্লা উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা ও কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের মহিলাবিষয়ক উপ-কমিটির সদস্যপদ বাগিয়ে নেন। সম্প্রতি ‘চাকুরীজীবি লীগ’ নামের একটি সংগঠনের সভাপতি হয়ে ফের আলোচনায় আসেন তিনি। তার এ সংগঠনের কর্মকাণ্ড ফেসবুকে ইতোমধ্যে ভাইরাল হয়েছে।

বিষয়টি আওয়ামী লীগের হাইকমান্ডেরও চোখে পড়ে। তারা তার সংগঠনের বৈধতা নেই বলে সাফ জানিয়ে দিয়েছেন। পাশাপাশি বিতর্কিত এ কাণ্ডে তাকে মূল দল থেকেই বাদ দেয়া হচ্ছে।

এইচএস/ইএ/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]