চট্টগ্রামের ‘ফুসফুস’ কেটে হাসপাতাল নয়

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৯:০৩ পিএম, ৩১ জুলাই ২০২১
ছবি : সংগৃহীত

জনমত উপেক্ষা করে চট্টগ্রাম নগরীর ঐতিহ্যমণ্ডিত সিআরবিতে ব্যবসায়িক স্বার্থে হাসপাতাল নির্মাণের উদ্যোগের তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন বাম ঐক্যফ্রন্টের নেতারা। অবিলম্বে সিআরবিতে হাসপাতাল তথা যেকোনো স্থাপনা নির্মাণের উদ্যোগ নেয়া থেকে বিরত থাকার দাবি জানানো হয়।

শনিবার (৩১ জুলাই) সকালে বাম ঐক্যফ্রন্টের কেন্দ্রীয় সমন্বয়ক ও গণমুক্তি ইউনিয়নের আহ্বায়ক কমরেড নাসির উদ্দীন আহম্মদ নাসুর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত অনলাইন বৈঠকে জোটের নেতারা এ আহ্বান জানান।

বৈঠকে বক্তব্য দেন বাসদ (মাহবুব) আহ্বায়ক কমরেড সন্তোষ গুপ্ত, কমিউনিস্ট ইউনিয়নের আহ্বায়ক কমরেড ইমাম গাজ্জালী, গণমুক্তি ইউনিয়নের কেন্দ্রীয় নেতা কমরেড রাজা মিঞা ও শিবলুল বারী রাজু, রফিকুল ইসলাম। সভা পরিচালনা করেন বাসদের মহিনউদ্দিন চৌধুরী লিটন।

বক্তারা বলেন, চট্টগ্রামকে বলা হতো প্রাচ্যের রাণি। সিআরবি দৃষ্টিনন্দন ও ঐতিহাসিক গুরুত্বমণ্ডিত নৈসর্গিক এলাকা। এখানে রয়েছে বিভিন্ন দুর্লভ ওষুধি গাছসহ শতবর্ষের পুরনো মহিরুহ বৃক্ষ, লতাগুল্ম দ্বারা আবৃত প্রাণ প্রকৃতির ছোঁয়া। সিআরবিকে বলা হয় প্রাকৃতিক অক্সিজেনের কারখানা এবং চট্টগ্রামের ফুসফুস।

তারা আরও বলেন, সেখানে আছে ব্রিটিশবিরোধী যুব-বিদ্রোহের নায়ক মাস্টারদা সূর্যসেন, বীরকন্যা প্রীতিলতা ও একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধের মহিমান্বিত স্মৃতি। মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে এই এলাকায় চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম জিএস শহীদ আবদুর রউফসহ ৭০ জনের মতো রেলশ্রমিক কর্মচারী শহীদ হন। এই এলাকায় এসব শ্রমিকদের স্মৃতিস্তম্ভ ও গণকবর রয়েছে। এই ঐতিহাসিক গুরুত্বমণ্ডিত, জীববৈচিত্র্য সম্পন্ন, প্রাকৃতিক সৌন্দর্য ও সংস্কৃতি কেন্দ্র ধ্বংস করে ব্যবসায়ীদের স্বার্থে হাসপাতাল কিংবা কোনো স্থাপনা হতে পারে না।

চট্টগ্রামে অনেক জায়গায় হাসপাতাল করা যায় উল্লেখ করে বক্তারা বলেন, রেলওয়ের রুগ্ন হাসপাতালটিকেও স্বয়ংসম্পন্ন করা যায়। তাই অবিলম্বে ঐতিহাসিক গুরুত্ব ও প্রাণ-প্রকৃতি ধ্বংস করে হাসপাতাল নির্মাণের সিদ্ধান্ত থেকে সরকারকে সরে আসার জোর দাবি জানান নেতারা।

এসএম/এআরএ/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]