‘রোহিঙ্গাদের আত্মরক্ষার শিক্ষা দিয়ে আরাকানে পাঠিয়ে দেন’

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক
বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়
প্রকাশিত: ১২:২১ এএম, ১৪ আগস্ট ২০২১

রোহিঙ্গারা যেন তাদের নিজ দেশে ফিরে যুদ্ধ করে আরাকানকে মুক্ত করতে পারে সেজন্য প্রত্যেক রোহিঙ্গাকে আত্মরক্ষার শিক্ষা দেয়ার জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ও ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী।

শুক্রবার (১৩ আগস্ট) বিকেলে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে সবার জন্য টিকা নিশ্চিত করা, সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেয়া এবং নিম্ন আয়ের মানুষের জন্য রেশনিং ও জনজীবন সচল রাখার দাবিতে ভাসানী অনুসারী পরিষদের উদ্যোগে আয়োজিত নাগরিক সমাবেশে সভাপতির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

সমাবেশে ডা. জাফরুল্লাহ বলেন, ‘প্রত্যেক রোহিঙ্গাকে আত্মরক্ষার শিক্ষা দেন, যাতে তারা নিজ দেশে গিয়ে যুদ্ধ করতে পারে। তারা আরাকানকে মুক্ত করতে পারে। তাহলে আমাদের দেশ থেকে ১২ লাখ লোক যাবে। আজকে বিশ্ব ব্যাংক বলছে, রোহিঙ্গাদের বাংলাদেশকে নিয়ে নিতে, এতবড় সাহস তারা কীভাবে দেখাল?’

প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ করে তিনি বলেন, ‘আপনি যখন দেশে ফিরেছিলেন আপনি বলেছিলেন, আমার বাবার মৃত্যুতে তোমরা কাঁদো নাই, আমি তোমাদেরকে কাঁদায়ে ছাড়ব। তাই উনি আজকে আমাদের সবাইকে কাঁদাচ্ছেন। ভ্যাকসিনের কথা বলে ভ্যাকসিন দেন না। যেখানে সাড়ে সাত ডলার দিয়ে পৃথিবীর সবচেয়ে ভালো ভ্যাকসিন পাওয়া যায়, ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টে সবচেয়ে বেশি কার্যকর প্রমাণিত, সেটা না কিনে বেশি দাম দিয়ে কিনছেন অন্যটা।’

গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা বলেন, ‘সময়মতো টিকা না কেনা আপনার ক্ষমতার অপচয়, আপনার জিঘাংসার পরিচয়। ভ্যাকসিন কিনছেন কত দিয়ে সে কথা বলতেও লজ্জা পান। সংসদীয় কমিটি ভালো কাজ করেছে যে প্রাইভেটে টিকা দেবে না। এটা খুব ভালো কাজ করেছে। কিন্তু উনারা একবারও প্রশ্ন তুললেন না যে, আমরা জানতেও পারব না কত দিয়ে টিকা কেনা হয়েছে। কী করে জানবেন, উনারা তো নির্বাচিত না। সেই লজ্জা কোথায় রাখবে?’

ডেঙ্গু ইস্যুতে নিয়ে তিনি বলেন, ‘ডেঙ্গুর চিকিৎসার জন্য একটা মশারি দরকার। ঢাকা শহরের এক লাখ পরিবারকে দুইশ টাকা করে দিয়ে মশারি দেন। রিকশাওয়ালাকে, সাধারণ মানুষকে, দিনমজুরকে, তাহলে তাদের ডেঙ্গু হবে না। আর যদি হয়েও যায় তাহলে তাদেরকে ১০টা প্যারাসিটামল দেন। আপনাকে অনুরোধ করছি এক লাখ মশারি গরিব দুখীর মাঝে বিতরণ করেন, ১০ লাখ প্যারাসিটামল প্রত্যেক বাড়িতে বাড়িতে বিতরণ করেন, তাহলে অন্তত তারা কষ্ট পাবে না।’

সমাবেশে আরও বক্তব্য দেন- নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না, গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়ক জোনায়েদ সাকী, বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান অবসরপ্রাপ্ত মেজর জেনারেল সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিম, ডাকসুর সাবেক ভিপি নুরুল হক নুর।

আল সাদী ভূইয়া/এমআরআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]