হো চি মিন নিপীড়িত মানুষের সংগ্রামের প্রেরণা: মোস্তফা

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১২:৪৩ পিএম, ০৩ সেপ্টেম্বর ২০২১

বাংলাদেশ ন্যাপ মহাসচিব এম. গোলাম মোস্তফা ভুইয়া বলেছেন, ‘ভিয়েতনামের স্বাধীনতা সংগ্রামের পুরোধা ব্যক্তিত্ব ছিলেন হো চি মিন। তিনি ছিলেন বিশ্বের স্বাধীনতাকামী সংগ্রামী মানুষের নেতা। সাম্রাজ্যবাদের বিরুদ্ধে তার নেতৃত্বে যে বীরত্বপূর্ণ লড়াই ভিয়েতনামের জনগণ করেছিলেন, তা মানবসভ্যতার ইতিহাসে চিরগাঁথা হয়ে আছে।’

শুক্রবার (৩ সেপ্টেম্বর) রাজধানীর নয়াপল্টনে বিপ্লবী নেতা হো চি মিনের ৫২তম মৃত্যুবার্ষিকী স্মরণে বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি-বাংলাদেশ ন্যাপ আয়োজিত শ্রদ্ধা নিবেদন অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

গোলাম মোস্তফা ভুইয়া বলেন, ‘মুক্তিযুদ্ধের সময়েই নানা ঘাত-প্রতিঘাতের মধ্যদিয়ে ভিয়েতনামের মানুষের তথা বিশ্বাসীর নিকট তিনি হন হো চি মিন অর্থাৎ আলোর দিশারী। ভিয়েতনামের মুক্তিযুদ্ধে তার অসামান্য অবদান পৃথিবীর মুক্তিকামী সংগ্রামরত মানুষের কাছে অনুসরণীয় হয়ে থাকবে। কমরেড হো চি মিনের জীবন আজও বিশ্বের শোষিত-নিপীড়িত মানুষের কাছে অসামান্য প্রেরণার উৎস।’

তিনি বলেন, ‘সব দেশের, সব জাতির স্বাধীনতাসংগ্রামে মজলুম জননেতা মাওলানা ভাসানীর ছিল সর্বাত্মক সমর্থন। ষাটের দশকে যখন চীনের নেতাদের সঙ্গে ভাসানীর ব্যক্তিগত যোগাযোগ স্থাপিত হয় তখন তাদের মাধ্যমে ভিয়েতনামের সমাজতান্ত্রিক নেতাদের সঙ্গেও তার যোগাযোগ স্থাপিত হয়। হো চি মিনকে তিনি অকুণ্ঠ সমর্থন জানিয়ে পত্র দিয়েছিলেন। হো চি মিনের প্রতি তার ছিল গভীর শ্রদ্ধা।’

তিনি বলেন, ‘প্রেসিডেন্ট হোর মৃত্যুতে মাওলানা ভাসানী সত্যিই মর্মাহত হয়েছিলেন। ১৯৬৯ সালের ৫ সেপ্টেম্বর পাবনার ঈশ্বরদী থেকে দেয়া এক শোকবার্তায় তিনি বলেন, ‘হো চি মিনের মৃত্যু বিশেষভাবে উত্তর ভিয়েতনামীদের জন্য এবং সাধারণভাবে এশিয়া, আফ্রিকা ও ল্যাটিন আমেরিকার জনসাধারণের জন্য বিরাট ক্ষতি। হো ছিলেন ভিয়েতনামের এক কথায় গোটা বিশ্বের সংগ্রামী মানুষের নেতা।’

ন্যাপ মহাসচিব বলেন, ‘প্রযুক্তি, সামরিক ও অর্থনৈতিক-সবদিক দিয়ে সমৃদ্ধ ফ্রান্স, জাপান ও আমেরিকার বিরুদ্ধে লড়াই করে ভিয়েতনামী জনগণ উপনিবেশিক শাসন থেকে নিজেদের মুক্ত করতে সক্ষম হন। মুক্তি ও স্বাধীনতার লড়াইয়ে ভিয়েতনাম একটি আলোচিত অধ্যায়। বিশ্বের অধিকারহারা নিপীড়িত ও নির্যাতিত মানুষের ভিয়েতনামীদের কাছ থেকে শেখার আছে অনেক।’

বাংলাদেশ ন্যাপ’র ভাইস চেয়ারম্যান স্বপন কুমার সাহার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে করেন এনডিপি মহাসচিব মো. মঞ্জুর হোসেন ঈসা, বাংলাদেশ ন্যাপ যুগ্ম মহাসচিব আতিকুল ইসলাম, এহসানুল হক জসীম, সাংগঠনিক সম্পাদক মো. কামাল ভুইয়া, সম্পাদক মতিয়ারা চৌধুরী, অ্যাডভোকেট আবদুস সাত্তার, মো. আমজাদ হোসেন, ঢাকা মহানগর সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ মো. নজরুল ইসলাম, যুগ্ম সম্পাদক মো. শামিম ভুইয়া প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

কেএইচ/ইএ/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]