বিএনপির ধারাবাহিক বৈঠক কী কারণে, জানালেন ফখরুল

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৩:১২ এএম, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১

বেগম জিয়ার মুক্তি, কালো আইন বাতিল, গণতন্ত্র ও মতপ্রকাশের স্বাধীনতা পুনরুদ্ধার এবং ত্রাসের রাজত্ব থেকে জনগণকে মুক্তি দিতে দলের নেতাকর্মীদের মতামত জানতেই বিএনপি ধারাবাহিক বৈঠক করছে বলে জানিয়েছেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

বুধবার (২২ সেপ্টেম্বর) রাতে গুলশানে সাংবাদিকদের কাছে তিনি এ কথা বলেন।

এর আগে বিকেল ৪টার দিকে গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে পাঁচ বিভাগের নেতাদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন বিএনপির হাইকমান্ড।

এ পর্বের মতবিনিময় সভায় মোট ৮৩ জন নেতা বক্তব্য রেখেছেন জানিয়ে মির্জা ফখরুল বলেন, বর্তমানে অনির্বাচিত, দখলদার সরকার বাংলাদেশের রাজনীতি, অর্থনীতি ও মানুষের আশা-আকাঙ্ক্ষাকে পুরোপুরিভাবে বিনষ্ট করে দিচ্ছে …গণতন্ত্র একেবারেই নেই। একের পর এক আইন করে সাংবাদিক, সংবাদপত্র ও লেখার স্বাধীনতা বিনষ্ট করছে সরকার।

সরকারের কঠোর সমালোচনা করে তিনি বলেন, আমাদের নেত্রীকে বন্দি করে রেখেছে, আমাদের নেতাকে নির্বাসিত করে রেখেছে, আমাদের ৩৫ লাখ মানুষের বিরুদ্ধে মামলা দিয়েছে সরকার। দেশে একটা ত্রাসের কর্তৃত্ববাদী সরকার প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে। এর থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য আমরা আমাদের নেতাদের সঙ্গে ঘরোয়াভাবে আলোচনা করছি। আলোচনা শেষ হলে এ বিষয়ে সবাইকে জানানো হবে।

বৈঠকে মহাসচিব ছাড়াও স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেন, সেলিমা রহমান ও ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু উপস্থিত ছিলেন।

এছাড়াও শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানি, সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স, তাইফুল ইসলাম টিপু, মুনির হোসেন, বেলাল আহমেদ, আমিরুল ইসলাম আলিম, চেয়ারপারসনের কার্যালয়ের রিয়াজ উদ্দিন নসু প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

কেএই/এমকেআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]