‘মোটরসাইকেল পুড়িয়ে প্রতিবাদ আমাদের বিবেককে আহত করেছে’

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৭:২৩ পিএম, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১
ফাইল ছবি

দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতির প্রতিবাদ জানিয়ে জাতীয় পার্টির (জাপা) চেয়ারম্যান গোলাম মোহাম্মদ (জিএম) কাদের বলেছেন, অযৌক্তিকভাবে নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসের দাম বাড়ার কারণে জনদুর্ভোগ চরম পর্যায়ে চলে গেছে।

মঙ্গলবার (২৮ সেপ্টেম্বর) রাজধানীর বনানীতে জাপা চেয়ারম্যানের কার্যালয়ে পার্টিতে যোগদান অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন। এদিন জাপায় যোগ দেন কুড়িগ্রামের ব্যবসায়ী প্রকৌশলী মো. সাইফুর রহমান সরকার।

জাপা চেয়ারম্যান বলেন, একদিকে করোনার অজুহাতে চাকরিজীবীদের বেতন অর্ধেক কমিয়ে দিয়ে তাদের জীবিকা নির্বাহের পথ দুর্বিষহ করে তোলা হয়েছে। আবার তামাশা করা হচ্ছে বেকারত্ব নিয়ে। উচ্চশিক্ষিত যুবকরা নিজ উদ্যোগে কাজ করে বেঁচে থাকার চেষ্টা করতে গিয়েও হয়রানির শিকার হচ্ছে।

রাজধানীর বাড্ডায় ট্রাফিক পুলিশের ওপর ক্ষুব্ধ হয়ে নিজ মোটরসাইকেলে আগুন ধরিয়ে দেওয়া ‘পাঠাও’ চালকের প্রসঙ্গ টেনে জিএম কাদের বলেন, নিজের উপার্জনের মাধ্যম মোটরসাইকেলে আগুন ধরিয়ে পুড়িয়ে ফেলার মতো প্রতিবাদ আমাদের বিবেককে আহত করেছে।

নিজের অভিজ্ঞতার কথা স্মরণ করে তিনি বলেন, আমিও বাণিজ্যমন্ত্রী ছিলাম। কোনোভাবে দ্রব্যমূল্য বাড়তে দেইনি, বরং অনেক পণ্যের দাম কমিয়ে আনতে সক্ষম হয়েছি। এখন দেশে বেকারত্ব দুর্বিষহ পর্যায়ে চলে গেছে। করোনার কারণে মানুষের আয় কমে গেছে। তার ওপর অস্বাভাবিক দ্রব্যমূল্য মানুষকে নাস্তানাবুদ করে তুলেছে।

জাপা চেয়ারম্যান প্রকৌশলী মো. সাইফুর রহমান সরকারকে স্বাগত জানিয়ে বলেন, দেশের বর্তমান পরিস্থিতিতে তিনি এক সময়োপযোগী সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। দেশে এখন বি-রাজনৈতিক প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। ভোট দেওয়া থেকে জনগণ মুখ ফিরিয়ে নিয়েছে। রাজনৈতিক দল হারিয়ে যেতে বসেছে।

কুড়িগ্রাম জেলা জাতীয় পার্টির আহ্বায়ক ও চেয়ারম্যানের উপদেষ্টা পনির উদ্দিন আহমেদ এমপির সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন দলটির প্রেসিডিয়াম সদস্য সুনীল শুভরায়, মীর আব্দুস সবুর আসুদ, অ্যাডভোকেট মো. রেজাউল ইসলাম ভূঁইয়া প্রমুখ।

এসএম/জেডএইচ/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]