সরকারি মহলের ইন্ধনে কুমিল্লার ঘটনা: ফখরুল

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক চট্টগ্রাম
প্রকাশিত: ০৯:১০ পিএম, ১৫ অক্টোবর ২০২১

সরকারের একটি মহলের ইন্ধনে কুমিল্লার ঘটনা ঘটেছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

শুক্রবার (১৫ অক্টোবর) চট্টগ্রামে খালেদা জিয়ার রোগমুক্তি কামনায় দোয়া ও মিলাদ মাহফিল শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ মন্তব্য করেন।

তিনি বলেন, 'জাতীয়তাবাদী দল সবসময় সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বজায় রেখেছে। আমরা যখন ক্ষমতায় ছিলাম, তখন এ ধরনের ঘটনা ঘটেনি। দুর্ভাগ্যজনকভাবে এ অবৈধ সরকার আসার পর থেকে তাদের ক্ষমতা টিকে রাখার জন্য সবসময় বিভিন্ন রকম সমস্যা তৈরি করছে।'

কুমিল্লার ঘটনা সরকারি একটি মহলের ইঙ্গিতে হয়েছে। যা দেশের ভাবমূর্তিকে বিনষ্ট করছে। সরকার এ সংকট থেকে জনগণের দৃষ্টি ভিন্ন দিকে সরিয়ে নিতে চেষ্টা করছে। যা কখনোই গ্রহণযোগ্য নয়। বৃহস্পতিবারও (১৪ অক্টোবর) এ বিষয়ে আমরা বিবৃৃতি দিয়েছি, নিন্দা জানিয়েছি। অনতিবিলম্বে হামলাকারীদের চিহ্নিত করা হোক।’

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া গণতন্ত্রের জন্য দীর্ঘ সংগ্রাম করেছেন। তিনি তিনবারের প্রধানমন্ত্রী ছিলেন। দেশের উন্নয়নে তার বহু অবদান রয়েছে। আর সেই নেত্রীকে আজকে অন্যায়ভাবে গৃহবন্দি করে রাখা হয়েছে। তিনি বর্তমানে করোনা পরবর্তী নানা জটিল রোগে গুরুতর অসুস্থ। এছাড়া দীর্ঘ চারবছর কারাগারে থাকার কারণে তিনি অনেকগুলো রোগে আক্রান্ত হয়েছেন। কিন্তু সরকার রাজনৈতিক প্রতিহিংসার কারণে তাকে উন্নত চিকিৎসার সুযোগ থেকে বঞ্চিত করছে।’

এ সময় মির্জা ফখরুল খালেদা জিয়া এবং গণতন্ত্রের মুক্তির জন্য চট্টগ্রামবাসীর কাছে দোয়া কামনা করেন।

দোয়া ও মিলাদ মাহফিলে উপস্থিত ছিলেন—বিএনপির কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মাহবুবের রহমান শামীম, দক্ষিণ জেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি ও সাবেক মন্ত্রী জাফরুল ইসলাম চৌধুরী, চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির আহ্বায়ক ডা. শাহাদাত হোসেন, সদস্য সচিব আবুল হাশেম বক্কর, দক্ষিণ জেলা বিএনপির আহ্বায়ক আবু সুফিয়ান, সদস্য সচিব মোস্তাক আহমেদ খান, চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির যুগ্ম-আহ্বায়ক মোহাম্মদ মিয়া ভোলা, শফিকুর রহমান স্বপন, ইয়াছিন চৌধুরী লিটন, শাহ আলম, ইস্কান্দর মির্জা, আবুল মান্নান প্রমুখ।

এমএএইচ/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]