‘সর্বদলীয় সরকার গঠন করে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়ন করুন’

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০২:১৮ পিএম, ১৯ অক্টোবর ২০২১

সর্বদলীয় সরকার গঠন করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অবসরে যাওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চোধুরী।

তিনি বলেছেন, সর্বদলীয় সরকার গঠন না করে ইতিহাসের পাতায় বেশিদিন থাকতে পারবেন না। আপনাকে অনুরোধ করছি, অবসরে যান। আপনার বোন শেখ রেহানাকে আনুন, তোফায়েলকে আনুন। সর্বদলীয় সরকার গঠন করুন। মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়ন করুন।

মঙ্গলবার (১৯ অক্টোবর) বেলা সাড়ে ১১টায় ধানমন্ডির গণস্বাস্থ্য নগর হাসপাতালের বীর উত্তম মেজর হায়দার মিলনায়তনে এক জরুরি সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন তিনি।

কুমিল্লা, চাঁদপুর, নোয়াখালী, রংপুরসহ দেশের বিভিন্ন জেলায় হিন্দু সম্প্রদায়ের মন্দির ও ঘরবাড়িতে হামলা, ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগসহ সার্বিক বিষয়ে এই সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করেন গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা জাফরুল্লাহ চোধুরী, ভাসানী অনুসারী পরিষদ, রাষ্ট্র সংস্কার আন্দোলন ও গণসংহতি আন্দোলন।

সাম্প্রদায়িক গোষ্ঠীকে প্রতিরোধে বিএনপির আরও সাহসী ভূমিকা পালন করা দরকার ছিল মন্তব্য করে ডা. জাফরুল্লাহ বলেন, লন্ডনে কবে ঘণ্টা বাজবে সেটা লক্ষ্য না করে সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা দমনে বেরিয়ে যাওয়া দরকার। আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের মতো ভাঙা আঙুলকে ভয় পাওয়ার দরকার নেই। কারণ, দেশের বহু মানুষ আপনাদের ভালোবাসে। কিন্তু প্রতিবাদ করার সাহস পাচ্ছে না।

জাফরুল্লাহ চোধুরী বলেন, হামলার সাতদিন হয়ে গেছে। কিন্তু প্রধানমন্ত্রী পরিদর্শনে যাননি। তিনি যদি প্রথম দিনেই পরিদর্শনে যেতেন, তাহলে এখন আর ঘটনাগুলো ঘটতো না। অন্যদিকে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরও নিজ এলাকায় যাননি। নিজের ভোটারদের খবর নেননি। তিনি শুধু পারেন টেলিভিশনে আঙুল নাড়িয়ে কথা বলতে।

গণসংহতি আন্দোলনের সমন্বয়ক জুনায়েদ সাকী বলেন, দেশে একের পর এক হিন্দু সম্প্রদায়ের ওপর হামলা, পুজামন্ডপ, মন্দির ও ঘরবাড়িতে ভাংচুর ও অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটছে। কিন্তু হামলাকারীদের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে না। এর দায় সরকারকে নিতে হবে। এখন যদি সরকার এই নৈরাজ্য বন্ধ করতে না পারে, তা হলে সরকার পতন আন্দোলন শুরু হবে।

এমএমএ/এমএইচআর/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]