কুমিল্লার ঘটনায় ‘সরকারের দায়’ দেখছেন নুর

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৭:২৪ পিএম, ১৯ অক্টোবর ২০২১

ক্ষমতা ধরে রাখতে সরকার নিত্যনতুন ইস্যু তৈরি করে এবং দুর্গাপূজায় কুমিল্লার ঘটনার দায় সরকারের বলে মন্তব্য করেছেন ডাকসুর সাবেক ভিপি নুরুল হক নুর।

তিনি বলেছেন, কুমিল্লার ঘটনা পুলিশ যদি সঠিকভাবে নিয়ন্ত্রণ করতে পারতো, তবে চাঁদপুরে মিছিলে কোনো সহিংসতা ছড়াতো না।

মঙ্গলবার (১৯ অক্টোবর) জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে বিচার বিভাগীয় তদন্তের মাধ্যমে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্টকারী ও চলমান সংঘাত-সহিংসতায় জড়িত দুর্বৃত্তদের গ্রেফতার এবং সংখ্যালঘুদের নিরাপত্তা নিশ্চিতের দাবিতে বাংলাদেশ যুব অধিকার পরিষদের মানববন্ধন ও মৌন মিছিলে তিনি এসব কথা বলেন।

ডাকসুর সাবেক এ ভিপি আরও বলেন, প্রত্যেক নাগরিকেরই মিছিল-মিটিং করার অধিকার রয়েছে। পুলিশ কেন সেই মিছিলে গুলি চালিয়ে পরিস্থিতি উস্কে দিল। চাঁদপুরের প্রশাসনকে এ দায়িত্ব নিতে হবে। কুমিল্লায় ঘটনার চার ঘণ্টার মধ্যেও পুলিশ কেন আসলো না, এর জবাব প্রশাসনকে দিতে হবে। ধারাবাহিক পরিকল্পনার ফলে এ ঘটনাগুলো ঘটেছে এবং চার দিনের ঘটনায় প্রশাসন ও সরকার নীরব থেকেছে।

তিনি বলেন, বাংলাদেশের মানুষ এতদিন ভোটের অধিকার থেকে বঞ্চিত। এখন গণতন্ত্র ফেরানোর আন্দোলনের বীজ যখন রোপন হলো, ঠিক তখনই তারা (সরকার) সাম্প্রদায়িক সহিংসতা সৃষ্টি করে বিশ্ববাসীসহ বাংলাদেশের মানুষের দৃষ্টিকে ভিন্ন দিকে সরিয়ে দিচ্ছে। কোনো হিন্দু-মুসলমান হামলা করেনি, হামলা করেছে রাজনৈতিক দুর্বৃত্তরা। ওবায়দুল কাদের সাহেব দায় এড়িয়ে ‘সাম্প্রদায়িক অপশক্তি’র কথা বলছেন।

গণতন্ত্র ফেরানোর আন্দোলন গড়ার আহ্বান জানিয়ে ভিপি নুর বলেন, আমাদের মূল ইস্যু থেকে সরলে চলবে না। এ মুহূর্তে বাংলাদেশের সংকট থেকে উত্তরণের পথ একটাই, তা হচ্ছে দেশে গণতন্ত্র ও আইনের শাসন ফেরানো। এজন্য বর্তমান সরকারকে একটি অবাধ ও নিরপেক্ষ নির্বাচন দিতে হবে।

এসময় তিনি জাতি-বর্ণ-ধর্ম নির্বিশেষে সব সম্প্রদায়ের ভাই-বোনদের আগামীর নিরাপদ বাংলাদেশ গড়তে ও গণতন্ত্র ফেরাতে আন্দোলন গড়ে তোলার আহ্বান জানান।

সাম্প্রতিক সহিংসতার প্রতি ইঙ্গিত করে সরকারের উদ্দেশে ভিপি নুর বলেন, সরকারকে বলতে চাই, আপনার করেছেন না কারা করেছে, তার অপবাদ দিতে চাই না। তবে একটা নিরপেক্ষ তদন্তের মাধ্যমে রহস্য উদঘাটন করতে হবে।

মানববন্ধনে ডা. রেজা কিবরিয়াসহ যুব পরিষদের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

এএএম/এমকেআর/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]