মন্ত্রীদের অতিকথনে দেশবাসী বিভ্রান্ত হচ্ছেন: ন্যাপ

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১১:৪৫ এএম, ২৫ অক্টোবর ২০২১

ভাত খাওয়া নিয়ে কৃষিমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক আর ইসলাম ধর্ম ও সংবিধান নিয়ে তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী মুরাদ হাসানের বক্তব্য দেশবাসীর সঙ্গে প্রহসন ও এই সময়ে আগুনে উসকে দেওয়ার মতো বলে মন্তব্য জানিয়েছে বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি (বাংলাদেশ ন্যাপ)।

দলটির চেয়ারম্যান জেবেল রহমান গানি ও মহাসচিব এম. গোলাম মোস্তফা ভুইয়া বলেন, মন্ত্রীদের অতিকথনে দেশবাসী বিভ্রান্ত হচ্ছেন। একই সঙ্গে সরকারের প্রতি আস্থা হারিয়ে ফেলছেন সাধারণ মানুষ। সরকারের মধ্যে অপরিকল্পনা, অদূরদর্শী ও সমন্বয়হীনতার কারণে বারবার এমন ঘটনা ঘটছে।

সোমবার (২৫ অক্টোবর) গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে তারা এসব কথা বলেন।

তারা বলেন, মন্ত্রীদের অতিকথন বন্ধ করে বাজার নিয়ন্ত্রণ করতে হবে। দুর্নীতি, অনিয়ম বন্ধ করতে হবে। বাজার সিন্ডিকেট ভাঙতে হবে, দ্রব্যমূল্য সাধারণ মানুষের ক্রয় ক্ষমতার মধ্যে আনতে হবে। মাছে-ভাতে বাঙালিকে ভাত কম খাওয়ার উপদেশ দিয়ে দায়িত্ব শেষ করলে হবে না। রাষ্ট্রে আইনের শাসন পুরোপুরি প্রতিষ্ঠা করতে হবে।

নেতৃদ্বয় বলেন, উন্নয়নের ধারাবাহিকতার গতি সবাই দেখতে চায়। মেট্রোরেল করার কারণে পাতালরেলের দাবি আসবেই। হিসাব-নিকাশের অনেক কিছু থাকবে সময়ের সঙ্গে মিলিয়ে। নতুন প্রজম্ম বেশি বাস্তবমুখী। সারা দুনিয়া তাদের হাতের মুঠোয়। তাদের যেনতেন বুঝ দেওয়া যাবে না। বাজার নিয়ন্ত্রণ না করে শুধু লম্বা লম্বা কথা বললে হবে না। লম্বা কথার দিন শেষ। মানুষের চিন্তা-চেতনা বদলে গেছে।

তারা আরও বলেন, জনগণ সমাজে, রাজনীতিতে সুস্থ ও স্বাভাবিকতা দেখতে চায়। বুলি শুনতে চায় না। হৃদয়ে বাংলাদেশকে ধারণ করে জাগিয়ে তুলতে হবে কৃষ্টি-সংস্কৃতি, অসাম্প্রদায়িকতাকে। তাই বলে কারও ধর্মকে খাটো করে দেখা যাবে না। কাউকে অকারণে আঘাত করা যাবে না। একটা সময় মানুষের মাঝে সুস্থতা ছিল সবখানে। সেই সুস্থতা ফিরিয়ে আনতে দায়িত্বশীল আচরণ করতে হবে মন্ত্রীদের।

কেএইচ/ইএ/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]