নুর-রেজার নতুন দলের কমিটিতে যারা

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৪:০৬ পিএম, ২৬ অক্টোবর ২০২১

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) সাবেক ভিপি নুরুল হক নুর এবং সাবেক অর্থমন্ত্রী শাহ এম এস কিবরিয়ার ছেলে ড. রেজা কিবরিয়ার নেতৃত্বে গণ অধিকার পরিষদের ৮৩ সদস্য বিশিষ্ট আহ্বায়ক কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে।

দলের আহ্বায়ক হিসেবে আছেন ড. রেজা কিবরিয়া এবং সদস্য সচিব হয়েছেন নুর নিজে।

মঙ্গলবার (২৬ অক্টোবর) বেলা ১১টায় পুরানা পল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে নতুন দলের নাম ঘোষণার পর ৬ মাসের জন্য ৮৩ সদস্যের এই আহ্বায়ক কমিটি ঘোষণা করা হয়।

গণ অধিকার পরিষদের যুগ্ম-আহবায়ক হিসেবে স্থান পেয়েছেন ২২ জন। তারা হলেন- মো. রাশেদ খান, ফারুক হাসান, বিপ্লব কুমার পোদ্দার, অ্যাডভোকেট খাদেমুল ইসলাম, মো. আল মামুন, ডা. মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন, মুফতি নুরুল ইসলাম শোয়াইবী, ঝুনু রঞ্জন দাস, মাহফুজুর রহমান খান, ব্যারিস্টার মোহাম্মদ জিশান মহসীন, আবু হানিফ, সোহরাব হোসেন, সাদ্দাম হোসেন, শাকিল উজ্জামান, নাজমুস সাকিব, জসিম উদ্দিন, আবুল কালাম আজাদ, আরিফুল ইসলাম, কৃষিবিদ শহিদুল ইসলাম ফাহিম, হানিফ খান সজিব, আরিফুর রহমান তুহিন, আফজাল হোসেন।

১৫ জনকে সহকারী যুগ্ম-আহবায়ক পদে রাখা হয়েছে। এখানে স্থান পেয়েছেন- তামান্না ফেরদৌস শিখা, রাফিয়া সুলতানা, রাতুল সরকার, মো. তুহিন ফারাবী, মাহবুব জনি, আলতাফ হোসেন, আজাদ আহমেদ পাটওয়ারী, জে. আবেদিন, সাকিব হোসাইন, হাসান রাকিব, অ্যাডভোকেট এরশাদ সিদ্দীকী, অ্যাডভোকেট তৌফিক শাহরিয়ার, রাজন আহমেদ, বায়েজিদ শাহেদ, জাকারুল ইসলাম।

যুগ্ম সদস্য সচিব পদ পেয়েছেন আটজন। তারা হলেন- মোহাম্মদ আতাউল্লাহ, আব্দুজ জাহের, মশিউর রহমান, মিনা আল আমিন, সাইফুল্লাহ হায়দার, ফাতেমা তাসনিম, ইঞ্জিনিয়ার থোয়াই চিং মং চাক, আবু সাঈদ মুসা।

সহকারী সদস্য সচিব পদে থাকা ২২ জন: আরিফ হোসেন, অ্যাডভোকেট শিরিন আক্তার, মাসুদ মোন্নাফ, শেখ খায়রুল কবির, নাসিমা কামাল, ডা. আজহার আলী, অ্যাডভোকেট ফিরোজ মুন্সী, জাহিদ রহমান, মো. ইবরাহিম, জিলু খান, আব্দুল্লাহ আল মামুন সুজন, আকন্দ মোহাম্মদ উজ্জ্বল, রনি খন্দকার, রিদুয়ানুর রহমান, রোকনুজ্জামান, বাশার বাবু, পাঠান আজহার, নাজমুল হুদা, তাহমিনা আক্তার, আফরোজা সুলতানা মৌ, এ্যাড মো. পারভেজ, জাকারুল ইসলাম।

এছাড়া আহ্বায়ক কমিটিতে সদস্য হিসেবে যে ১৪ জনকে রাখা হয়েছে তারা হলেন- সাবিকুন নাহার, ডলি আক্তার, আবুল হোসাইন, লোকমান হোসেন, রফিকুল হক, তোফাজ্জল হোসাইন, আবুল খায়ের, ফখরুল ইসলাম, আশরাফুল ইসলাম তপু, এম.এস এ মাহমুদ, এনায়েত হোসেন, মাহফুজুর রহমান, শেখ লতিফ বিশ্বাস, কাজী ইউসুফ প্রমুখ।

‘গণ অধিকার পরিষদ’র মূলনীতি চারটি। গণতন্ত্র, ন্যায়বিচার, অধিকার ও জাতীয় স্বার্থ। এগুলোর ওপর ভিত্তি করে রাজনৈতিক কাজ পরিচালিত হবে দলটির। মূলনীতি ও দলের উদ্দেশ্য এবং ২১ দফা পড়ে শোনান রাশেদ খান।

এর আগে ২০১৮ সালে কোটা সংস্কার আন্দোলনের মাধ্যমে দলটির নেতাদের উত্থান ঘটে। এসময় তারা গড়ে তোলেন বাংলাদেশ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ নামে একটি সংগঠন। এরপর বিভিন্ন দাবিতে আন্দোলন সংগ্রাম করেন দলটির নেতারা।

আরএসএম/এমএইচআর/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]