খালেদা জিয়া মুক্ত দেশ চান প্রধানমন্ত্রী: রিজভী

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৩:৫২ পিএম, ০১ ডিসেম্বর ২০২১

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিএনপি ও খালেদা জিয়া মুক্ত বাংলাদেশ চান এমন মন্তব্য করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী।

তিনি বলেছেন, আপনাদের উদ্দেশ্য খারাপ। আপনারা খালেদা জিয়ার জীবন নিয়ে ছিনিমিনি খেলছেন। আপনি (প্রধানমন্ত্রী) চান খালেদা জিয়া ও বিএনপি মুক্ত বাংলাদেশ এটাই আপনার ইচ্ছা। সেই কারণে যে করেই হোক খালেদা জিয়াকে পৃথিবী থেকে দিতে চান। খালেদা জিয়ার সুস্থ হওয়াকে আপনি বিপদ মনে করছেন। এ বিপদ দেখেই নানা টালবাহানা করছেন। কিন্তু কোনো টালবাহানা চলবে না, আপনি কিছুই করতে পারবেন না।

বুধবার (১ ডিসেম্বর) জাতীয়তাবাদী মহিলা দলের উদ্যোগে নয়াপল্টনে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তি ও তাকে বিদেশে উন্নত চিকিৎসার দাবিতে বিক্ষোভ মিছিলে এ কথা বলেন রিজভী।

রিজভী বলেন, খালেদা জিয়ার কিছু হলে যে আগুন জ্বলবে, এ আগুন মিট মিট করে জ্বলবে না, এ আগুন ধিকিধিকি করে জ্বলে না। এ আগুন দাউ দাউ করে জ্বলবে এবং অত্যাচারীদের সব শৃঙ্খল ছাড়খাড় করে পুড়িয়ে দেবে।

আইনে না থাকায় খালেদা জিয়াকে বিদেশে চিকিৎসা করানোর কোনো সুযোগ নেই আইনমন্ত্রীর এমন বক্তব্যের সমালোচনা করে রিজভী বলেন, 'আপনি (আইনমন্ত্রী) কোথা থেকে আইন পেয়েছেন। আপনি অসত্য কথা বলছেন, আপনি মিথ্যা কথা বলছেন। তিনবারের প্রধানমন্ত্রীকে নির্যাতন করার জন্যই এ কথা বলছেন মিথ্যাবাদী।

তিনি আরও বলেন, মঙ্গলবার আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন বিএনপি নাকি চোরাগলি দিয়ে ক্ষমতায় যাওয়ার চেষ্টা করছেন। কোথায় আমরা চেষ্টা করলাম? আমরা তো রাজপথে দাঁড়িয়ে আছি রাজপথেই চেষ্টা করছি। আমাদের ওপর জুলুম-নির্যাতন নেমে আসছে তারপরেও আমরা রাজপথে আছি। আজকে জাতীয়বাদী মহিলা দলের একটা মিছিল যেখানে কোনো আওয়াজ হবে না সেই কর্মসূচিও বাধা দিচ্ছে পুলিশ। আপনারা কি এমন করছেন যে আপনাদের এত ভয়। মহিলা দলের একটা প্রোগ্রাম ঠিক মতো করতে দেন না।কেন এত ভয়? ভয় থাকে চোরদের, যারা চোরা পথে ক্ষমতায় গিয়ে থাকে তাদের ভয় থাকে। খালেদা কিন্তু কোনোদিন চোরাগলির ভোট করেননি। তিনি কখনো নিশিরাতের প্রধানমন্ত্রী হননি। তার বিরুদ্ধে প্রত্যেকটি ভোটে আওয়ামী লীগ অংশগ্রহণ করেছে শেখ হাসিনার নেত্রীত্বে।দিনের ভোট যারা রাত্রে করে তারা কী ভদ্রলোক? চোর তো রাত্রেই চুরি করে। সরকারের পতন আসন্ন বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

বিক্ষোভ সমাবেশে আরও বক্তব্য রাখেন- দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য সেলিমা রহমান, আফরোজা আব্বাস, সুলতানা আহমেদ, নিলুফার চৌধুরী মনি, হেলেন জেরিন খান প্রমুখ।

কেএইচ/এমএএইচ/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]