‘আবরারের খুনিদের মৃত্যুদণ্ড দেওয়ায় উৎসাহিত হওয়ার কারণ নেই’

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৫:৩২ পিএম, ০৯ ডিসেম্বর ২০২১

আবরার হত্যাকাণ্ডে ২০ জনের ফাঁসির রায়ে উৎসাহিত হওয়ার কারণ নেই মন্তব্য করে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান মেজর (অব.) হাফিজ উদ্দিন আহমেদ বলেছেন, বুধবার (৮ ডিসেম্বর) দেখলাম বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ হত্যা মামলায় ২০ জনের ফাঁসির আদেশ দেওয়া হয়েছে। এ রায় নিয়ে উৎসাহিত হওয়ার কোনো কারণ নেই। সন্ত্রাসীদেরও ভয় পাওয়ার কোনো কারণ নেই। এ রায় কার্যকর হবে কি না সন্দেহ আছে।

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার রোগমুক্তি ও ভাইস চেয়ারম্যান চৌধুরী কামাল ইবনে ইউসুফের প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে বৃহস্পতিবার (৯ ডিসেম্বর) জাতীয় প্রেস ক্লাব মিলনায়তনে আয়োজিত এক আলোচনা ও দোয়া মাহফিলে তিনি এ মন্তব্য করেন। চৌধুরী কামাল ইবনে ইউসুফ স্মৃতি পরিষদের উদ্যোগে এ আলোচনা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।

হাফিজ উদ্দিন আহমেদ বলেন, এক ব্যক্তি সবার ওপর রয়েছেন। যার প্রধান কাজ হলো দুর্বৃত্তদের দণ্ড মাফ করে দেওয়া। সুতরাং আমরা অপেক্ষা করে থাকবো, ব্যতিক্রম কিছু দেখার জন্য। অপেক্ষায় থাকবো আবরারের মতো নিরীহ একজনকে সারারাত পিটিয়ে হত্যার বিচার বাংলাদেশ দেখতে পায় কি না।

তিনি আরও বলেন, আবরারকে পালাক্রমে সারারাত পেটানো হয়েছে। কিন্তু বুধবার গণমাধ্যমগুলোতে দেখলাম সুক্ষ্মভাবে এ খুনিদের দিকে যায় সেভাবে নিউজ করা হচ্ছে। হত্যাকারীদের বারবার মেধাবী বলা হচ্ছে। তাদের পরিবারকে দেখানো হচ্ছে যে কত কষ্ট করে সন্তানদের বুয়েটে পাঠিয়েছে। এ মেধাবীদের কোনো প্রয়োজন আছে বাংলাদেশে?

অনেক ত্যাগ-তিতিক্ষার মধ্যদিয়ে সাধারণ মানুষ এ দেশকে স্বাধীন করেছে। একটি সুখী ও সুন্দর দেশ গড়ার লক্ষ্যে এ দেশের মানুষ যুদ্ধ করেছে, রক্ত দিয়েছে। কিন্তু বাংলাদেশের মানুষের দুর্ভাগ্য যে, গণতন্ত্রের জন্য এদেশের মানুষ যুদ্ধ করেছে সেই গণতন্ত্র আজ নির্বাসিত।

আয়োজক সংগঠনের সভাপতি কবি আবদুল হাই শিকদারের সভাপতিত্বে কৃষক দলের সাধারণ সম্পাদক শহিদুল ইসলাম বাবলুর সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির আহ্বায়ক আব্দুস সালাম, যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন প্রমুখ।

এএএম/এমএএইচ/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]