ক্ষমতায় টিকে থাকতে দেশকে ঝুঁকিতে ফেলেছে আ’লীগ: ফখরুল

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৪:৪৫ পিএম, ২৫ জানুয়ারি ২০২২
মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। ফাইল ছবি

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, ‘আওয়ামী লীগ অবৈধভাবে ক্ষমতায় টিকে থাকতে হত্যা, খুন, গুম, বিচারবর্হিভূত হত্যাকাণ্ডের জন্য র্যাবসহ রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠানগুলোকে ব্যবহার করেছে এবং করছে, যা বাংলাদেশকে ভয়াবহ ঝুঁকির মধ্যে ফেলেছে।’

মঙ্গলবার (২৫ জানুয়ারি) বিকেলে গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে ফখরুল এ মন্তব্য করেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘ক্ষমতায় টিকে থাকতে আওয়ামী লীগের রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠানকে ব্যবহারের সুদূরপ্রসারী প্রভাব বাংলাদেশের নিরাপত্তা, স্থিতিশীলতা, অর্থনীতিতে নেতিবাচক প্রভাব ফেলবে। তাই এ পরিস্থিতি সৃষ্টির সব দায়-দায়িত্ব আওয়ামী লীগ সরকারকেই বহন করতে হবে।’

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘বাংলাদেশে মানবাধিকার লঙ্ঘনের দায়ে ১২টি শীর্ষ মানবাধিকার সংগঠন জাতিসংঘ মিশনে র্যাবের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞার দাবি জানিয়ে যে চিঠি দিয়েছে, বিএনপি বিষয়টি পর্যালোচনা করে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছে।’

তিনি বলেন, ‘বিএনপির জাতীয় স্থায়ী কমিটির সভা মনে করে, আওয়ামী লীগ অবৈধভাবে ক্ষমতায় টিকে থাকতে হত্যা, খুন, গুম, বিচারবর্হিভূত হত্যাকাণ্ডের জন্য র্যাবসহ রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠানগুলোকে ব্যবহার করেছে এবং করছে, যা বাংলাদেশকে ভয়াবহ ঝুঁকির মধ্যে ফেলেছে। এর সুদূরপ্রসারী প্রভাব বাংলাদেশের নিরাপত্তা, স্থিতিশীলতা, অর্থনীতিতে নেতিবাচক প্রভাব ফেলবে। ফলে এ পরিস্থিতি সৃষ্টির সব দায়-দায়িত্ব আওয়ামী লীগ সরকারকেই বহন করতে হবে।’

বিএনপি দেশের ক্ষতি করতে বিদেশে লবিস্ট নিয়োগ করেছে বলে পররাষ্ট্রমন্ত্রী যে বক্তব্য দিয়েছেন, তা ‘অসত্য’ বলেও দাবি করেন মির্জা ফখরুল।

এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘বিএনপি যা করে, তা দেশ ও গণতন্ত্রের স্বার্থে করে থাকে। বিএনপি বিদেশে কোনো লবিস্ট নিয়োগ করেনি। পররাষ্ট্রমন্ত্রী অসত্য কথা বলেছেন।’

সোমবার (২৪ জানুয়ারি) বিএনপির সর্বোচ্চ নীতিনির্ধারণী ফোরাম জাতীয় স্থায়ী কমিটির ভার্চুয়াল সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভার সিদ্ধান্তসমূহ নিয়ে সংবাদ সম্মেলন করেন মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

কেএইচ/এএএইচ/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]