‘বঙ্গবন্ধু হত্যার ক্ষেত্র প্রস্তুত করেছিল জাসদ’

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৯:১২ পিএম, ২৭ জানুয়ারি ২০২২
ফাইল ছবি

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে হত্যার জন্য জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জাসদ) ক্ষেত্র তৈরি করেছিল বলে দাবি করেছেন জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য কাজী ফিরোজ রশীদ।

বৃহস্পতিবার (২৭ জানুয়ারি) জাতীয় সংসদে রাষ্ট্রপতির ভাষণের ওপর আনীত ধন্যবাদ প্রস্তাবের আলোচনায় অংশ নিয়ে তিনি এমন অভিযোগ করেন। এসময় তার পাশেই বসে ছিলেন জাসদ সভাপতি হাসানুল হক ইনু। সংসদ নেতা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও তখন সেখানে উপস্থিত ছিলেন।

সংসদে কাজী ফিরোজ রশীদ বলেন, ‘হেফাজতে ইসলাম, তাদের জঙ্গি বানাইছে ইনু সাহেব। আরে জঙ্গি কারে বলে? আন্দোলন তো মানুষই করে। আন্দোলন করবে, আন্দোলন অনেক সময় সহিংসতায় চলে যায়। কিন্তু তারা জঙ্গি নয়, জঙ্গি হচ্ছে সশস্ত্র বিপ্লব যারা করে সরকারকে হটানোর জন্য, যেটা ইনু সাহেবরা করেছিলেন। সেদিন জাসদ যদি ক্ষেত্র প্রস্তুত না করতো বঙ্গবন্ধুকে কেউ হত্যা করতে পারতো? বঙ্গবন্ধুকে কেউ এভাবে নির্মমভাবে হত্যা করার দুঃসাহস পেত? সব ক্ষেত্র তারা প্রস্তুত করেছিল। আজ বলে আমরা কিছু জানি না।’

তিনি বলেন, ‘জাসদ ১৯৭৩ থেকে ১৯৭৫ সাল পর্যন্ত এই দেশে হাজার হাজার যুবলীগ, আওয়ামী লীগ, ছাত্রলীগ কর্মীদের হত্যা করেছে। অনেক পুলিশ ফাঁড়ি তারা দখল করেছে, পুলিশ ফাঁড়ি লুট করেছে, থানা লুট করেছে, ট্রেজারি লুট করেছে। ঈদের জামাতে আমাদের আওয়ামী লীগের এমপিদের তারা হত্যা করেছে দিনের বেলায়। জামাতে দাঁড়িয়ে, ঈদের জামাতে বসা অবস্থায় হত্যা করেছে। তারা যদি এখন আরেকটি সংগঠনকে জঙ্গি বলে সেটা মানায়?’

জাতীয় পার্টির এই প্রেসিডিয়াম সদস্য বলেন, ‘জাসদ যদি ক্ষেত্র প্রস্তুত না করতো তাহলে বঙ্গবন্ধুকে কেউ হত্যা করতে পারত? সেদিন আমি ঢাকা যুবলীগের প্রধান ছিলাম। সেদিন হারুন মোল্লা সভাপতি ছিল। মিরপুর থানার বড় একটা মিছিল নিয়ে এলো খালেক সাহেব। সেদিন যদি জাসদ ক্ষেত্র প্রস্তুত না করতো, তাদের একটা পত্রিকা ছিল গণকণ্ঠ। সেই পত্রিকা পড়ে দেখেন, সেদিন কি না বানাইছে আমাদের। চোর-ডাকাত সব কিছু বানাইছে তারা। স্বাধীনতার শত্রু ওই পত্রিকা তারা পড়তো। সব মানুষকে তারা ক্ষিপ্ত করে তুলেছিল। এই জাসদ আজ গণতন্ত্রের কথা বলে, বঙ্গবন্ধুর কথা বলে।’

র‌্যাব প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘র‌্যাব যদি একদিন বলে যে রাতে আমরা বের হবো না, র‌্যাব ক্যাম্পে থাকবে, নামাজ-রোজা করবে তাহলে ওই দিন এই দেশ সন্ত্রাসীদের অভয়ারণ্যে পরিণত হবে। কোনো মানুষ ঘর থেকে বের হতে পারবে না। মাদকের স্বর্গরাজ্যে পরিণত হবে। একটা সুশৃঙ্খল বাহিনী তাকে ধ্বংস করার জন্য গভীর ষড়যন্ত্র হচ্ছে। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে অবশ্যই দেখতে হবে। এতদিন তারা লবিস্ট নিয়োগ করলো আমরা কেন পাল্টা লবিস্ট নিয়োগ করতে পারলাম না? এই ষড়যন্ত্র মানবো না। এত কষ্ট করে যে স্বাধীনতা এনেছি সেই স্বাধীনতা এভাবে কেউ নষ্ট করবে এটা আমরা চাই না।’

এইচএস/এমআরআর/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]