‘নির্বাচন কমিশন আইনে জনআকাঙ্ক্ষার প্রতিফলন নেই’

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১১:৫১ এএম, ২৯ জানুয়ারি ২০২২
ফাইল ছবি

জাতীয় সংসদে সদ্য পাস হওয়ায় ‘প্রধান নির্বাচন কমিশনার ও অন্যান্য নির্বাচন কমিশনার নিয়োগ আইন ২০২০’-এ জনআকাঙ্ক্ষার প্রতিফলন ঘটেনি বলে মন্তব্য করেছে বাংলাদেশ কংগ্রেস।

শুক্রবার (২৮ জানুয়ারি) ভার্চুয়াল সভায় দলের নেতারা এ মন্তব্য করেন। এতে সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ কংগ্রেসের চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট কাজী রেজাউল হোসেন এবং সঞ্চালনা করেন মহাসচিব অ্যাডভোকেট মো. ইয়ারুল ইসলাম।

বাংলাদেশ কংগ্রেস নেতারা বলেন, ‘আইনটি সংবিধানের ১১৮(১) অনুচ্ছেদে প্রদত্ত নির্দেশনা অনুসারে বাস্তবায়ন করা হয়নি। এখানে শুভঙ্করের ফাঁকি রয়েছে। সংবিধানে নির্বাচন কমিশন গঠনে আইনে প্রণয়নের কথা বলা হয়েছ। কিন্তু প্রস্তাবিত আইনে শুধুমাত্র প্রধান নির্বাচন কমিশনার ও অন্যান্য নির্বাচন কমিশনার নিয়োগের কথা বলা হচ্ছে, যা আইনটির নামেই বোঝা যায়।’

সভায় অ্যাডভোকেট কাজী রেজাউল হোসেন বলেন, সংবিধানের ১১৮(১) অনুচ্ছেদ অনুসারে আইনটির নাম ‘নির্বাচন কমিশন আইন’ হওয়া বাঞ্চনীয়। সেখানে প্রধান নির্বাচন কমিশনার ও অন্যান্য নির্বাচন কমিশনার নিয়োগসহ কমিশন পরিচালনা, কর্মকর্তা-কর্মচারী নিয়োগ, তাদের সুযোগ-সুবিধা ও কাজের শর্তাবলী সম্পর্কে সুনির্দিষ্ট বিধান থাকতে হবে।

অ্যাডভোকেট ইয়ারুল ইসলাম বলেন, নির্বাচন পরিচালনা ও রাজনৈতিক দলগুলোকে দেখভাল করা সংক্রান্ত বিষয়গুলো উক্ত আইনে সন্নিবেশিত থাকা উচিত ছিল। এক্ষেত্রে সংবিধানের সপ্তম ভাগে প্রদত্ত বিধানাবলী অনুসরণসহ সংবিধান ও অন্যান্য প্রয়োজনীয় আইন সংশোধনের বিধান রাখা দরকার।

দলের যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট মো. আব্দুল আওয়াল বলেন, আইনটির মূল উদ্দেশ্য হওয়া উচিত ছিল, দেশে একটি স্থায়ী ও নিরপেক্ষ নির্বাচন ব্যবস্থার প্রবর্তন করা। সেটি না করে সরকার যেভাবে আইনটি প্রণয়ন করেছে, তাতে নির্বাচন বা ভোটাধিকার প্রশ্নে জনগণের আশা-আকাঙ্ক্ষার প্রতিফলন ঘটবে না। এখানে যে পদ্ধতিতে নির্বাচন কমিশনার নিয়োগের বিধান রাখা হয়েছে, তাতে বিদ্যমান অবস্থার কোনো উত্তরণ ঘটবে না। বরং এটি একটি কালো আইন রূপে জাতির ঘাড়ে জগদ্দল পাথর হয়ে চেপে বসবে।

আলোচনা সভায় দলের কেন্দ্রীয় উপদেষ্টা ক্লিন্টন হাওলাদার পাভেল ও শহীদুল ইসলাম চৌধুরী দুলদুল, যুগ্ম মহাসচিব আব্দুল্লাহ আল মামুন, সাংগঠনিক সম্পাদক নাজমুল মোর্শেদ, ন্যাশনাল সিনেট সদস্য মো. শাহজাহান, অ্যাডভোকেট দেবদাস সরকার, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক খোন্দকার মিজানুর রহমান, নির্বাহী সদস্য এম এ হক আকরাম, সাংবাদিক মোহসীন হোসেন প্রমুখ অংশ নেন।

তারা বাংলাদেশ কংগ্রেস প্রস্তাবিত ‘নির্বাচন কমিশন গঠন আইন’ এর খসড়ার আলোকে আইন প্রণয়ন করতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানান।

‘নির্বাচন কমিশন গঠন আইন’ এর একটি খসড়া প্রণয়ন করে তার আলোকে আইন প্রণয়নের জন্য এর আগে আইন মন্ত্রণালয় ও নির্বাচন কমিশনকে অনুরোধ জানিয়েছিল বাংলাদেশ কংগ্রেস। সরকার এ ব্যাপারে কোনো পদক্ষেপ না নেওয়ায় পরে দলটির পক্ষে হাইকোর্টে রিট করেন মহাসচিব ইয়ারুল ইসলাম।

‘বিচারবিভাগ আইন প্রণয়নের জন্য সরকারকে নির্দেশনা দিতে পারে না’ এ যুক্তিতে রিটটি খারিজ করেন বিচারপতি মুজিবুর রহমান মিয়া ও বিচারপতি কামরুল হোসেন মোল্লার সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্টের দ্বৈত বেঞ্চ। এছাড়া আইনটি প্রণয়নের দাবিতে দীর্ঘদিন আন্দোলন করেছে দলটি।

এফএইচ/এএএইচ/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]