বিএনপি এখন ১৯ দলীয় জোট


প্রকাশিত: ০১:৫৭ পিএম, ০৭ জানুয়ারি ২০১৬

টানা তিন বছর একসঙ্গে রাজনীতি করার পর এবার জোট থেকে সরে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছে ইসলামী ঐক্যজোট। ফলে ২০ দল থেকে ১৯ দলে পরিণত হয়েছে বিএনপি নেতৃত্বাধীন জোটটি।

বৃহস্পতিবার দুপুরে ইঞ্জিনিয়ার ইনস্টিটিউশনে আয়োজিত ত্রিবার্ষিক সম্মেলনে ২০ দল ছাড়ার ঘোষণা দেন ইসলামী ঐক্যজোটের চেয়ারম্যান আব্দুল লতিফ নেজামী। তবে তিনি বলেছেন, সরকারের কোনো চাপ কিংবা বিএনপির প্রতি কোনো রাগ-ক্ষোভ থেকে নয়, বরং দলকে গোছানোর জন্যই ২০ দলীয় জোট থেকে বের হয়ে গেছে তার দল।

ইসলামী ঐক্যজোটের চেয়ারম্যান আরো বলেন, ‘ইসলামী ঐক্যজোট মনে করে, সব ইসলামী দল, সংগঠন, ওলামায়ে কেরাম ও ইসলামমনষ্ক লোকদের সমন্বয়ে একটি সংগঠিত ও সমন্বিত ইসলামী শক্তি গড়ে তোলা অপরিহার্য।’

এখন থেকে ২০ দলীয় জোটের সঙ্গে ইসলামী ঐক্যজোটের কোনো সম্পর্ক নেই জানিয়ে আব্দুল লতিফ নেজামী বলেন, ‘ইসলামী ঐক্যজোট সক্রিয়তা বজায় রেখে নিজেদের সাংগঠনিক তৎপরতায় মনযোগী হবে। কেননা সক্রিয়তা অন্তপ্রেরণায় ইসলামী ঐক্যজোট স্বতন্ত্র। তাই এখন থেকে ইসলামী ঐক্য সক্রিয়তা বজায় রেখে জোটের কর্মতৎপরতা চালিয়ে যাবে।

এর আগে ২০১২ সালের ১৮ এপ্রিল নির্দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনের দাবিতে আন্দোলনে থাকা চারদলীয় জোটের কলেবর বেড়ে ১৮ দলীয় জোট হয়।

বিএনপি ছাড়া সে সময় জোটের বাকি শরিকরা ছিল জামায়াতে ইসলামী, ইসলামী ঐক্যজোট, খেলাফত মজলিশ, বাংলাদেশ জাতীয় পার্টি (বিজেপি), লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টি (এলডিপি), কল্যাণ পার্টি, জাতীয় গণতান্ত্রিক পার্টি (জাগপা), ন্যাশনাল পিপলস পার্টি (এনপিপি), ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক পার্টি (এনডিপি), লেবার পার্টি, ইসলামিক পার্টি, বাংলাদেশ ন্যাপ, ন্যাপ ভাসানী,  মুসলিম লীগ, জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম, পিপলস লীগ ও ডেমোক্রেটিক লীগ।

পরে পর্যায়ক্রমে জাতীয় পার্টি (কাজী জাফর) ও সাম্যবাদী দলের একাংশ এই জোটে যোগ দিলে তা ২০ দলীয় জোটে পরিণত হয়।
এদিকে ইসলামী ঐক্যজোটের ২০ দলীয় জোট ত্যাগে কোনো প্রভাব পড়বে না বলে মনে করছে জোটের প্রধান শরিক বিএনপি। দলটি বলছে, মহাসমুদ্র থেকে দু-এক গ্লাস পানি তুলে নিলে তাতে সমুদ্রের যেমন  ক্ষতি হয় না, তেমনি ২০ দলীয় জোট থেকে দু-একটি দল চলে গেলে তাতে জোটের কোনো ক্ষতি হবে না। জোট আছে, থাকবে।

ইসলামী ঐক্যজোটের ২০ দলীয় জোট থেকে বের হয়ে যাওয়ার প্রতিক্রিয়ায় বিএনপি নেতারা এসব কথা বলেন।

এ ব্যাপারে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য লে. জেনারেল (অব.) মাহবুবুর রহমান বলেন, ২০ দলীয় জোট থেকে দু-একটি দল চলে গেলে তাতে জোটের কোনো ক্ষতি হবে না। জোট আছে, থাকবে। আশা করি, ইসলামী ঐক্যজোট তাদের ভুল বুঝতে পারবে এবং পুনরায় জোটে ফিরে আসবে।

জোটের শরিক বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল (অব.) সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিম বীরপ্রতীক জানান, রাজনৈতিক অঙ্গনে ভিন্ন মাত্রার মেরুকরণের ইঙ্গিত দীর্ঘদিন ধরে অনুভূত হচ্ছিল। আজ আংশিকভাবে এরই বহিঃপ্রকাশ ঘটল।

এদিকে জানা গেছে, বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোট থেকে ইসলামী ঐক্যজোট বেরিয়ে গেলেও থাকছে মাওলানা আব্দুল রকিবের নেতৃত্বে একটি অংশ।

বৃহস্পতিবার ইসলামী ঐক্যজোটের চেয়ারম্যান আব্দুল লতিফ নেজামীর বেরিয়ে যাওয়ার ঘোষণার পর মাওলানা আব্দুল রকিব জাগো নিউজকে এ কথা জানান।

বিকেলে বিএনপির জরুরি সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত থেকে কথাও বলবেন বলে জানান আব্দুল রকিব।

এমএম/একে/এমএস