বন্যা প্রতিরোধের কোনো ব্যবস্থা করেনি সরকার: ফখরুল

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০১:৩৩ পিএম, ২৪ জুন ২০২২

বন্যা প্রতিরোধের কোনো ব্যবস্থা নেয়নি সরকার। বরং বন্যা বাড়ানোর জন্য ব্যবস্থা করা হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

শুক্রবার (২৪ জুন) বিএনপি নেতা চৌধুরী আলম গুমের এক যুগপূর্তি উপলক্ষে তার পরিবারের সঙ্গে দেখা করতে গিয়ে এ মন্তব্য করেন তিনি।

ফখরুল বলেন, গত ১২ বছর ধরে নিখোঁজ চৌধুরী আলম। এখনো পর্যন্ত তার কোথাও কোনো সন্ধান পাওয়া যায়নি। এমনকি সরকার তার কোনো খোঁজ দিতে পারেনি। আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় আসার পরে এ ধরনের অনেক ঘটনা ঘটেছে। এ পর্যন্ত বিএনপির ৬০০ এর বেশি নেতাকর্মী গুম হয়েছে।

‘জাতিসংঘের মানবাধিকার কমিশনের আইনে পরিষ্কার করে বলা হয়েছে জোর করে যদি কাউকে নিয়ে যাওয়া হয় সেটা মানবাধিকার লংঘন, অপরাধ। এতেই প্রমাণিত হয় এই সরকার ফ্যাসিবাদী। তাদের ১৫ বছর দুঃশাসনে বাংলাদেশের কত মানুষ পরিবার হারা হয়েছে, সন্তানহারা হয়েছে, কতজন স্বামীহারা হয়েছেন, কতজন পুত্রহারা হয়েছে তার সঠিক কোনো হিসাব নেই।’

বিএনপি মহাসচিব বলেন, আওয়ামী লীগ সরকার যতদিন জোর করে ক্ষমতায় বসে আছে। মানুষের মৌলিক অধিকারগুলোকে কেড়ে নিয়েছে। যাদের গুম করা হয়েছে তাদের জীবনের অধিকার থেকে বঞ্চিত করা হয়েছে। আজ যে ভয়াবহ পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে এটা শুধু গুমের বিষয় নয়। প্রত্যেকটা ক্ষেত্রে এই ভয়াবহ পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। এই সরকার জনগণের শত্রু হিসেবে চিহ্নিত হয়েছে।

সিলেট ও সুনামগঞ্জের বন্যা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, গতকাল আমি সিলেটে গিয়েছিলাম। এর ভয়াবহতা চোখে না দেখলে বিশ্বাস করা যাবে না। মানুষ যে কষ্টে আছে তাদের ত্রাণের ব্যবস্থা করে দেওয়া, তাদের বাঁচার চেষ্টা করে দেওয়ার তেমন কোনো ব্যবস্থা সরকার করেনি। অথচ প্রধানমন্ত্রী হেলিকপ্টারে করে ঘুরলেন। পরে সার্কিট হাউজে নেমে কয়েকজন লোককে টোকেনের মাধ্যমে ত্রাণ দিয়েছেন।

এসময় ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির আহ্বায়ক আব্দুস সালাম ও সদস্য সচিব রফিকুল আলম মজনুসহ দলের অন্যান্য নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

কেএইচ/জেএস/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]