পটিয়া উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আরাফাত, সম্পাদক নোমান

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক চট্টগ্রাম
প্রকাশিত: ০৮:৫১ এএম, ২৮ জুন ২০২২
সভাপতি আরাফাত শাকিল ও সাধারণ সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল নোমান

অনেক সমালোচনার পর বিলুপ্ত পটিয়া উপজেলা ছাত্রলীগের নতুন কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে। আগামী এক বছরের জন্য ১৩৫ সদস্যের নতুন কমিটিতে আরাফাত শাকিলকে সভাপতি ও আবদুল্লাহ আল নোমানকে সাধারণ সম্পাদক করা হয়েছে।

রোববার (২৬ জুন) রাত ১২টার দিকে চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি এস এম বোরহান উদ্দিন ও সাধারণ সম্পাদক মো. আবু তাহেরের সই করা বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

কমিটির অন্যরা হলেন- সহ-সভাপতি ইনতেসার ফাহিম সেলিম, শিমুল চক্রবর্তী, ফাহিম সুফিয়ান, মো. এনাম, অর্জুন সেন গুপ্ত, সিরাজুল ইসলাম বাপ্পি, মোবারক হোসেন চৌধুরী রিপন, মিজানুর রহমান, রমিজ উদ্দিন রিয়াদ, আসাদুজ্জামান, বিজয় ভট্টাচার্য, আরমান চৌধুরী রায়হান, সামিয়া সাজনীন, আসিফ হাসান, শুভ দে, সাকিব হাসান, ফৌজুল আলীম রুপু, সাকিব উল্লাহ চৌধুরী ইরফান, শফিকুল ইসলাম সাগর, সুকান্ত দাশ, আরিফুল ইসলাম, নাঈমুল হোসেন চৌধুরী, কায়সার হামিদ, রেজা এ মওলা সাকিব ও রেজাউল করিম মুন্না।

যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক করা হয়েছে- মিনহাজুল আবেদীন মুন্না, ইকরাম হোসেন অভি, জোবায়েত হাসান, মাঈন উদ্দিন সিজান, মো. খোরশেদ, ইরফানুল আলম সায়েম, নাফিস ইকবাল ও এইচএম রিদোয়ানকে।

সাংগঠনিক সম্পাদক করা হয়েছে – নবী সরোয়ার শাহেদ, মো. আরিফ, আরমান উদ্দিন, এমরান হোসেন নঈম, সিরাজুম মনির, তৌহিদুল ইসলাম, রিয়াদুল ইসলাম ও মেহেদী হাসান বকুলকে।

ইলিয়াছ উদ্দিন শাকিলকে প্রচার সম্পাদক, আতিকুর রহমান ও নোমান গনী সৌরভকে করা হয়েছে উপ প্রচার সম্পাদক।

দপ্তর সম্পাদক করা হয়েছে আরিফ তালুকদারকে এবং নিহানুর রশিদ ও তানভীর ইসলামকে করা হয়েছে উপদপ্তর সম্পাদক।

আবদুল্লাহ চৌধুরী হৃদয়কে করা হয়েছে গ্রন্হনা ও প্রকাশনা সম্পাদক, ইরফান চৌধুরীকে উপ-গ্রন্হনা ও প্রকাশনা সম্পাদক করা হয়েছে।

শিক্ষা ও পাঠচক্র বিষয়ক সম্পাদক করা হয়েছে ইফতেখার হোসাইন মামুনকে, জাবেদুল ইসলাম ও তৌহিদুল ইসলামকে করা হয়েছে শিক্ষা ও পাঠচক্র বিষয়ক উপ-সম্পাদক।

সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক করা হয়েছে সাব্বির আহমদকে এবং ইশতিয়াক পারভেজকে করা হয়েছে সাংস্কৃতিক বিষয়ক উপসম্পাদক।

সাইদুল ইসলাম শাহান’শাকে করা হয়েছে সমাজসেবা বিষয়ক সম্পাদক এবং বাকের উল্লাহ সুমন ও জোবায়ের হোসেনকে করা হয়েছে সমাজসেবক বিষয়ক উপ-সম্পাদক।

ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক করা হয়েছে নিলয় দে, ফজল কাদের ও রায় শ্রাবনকে করা হয়েছে ক্রীড়া বিষয়ক উপ-সম্পাদক।

বাবুল নাথকে করা হয়েছে তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক এবং শেখ মিজানুর রহমান ও মো. রাসেলকে করা হয়েছে তথ্য ও গবেষণা উপ-সম্পাদক।

ছাত্রীবিষয়ক সম্পাদক করা হয়েছে জান্নাতুল ফেরদৌস রানীকে এবং তাছলিমা আকতারকে করা হয়েছে ছাত্রী বিষয়ক উপ-সম্পাদক।

অর্থ বিষয়ক সম্পাদক করা হয়েছে সালাহ উদ্দিন রাকিবকে, সাকিব উদ্দিন, আরিফুর রহমান আরাফাতকে করা হয়েছে অর্থ বিষয়ক উপ-সম্পাদক।

আইন বিষয়ক সম্পাদক করা হয়েছে শাখাওয়াত হোসেন হৃদয়কে, আইন বিষয়ক উপসম্পাদক করা হয়েছে খোরশেদুল আলমকে।

পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক করা হয়েছে আজহারুল ইসলামকে, নয়ন ইসলামকে করা হয়েছে পরিবেশ বিষয়ক উপসম্পাদক।

স্কুলছাত্র বিষয়ক সম্পাদক করা হয়েছে ইমরান হোসেন নয়নকে, মেহেদী হাসান ও মিনহাজুল আবেদীন শাওনকে করা হয়েছে স্কুল ছাত্র বিষয়ক উপ-সম্পাদক।

বিজ্ঞান ও তথ্য প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক করা হয়েছে আলিফ মাহমুদকে, আবদুল মজিদকে করা হয়েছে বিজ্ঞান ও তথ্য প্রযুক্তি বিষয়ক উপ-সম্পাদক।

ধর্মবিষয়ক সম্পাদক করা হয়েছে আলী আকবর ইমন ও তাছিরন উদ্দিন সানিকে করা হয়েছে ধর্ম বিষয়ক উপ-সম্পাদক।

গণশিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক করা হয়েছে শান্তনু দেব বাপ্পিকে এবং আশেক হাসানকে করা হয়েছে গণশিক্ষা বিষয়ক উপ-সম্পাদক।

ত্রাণ ও দুর্যোগ বিষয়ক সম্পাদক করা হয়েছে অভিরুপ ভট্টাচার্যকে ও মোজাম্নেল হক চৌধুরী সায়েমকে করা হয়েছে ত্রাণ ও দুর্যোগবিষয়ক উপ-সম্পাদক।

আনোয়ার হোসেন মারুফকে করা হয়েছে সাহিত্য বিষয়ক সম্পাদক ও নাজিম উদ্দীনকে করা হয়েছে সাহিত্য বিষয়ক উপ-সম্পাদক।

পাঠাগার বিষয়ক সম্পাদক করা হয়েছে মোশারফ হোসেন অপুকে, আবছার উদ্দিন আবির ও সাবের আহমদকে করা হয়েছে পাঠাগার বিষয়ক উপ-সম্পাদক।

কৃষি বিষয়ক সম্পাদক করা হয়েছে কুতুব উদ্দিন জুয়েলকে ও ইফতেখার উদ্দিন আহমদকে করা হয়েছে কৃষি বিষয়ক উপ-সম্পাদক।

শহীদুল ইসলাম ফাহিমকে করা হয়েছে গন যোগাযোগ ও উন্নয়ন বিষয়ক সম্পাদক ও গাজী মো.রিদোয়ানকে করা হয়েছে উপ সম্পাদক।

আপ্যায়ন বিষয়ক সম্পাদক করা হয়েছে শহীদুল ইসলামকে, উপ-সম্পাদক করা হয়েছে আশিকুল ইসলামকে।

শাকিল হোসেনকে করা হয়েছে মানব সম্পদ ও উন্নয়ন বিষয়ক সম্পাদক ও ফরহাদুল ইসলাম সিফাতকে করা হয়েছে উপ-সম্পাদক।

ছাত্রবৃত্তি বিষয়ক সম্পাদক করা হয়েছে ফরহাদুল ইসলাম ফাহিমকে ও আসিফুল ইসলামকে করা হয়েছে উপ-সম্পাদক।

মুক্তিযুদ্ধ ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক করা হয়েছে মিশকাদুল ইসলামকে ও আবদুল্লাহ আল নোমানকে করা হয়েছে উপ-সম্পাদক।

সহ-সম্পাদক করা হয়েছে– মো. আকিব,সাকিব হোসেন, রায়হান উদ্দিন, এইচ এম আদি, অভি দে, আবির মোহাম্মদ, ওমর সাঈদ, সাকিব, বোরহান উদ্দিন সবুজ, এহসান উদ্দিন, দীপ্ত নাথ,সাজ্জাদ হোসেন, সালাহ উদ্দিন চৌধুরী, খোরশেদ আলম রানা, মোরশেদ আলম, সিরাজুল মোস্তফা শাহীন, এম এ আজিজ, মেহেদী হাসান রাব্বি, শরিফুল ইসলাম মিজান, তারেক রহমান, নাজিম উদ্দীন, রাহুল মিত্র বাপ্পা ও আহমদ ইমতিয়াজ আলিফকে।

এছাড়া মুন্না সরদার, সানভী আহমদ, মিনহাজ, শুভ্রদ্বীপ চৌধুরী, ফরিদ উদ্দিন শাকিল, আরমান হোসেন, নুর কাদের, সুভল বড়ুয়া, শুভ্র বড়ুয়া, জোবাইর বিন রশিদ, আরমানুল ইসলাম ও রিমন চৌধুরীকে সদস্য করা হয়েছে।

পটিয়া উপজেলা ছাত্রলীগের আহ্বায়ক কমিটি, পৌরসভা ও কলেজ ছাত্রলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করা হয় ২০২১ সালের ২৫ জুন। গত ২৫ মে উপজেলা ছাত্রলীগের আহ্বায়ক নাজমুল সাকের সিদ্দিকী তার অনুসারীদের নিয়ে দিনে দিনে ১৬টি ইউনিয়ন ও একটি বেসরকারি কলেজের কমিটি অনুমোদন দেন। সেদিন আহ্বায়ক কমিটির চারজন যুগ্ম আহ্বায়ক তাদের অনুসারীদের নাম উল্লেখ করে পাল্টা কমিটি দিলে সেদিন রাতে দলের শৃঙ্খলা পরিপন্থি কাজ করায় উপজেলা ছাত্রলীগের আহ্বায়ক কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করে সংবাদ বিজ্ঞপ্তি দেন।

ইকবাল হোসেন/আরএডি/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]