পুলিশকে রক্ষীবাহিনীর ভূমিকায় রূপান্তরিত করেছে সরকার: নুর

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৮:৪৯ পিএম, ০৬ আগস্ট ২০২২

গণঅধিকার পরিষদের সদস্যসচিব ও ডাকসু’র সাবেক ভিপি নুরুল হক নুর বলেছেন, জ্বালানির মূল্যবৃদ্ধির কারণে সবকিছুর দাম বাড়বে। এ নিয়ে সরকারের কোনো মাথাব্যথা নাই। কারণ, তারা জনগণের সরকার নয়। যদি তা হতো তাহলে ট্যাক্সের টাকায় চলা পুলিশকে রক্ষীবাহিনী হিসেবে রূপান্তরিত করতো না।

শনিবার (৬ আগস্ট) বিকেলে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে গণঅধিকার পরিষদ আয়োজিত মিছিল পরবর্তী সমাবেশে তিনি একথা বলেন।

তিনি বলেন, গণতান্ত্রিক আন্দোলনে গুলি করে মানুষকে হত্যা করছে পুলিশ। পুলিশের কাছে প্রশ্ন আপনারা নিষেধাজ্ঞাপ্রাপ্ত সদস্যদের আপনাদের বিভাগে রেখে পুলিশ বাহিনী ও র্যাবকে কলঙ্কিত করবেন কি না? পুলিশকে বলবো ফ্যাসিবাদের সঙ্গে থেকে রক্ষীবাহিনী হবেন নাকি দেশে জনগণের সঙ্গে থাকবেন।

ডাকসু’র সাবেক এই ভিপি বলেন, ইতিহাস কাউকে ক্ষমা করে না। ইতিহাস সাক্ষ্য দেয় কোন স্বৈরাচার বেশিদিন টিকে থাকতে পারে না। যদি এটি সত্য হয় তাহলে শেখ হাসিনার পতন সন্নিকটে। দেশে আজ ভালো মানুষ মুজিব কোর্ট পরে না। সাহেদের মতো বাটপাররা মুজিব কোট পরে। দেশের সব সংকটের মূলে এই ফ্যাসিবাদী সরকার। আমরা রাজপথে নামবো। হয় বাঁচবো না হয় মরবো। জনগণের মুক্তির জন্য লাশ হতে হলে আমরা লাশ হবো।

৫০ বছরেও দারিদ্রের কষাঘাত থেকে মানুষ মুক্ত হয়নি উল্লেখ করে তিনি বলেন, এখনো সাড়ে ছয় কোটি মানুষ দিন আনে দিন খায়। সেখানে মাত্র ৫ শতাংশ মানুষের হাতে ৮৫ শতাংশ সম্পদ ও রাষ্ট্র জিম্মি। সরকার মধ্যরাতে তেলের দাম বৃদ্ধি করেছে। এই সরকার দেশকে খাদের কিনারায় নিয়ে গেছে। সরকারের হাতে এখন রাস্তা আছে একটাই চাঁদাবাজি ও জনগণের পকেট কেটে ছিনতাইয়ের রাস্তা। এজন্য সরকার তেলের দাম বৃদ্ধি করেছে।

মিছিলটি গণঅধিকার পরিষদের কার্যালয় হতে শুরু করে কাকরাইল পল্টন মৎস্যভবন হয়ে প্রেসক্লাবের সামনে এসে সমাবেশের মাধ্যমে শেষ হয়। সমাবেশে গণঅধিকার পরিষদের নেতারা বক্তব্য রাখেন।

আরএসএম/জেএইচ/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]