‘বিদ্যুৎ-জ্বালানি খাত ধ্বংস করছে পর্দার আড়ালের কিছু ব্যক্তি’

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৩:৩২ পিএম, ১০ আগস্ট ২০২২

বিদ্যুৎ-জ্বালানি খাত ধ্বংস করছে পর্দার আড়ালের কিছু ব্যক্তি। এ জ্বালানির মূল্যবৃদ্ধির কারণ-সীমাহীন দুর্নীতি ও লুটপাট।

বুধবার (১০ আগস্ট) জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে ন্যাশনাল পিপলস্ পার্টি (এনপিপি) ও এর নেতৃত্বাধীন জোট ন্যাশনালিস্ট ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট (এনডিএফ)-এর মানববন্ধনে এসব কথা বলেন এনডিএফ-এর সভাপতি শেখ ছালাউদ্দিন ছালু।

শেখ ছালাউদ্দিন বলেন, ‘সরকার নতুন নতুন কুইক রেন্টালের অনুমতি দিয়েছে। যার প্রেক্ষিতে গত ১০ বছরে ৭৫ হাজার কোটি টাকা সরকার দিয়েছে। এ ৭৫ হাজার কোটি টাকা দশটি কোম্পানিকে দেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে একটি কোম্পানিকেই ৩০ হাজার কোটি টাকা দেওয়া হয়েছে। পর্দার আড়ালে থাকা ব্যক্তিরা কোম্পানিগুলোর মাধ্যমে লুটপাট ও দুর্নীতি করেছে, এর বিচার হওয়া দরকার।’

তিনি বলেন, জ্বালানি তেল এমন একটি পণ্য যার প্রভাব প্রতিটি পণ্যের ওপর পড়ে। বর্তমানে যাতায়াত ভাড়া নিয়ে নৈরাজ্য চলেছে। এর চাপে সাধারণ মানুষ অসহায় হয়ে পড়ছে। এখন ৯৫ টাকার ডলার ১১৫ টাকায়ও পাওয়া যাচ্ছে না। মানুষ বিদেশে চিকিৎসার জন্য ডলার পাচ্ছে না।

তিনি বলেন, বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাতে যারা দুর্নীতি করেছে তাদের দ্রুত বিচারের ব্যবস্থা করতে হবে। এসময় জ্বালানির মূল্যবৃদ্ধি প্রত্যাহারের আহবান জানান তিনি।

এনপিপি চেয়ারম্যানের রাজনৈতিক উপদেষ্টা ও সাবেক ছাত্রনেতা কাজী ছাব্বীরের সঞ্চালনায় মানববন্ধে বক্তব্য দেন এনপিপির মহাসচিব বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. আব্দুল হাই, জাতীয় গণতান্ত্রিক পার্টির (জাগপা) সভাপতি ও এনডিএফর সদস্য সচিব এ কে এম মহিউদ্দিন আহাম্মেদ (বাবলু), ন্যাপ ভাসানীর চেয়ারম্যান মো. আব্দুল হাই সরকার, এনপিপির প্রেসিডিয়াম সদস্য শেখ আবুল কালাম, মোহাম্মদ আনিসুর রহমান দেওয়ান, বাংলাদেশ ইসলামিক পার্টির চেয়ারম্যান মহিউদ্দিন আহমেদ, এনপিপির ভাইস চেয়ারম্যান সেলিম মাহমুদ প্রমুখ।

আর এসএম/এমআইএইচএস

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।