জিয়ার মূল কাজ ছিল নেপথ্যে থেকে হত্যাকাণ্ড সামাল দেওয়া: তাপস

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক
বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়
প্রকাশিত: ০৯:৩৮ পিএম, ১৮ আগস্ট ২০২২
ফাইল ছবি

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র শেখ ফজলে নূর তাপস বলেছেন, জিয়াউর রহমানের মূল কাজ ছিল নেপথ্যে থেকে ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্টের হত্যাকাণ্ড সামাল দেওয়া। হত্যাকান্ড শুধু ঘটানোয় নয়, খুনিদের রক্ষা করতেও তিনি মূল ভূমিকা পালন করেন।

বৃহস্পতিবার (১৮ অগাস্ট) সন্ধ্যায় জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে জহির রায়হান সাংস্কৃতিক কেন্দ্রে গেন্ডারিয়া থানা আওয়ামী লীগ আয়োজিত আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলে প্রধান আলোচকের বক্তব্যে তিনি এমন মন্তব্য করেন।

মেয়র শেখ তাপস বলেন, ১৯৭৫ সালের ১৩ আগস্ট জিয়াউর রহমান আমাদের বাসায় এসেছিলেন। সেদিন দীর্ঘক্ষণ অপেক্ষা করে তিনি বাবার সঙ্গে দেখা করে যান। সেদিন তার আমাদের বাসায় আসার মূল উদ্দেশ্য ছিল, ১৫ আগস্টের হত্যাকাণ্ড সম্পর্কে আমাদের কাছে কোনো তথ্য আছে কী না, তা অনুমান করা।

শেখ তাপস বলেন, জিয়াউর রহমানের মূল কার্যক্রমই ছিল নেপথ্য থেকে এ হত্যাকাণ্ড সামাল দেওয়া, খুনিদের বাঁচানো। কেউ যাতে বঙ্গবন্ধুর খুনিদের বিরুদ্ধে কনো ব্যবস্থা না নিতে পারেন ও তাদের মূল উদ্দেশ্য যাতে কোনোভাবেই বাধাগ্রস্ত না হয় তা তিনি সুচারুভাবে সম্পন্ন করেছেন।

তিনি আরও বলেন, ১৫ আগস্টের হত্যাকাণ্ডে যারা বাধা দানকারী কর্নেল নুরুদ্দীন ও শাফায়াত জামিলকে আটক করে কর্নেল রশিদ সেদিন জিয়াউর রহমানের কাছে নিয়ে গিয়েছিলেন। এ ছাড়া খুনের পরবর্তীকালের বিভিন্ন ঘটনা আরও প্রমাণ করে যে, বঙ্গবন্ধুর হত্যাকারীদের আস্থার জায়গা ছিলেন জিয়াউর রহমান।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও কৃষিমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক বলেন, বঙ্গবন্ধুর খুনিরা আজও ষড়যন্ত্র করে যাচ্ছেন। তাই মুক্তিযুদ্ধবিরোধী শক্তি, বিএনপি-জামায়াতের সব ষড়যন্ত্র প্রতিরোধ করতে সবাইকে শপথ নিতে হবে।

আওয়ামী লীগ সরকারের শাসনামালে বিচারব্যবস্থা নিয়ে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর যে বক্তব্য দিয়েছেন তার জবাবে আব্দুর রাজ্জাক বলেন, অপকর্মের জন্য আপনাদের নেতা তারেক জিয়ার বিচার হয়েছে। জননেত্রী শেখ হাসিনা এ দেশের মাটিতে বঙ্গবন্ধুর খুনি ও রাজাকারদের বিচার করেছেন। আপনাদেরও সব অন্যায়ের বিচার হবে।

আগামী নির্বাচনে আসবে না বলে বিএনপির যে হুশিয়ারি দিয়েছে তার জবাবে কৃষিমন্ত্রী বলেন, নির্বাচনে অংশ না নিয়ে হরতাল, জ্বালাও-পোড়াও আর করতে দেওয়া হবে না। প্রয়োজনে তাদের অপকর্মের বিরুদ্ধে আওয়ামী লীগ নেতা-কর্মীরা আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে সাহায্য করবে।

অনুষ্ঠান শেষে বঙ্গবন্ধুসহ ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট রাতে শহীদ হওয়া সবার আত্মার শান্তি কামনা করে দোয়া ও মোনাজাত করা হয়।

গেন্ডারিয়া থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ৪৬ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর শহীদ উল্লাহমিনুর সভাপতিত্বে কর্মসূচিতে বিশেষ অতিথি ছিলেন ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আবু আহম্মেদ মন্নাফী।

কর্মসূচিতে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের বিভিন্ন থানা ও ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক, কাউন্সিলর, যুবলীগ ও ছাত্রলীগসহ বিভিন্ন সহযোগী সংগঠনের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতারা।

রায়হান আহমেদ/এসএএইচ/জেআইএম

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।