এখনো সময় আছে পদত্যাগ করুন: সরকারকে ফখরুল

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৭:২৫ পিএম, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২২

সরকারের উদ্দেশে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, এখনো সময় আছে পদত্যাগ করুন। সংসদ বিলুপ্ত করুন। তত্ত্বাবধায়ক সরকারের কাছে ক্ষমতা হস্তান্তর করুন এবং তাদের মাধ্যমে নতুন নির্বাচন কমিশন গঠন করে নির্বাচনের মধ্য দিয়ে জনগণের পার্লামেন্ট গঠন করুন।

শনিবার (২৪ সেপ্টেম্বর) বিকেলে রাজধানীর নয়াপল্টনে এক বিক্ষোভ সমাবেশে তিনি এসব কথা বলেন। মুন্সিগঞ্জে পুলিশ বিএনপি সংঘর্ষের ঘটনায় নিহত যুবদল নেতা সাওন হত্যার প্রতিবাদে জাতীয়তাবাদী যুবদল এ বিক্ষোভ সমাবেশের আয়োজন করে।

দেশের মানুষ জেগে উঠেছে দাবি করে ফখরুল বলেন, ‘আমি আবারও আহ্বান করছি, এ দেশকে রক্ষা করার জন্য, বিএনপিকে ক্ষমতায় বসানোর জন্য নয়। ক্ষমতায় বসানোর কথা বলছি- বাংলাদেশের মানুষকে, কারণ ক্ষমতার মালিক হচ্ছে জনগণ। তাদের ভোটাধিকার ফিরিয়ে দিতে চাই। মানুষের জীবনের অধিকার চাই, নিরাপত্তা চাই। কথায় কথায় গুলি করবেন, ফেলে দেবেন, আগুন জ্বালিয়ে দেবেন, দেশের মানুষ আর সহ্য করবে না।’

বিএনপি মহাসচিব বলেন, সব রাজনৈতিক দল এবং মানুষকে ঐক্যবদ্ধ করে দুর্বার আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে। দুর্বার গণআন্দোলনের মধ্য দিয়ে এই ভয়াবহ ফ্যাসিস্ট সরকারকে পরাজিত করতে হবে।

সরকারদলীয় নানা অত্যাচারের প্রসঙ্গ তুলে তিনি বলেন, আজ তারা রক্ত ঝরিয়েছে। আওয়ামী লীগ ভয় দেখিয়ে, খুন করে, বাড়িঘর আগুনে পুড়িয়ে ক্ষমতায় থাকতে চায়। মুন্সিগঞ্জের শুধু সাওনকে হত্যা করে ক্ষান্ত হয়নি। এরপর তারা বিএনপির নেতার কারখানা জ্বালিয়ে দিয়েছে। বাড়ি জ্বালিয়ে দিয়েছে। মুন্সিগঞ্জে একটি ত্রাসের রাজত্ব তৈরি করেছে। এভাবে সারাদেশে একটি ত্রাসের সৃষ্টি করে তারা ক্ষমতায় টিকে থাকতে চায়।

তিনি আরও বলেন, আমাদের ছয় শতাধিক মানুষকে গুম করেছে। সহস্রাধিক নেতাকর্মীকে হত্যা করেছে। ৩৫ লাখ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা করেছে। তারা জাতিসংঘে গিয়ে বলে, যুদ্ধ চাই না, নিষেধাজ্ঞা চাই না। সাওনের মৃত্যুতে আব্দুর রহিম এবং নুর আলমের মৃত্যুতে মানুষের যে দাবি শুরু হয়েছে, যে আন্দোলন শুরু হয়েছে, যে অভ্যুত্থান শুরু হয়েছে, এই অভ্যুত্থানকে কখনো বন্ধ করা সম্ভব হবে না।

বিএনপির এ নেতা বলেন, আজ সাওনের বাবার কণ্ঠে আমরা আহাজারি শুনিনি, তার চোখে অশ্রু দেখিনি। তার চোখে আগুন দেখেছি। বজ্রকণ্ঠে তিনি বলছেন, ‘আমি আপস করবো না।’ সাওনের বাবাকে ভয় দেখানো হচ্ছে। যে তুমি বলো- পেছন থেকে ইটের আঘাতে সাওন মারা গেছে। তুমি বলো, তাকে বিএনপির লোকেরাই মেরেছে। সাওনের যে ডেথ সার্টিফিকেট তাতে পরিষ্কার করে বলা হয়েছে, মেসিভ ব্রেইন ইজুরি ডিউ টু গান শট। বন্দুকের গুলিতেই তার মৃত্যু হয়েছে। তাই আর মিথ্যাচার করবেন না। মিথ্যাচার করে জনগণকে বোকা বানিয়ে রেখেছেন।

সমাবেশে সাওনের বাবা তোয়াব বলেন, আমার ছেলে গণতন্ত্রের জন্য সংগ্রাম করতে গিয়ে নিহত হয়েছে। যারা আমার সন্তানকে হত্যা করেছে, তারা জনগণের অধিকারকে হত্যা করেছে। আমাকে ভয়ভীতি দেখানো হচ্ছে, আপনারাই আমার ভরসা। আপনারা আমার পাশে থাকলে কোনো শক্তিকেই আমি ভয় পাই না।

যুবদলের সভাপতি সুলতান সালাউদ্দিন টুকুর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মোনায়েম মুন্নার সঞ্চালনা সমাবেশে বক্তব্য রাখেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আমানউল্লাহ আমান, আব্দুস সালাম, যুবদলের সাবেক সভাপতি সাইফুল আলম নীরব ও ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক সাইফ মাহমুদ জুয়েল প্রমুখ।

কেএইচ/আরএডি/জেআইএম

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।