শেখ হাসিনার ওপর দেশের মানুষের পূর্ণ আস্থা আছে: কাদের

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১১:০১ পিএম, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২
ওবায়দুল কাদের, ফাইল ছবি

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি বাংলাদেশের মানুষের পূর্ণ আস্থা আছে বলে মনে করেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

তিনি বলেছেন, এ দেশের জনগণের প্রতি শেখ হাসিনার যেমন আস্থা আছে, আমাদেরও জনগণের প্রতি আস্থা রয়েছে। তাই কোনো দলের আস্থার প্রয়োজন নেই।

সোমবার (২৬ সেপ্টেম্বর) বিকেলে পুরান ঢাকার শ্যামপুর বালুর মাঠে কদমতলী থানা এবং ৫২, ৫৩, ৫৮, ৫৯, ৬০ ও ৬১ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সম্মেলনে ওবায়দুল কাদের এ কথা বলেন।

‘শেখ হাসিনার প্রতি জনগণের আস্থা নেই’ বলে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের মন্তব্যের জবাবে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, আপনারা যারা এই দেশে হ্যাঁ/না ভোট করেছেন, ভুয়া ভোটার দিয়ে নির্বাচন করতে চেয়েছেন, ১৫ ফেব্রুয়ারি ভোটারবিহীন নির্বাচন করেছেন, তাদের শেখ হাসিনার প্রতি আস্থা থাকার দরকার নেই। শেখ হাসিনার প্রতি এদেশের জনগণের আস্থা আছে।

বিএনপি এখন উভয় সংকটে মন্তব্য করে ওবায়দুল কাদের বলেন, একদিকে আন্দোলন, অন্যদিকে নির্বাচন। আসলে তাদের তো নেতা ঠিক নেই। আবার ২০ দলীয় জোটের অবস্থাও ভালো নয়। তারা আসলে কী করবে বুঝতে পারছে না।

অভিযোগ করে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, তারা সকালে ঘুম থেকে উঠে বিভিন্ন দূতাবাসে গিয়ে বসে থাকে। তাদের কাছে সরকারের বিরুদ্ধে নালিশ করে। নালিশ করে কোনো লাভ নেই। স্বপ্ন দেখা ভালো, কিন্তু আপনাদের স্বপ্ন দেখে লাভ নেই।

কদমতলী থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোহাম্মদ নাছিম মিয়ার সভাপতিত্বে সম্মেলনে আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য কামরুল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম, কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য সানজিদা খানম, ঢাকা মহনগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সভাপতি আবু আহমদ মন্নাফি, সাধারণ সম্পাদক হুমায়ুন কবির, সহ-সভাপতি ডা. দিলীপ রায়, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মিরাজ হোসেন, সদস্য শহিদুল ইসলাম মিলন ও আসমা আকতার কেকা প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

সম্মেলনে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র শেখ ফজলে নূর তাপসও উপস্থিত ছিলেন।

এইচএ/এমএইচআর

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।