জনগণ এখন পরিবর্তন চায়: নোমান

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৯:২৪ পিএম, ০৬ অক্টোবর ২০২২

গণতন্ত্রের সঙ্গে সরকার বিশ্বাসঘাতকতা করেছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল্লাহ আল নোমান। তিনি বলেন, জনগণ এখন একটা পরিবর্তন চায়, যে পরিবর্তন সরকারের পরিবর্তন, আশা-আকাঙ্ক্ষার পরিবর্তন।

বৃহস্পতিবার (৬ অক্টোবর) জাতীয় প্রেস ক্লাবে এক আলোচনা সভায় এসব কথা বলেন আব্দুল্লাহ আল নোমান।

তিনি বলেন, একটি গণতান্ত্রিক স্বাধীন সার্বভৌম রাষ্ট্রের পতাকার জন্য আমরা লড়াই করেছিলাম। সেই পতাকা শুধু বহন করে নিয়ে যাওয়ার জন্য স্বাধীনতা নয়, দেশের মানুষের দরকার অর্থনৈতিক মুক্তি।

বর্তমান সরকার অর্থনৈতিকভাবে দেশকে ধ্বংস করেছে উল্লেখ করে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান বলেন, এই সরকার আমাদের কোনো সহযোগিতা মানে নাই।

দেশের গণতন্ত্র রক্ষার জন্য বিরোধীদলের তিনটি কাজ থাকে উল্লেখ করে তিনি বলেন, প্রথমত সরকারের ভুল-ত্রুটি ধরিয়ে দেওয়া, দ্বিতীয়ত এগুলো পত্রিকায় আলোচনা ও সমালোচনার মাধ্যমে তুলে ধরা, আর সেভাবেও না হলে সর্বশেষ সেই ক্ষমতার বিরুদ্ধে লড়াই ও তাদের ক্ষমতাচ্যুত করার জন্য আন্দোলন করা। আমরা সর্বশেষ ধাপে এসে পৌঁছেছি এখন আমাদের আন্দোলনের মাধ্যমে গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনতে হবে।

নোমান বলেন, ৯৯ ডিগ্রি ফারেনহাইট পানি উত্তপ্ত হয়েছে, আরেকটু হলেই বাষ্প হয়ে যাবে। তারেক রহমানের নীতিকে মেনে যদি আমরা সামনের দিকে এগিয়ে যাই তাহলে আমাদের লক্ষ অর্জন হবে।

বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন বলেন, গণতন্ত্রের বাণী এখন উলটো। যারা গণতন্ত্র চায় তাদের জীবনের কোনো দাম নেই। আজকে দেশে বেচে থাকার অধিকার নাই। বিনাভোটের সরকার রাজত্ব করছে। গত দুটি নির্বাচনে মানুষ অংশগ্রহণ করতে পারেনি। আমাদের নেতাকর্মী ও সমর্থকদের বন্দি করা হয়েছিল।

জিয়া প্রজন্মদল কেন্দ্রীয় কমিটির প্রধান উপদেষ্টা ও ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির আহ্বায়ক আব্দুস সালাম বলেন, এমন কোনো অপকর্ম নাই যেখানে পুলিশ, ছাত্রলীগ আর যুবলীগ জড়িত নয়। তাদের হাতে দেশের জনগণ সুরক্ষিত নয়।

জিয়া প্রজন্মদলের সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান শাহীনুর মল্লিক জীবনের সভাপতিত্বে সাধারণ সম্পাদক সারোয়ার হোসেন রুবেলের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের নেতারা।

কেএইচ/জেডএইচ/জেআইএম

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।