জাপানে প্রবাসীদের সাকুরা উৎসব

ফখরুল ইসলাম
ফখরুল ইসলাম ফখরুল ইসলাম , জাপান প্রতিনিধি জাপান
প্রকাশিত: ০৬:৫৯ পিএম, ০৪ এপ্রিল ২০১৮

জাপানের টোকিও শহরের কিতা ওয়ার্ডের অজিতে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের স্মৃতি বিজড়িত আসুকাইয়ামা উদ্যানে সাকুরা উৎসব অনুষ্ঠিত হয়েছে। এ আয়োজনে প্রায় ২৫০ জনের বেশি বাংলাদেশি অংশগ্রহণ করে। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন- লিপিকা চৌধুরী ও জালাল-জাবেদ।

Japan

জাপানিরা মূলত চেরিকে সাকুরা বলে থাকে। গুচ্ছবদ্ধ ফুলগুলো প্রধানত গোলাপী, সাদা ও লাল রঙের হয়ে থাকে। জাপানের প্রায় সব অঞ্চলেই চেরি ফুলের গাছ দেখা যায়। জাপানকে চেরি ফুলের দেশ বলা হয়ে থাকে।

দুপুরের আগে থেকেই জনমানুষের ভিড় জমতে থাকে। পার্কিংয়ে গাড়ির ঠাঁই নেই। আশপাশের কোনো কয়েন পার্কিংয়েও নেই। পার্কিং পাওয়ার আশায় রাস্তাতেও গাড়ির ভিড় জমতে দেখা যায়।

Japan

ইচ্ছেমতো ফটোশুট করেন প্রবাসী মেয়েরা হরেক রঙের শাড়ি-চুড়ি ও মাথায় সাকুরা ফুল লাগিয়ে। ছোটদেরও আনন্দের কোনো কমতি ছিল না। মেয়েরাও মায়েদের থেকে পিছিয়ে ছিল না, মাথায় ফুল লাগিয়ে নানা রঙে ঢঙে ছবি তোলে।

media

সর্বস্তরের প্রবাসীরা দিনভর আয়োজনটি উপভোগ করেন। দুপুরে বিরিয়ানির প্যাকেট ছাড়াও ছিল বিকেলের চটপটি, সমুচা, মিষ্টি ও আপেলের নাশতা। নানান আয়োজনের শেষে সন্ধ্যার হিমেল হাওয়ায় মানুষ ঘরমুখী হতে শুরু করেন। লিপিকা চৌধুরী ও জালাল-জাবেদ দম্পতি গত ছয় বছর ধরে এই আয়োজন করে আসছেন। তাদের অক্লান্ত পরিশ্রম এ বিশাল আয়োজনকে সার্থক করে তুলেছে।

Japan

পরে পার্কের এক অংশে বাংলা গানের আসর বসে। গানে গানে মেতে ওঠেন উত্তরণ কালচারাল গ্রুপের সদস্যরা। গান পরিবেশন করেন প্রবাসীরা।

এমআরএম/এমএস

প্রবাস জীবনের অভিজ্ঞতা, ভ্রমণ, গল্প-আড্ডা, আনন্দ-বেদনা, অনুভূতি, স্বদেশের স্মৃতিচারণ, রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক লেখা পাঠাতে পারেন। ছবিসহ লেখা পাঠানোর ঠিকানা - jagofeature@gmail.com

আপনার মতামত লিখুন :