প্রবাসীকল্যাণ মন্ত্রীর সঙ্গে বার্সেলোনা প্রবাসীদের মতবিনিময়

মিরন নাজমুল
মিরন নাজমুল মিরন নাজমুল , স্পেন প্রতিনিধি
প্রকাশিত: ০৮:১৭ এএম, ২২ জুলাই ২০১৮

প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থানমন্ত্রী নুরুল ইসলাম বিএসসির সঙ্গে মতবিনিময় সভা করেছেন বার্সেলোনা প্রবাসী বাংলাদেশিরা। গত শনিবার (২১ জুলাই) বার্সেলোনা শহরের উরখেল সেন্ত্রো সিভিকের হল রুমে বাংলাদেশ দূতাবাসের উদ্যোগে এই সভা অনুষ্ঠিত হয়। মন্ত্রীর নেতৃত্বে একটি সরকারি প্রতিনিধি দলের দুই দিনব্যাপী স্পেন সফরের অংশ হিসেবে এই সভার আয়োজন করা হয়।

স্পেনের মাদ্রিদে অবস্থিত বাংলাদেশ দূতাবাসের রাষ্ট্রদূত হাসান মাহমুদ খন্দকারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় মন্ত্রী নুরুল ইসলাম বিএসসি প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে প্রবাসীদের বিভিন্ন সমস্যা ও দাবির কথা শোনেন। পরে তার বক্তব্যে সেসব সমস্যা ও দাবিগুলো বিশ্লেষণ করে তার জবাব দেন এবং বিশেষ বিশেষ ক্ষেত্রে সেগুলোর সমাধানকল্পে দূতাবাসকে পরামর্শ দেন।

দাবিগুলোর মধ্যে পাসপোর্ট জটিলতা, পুলিশ ক্লিয়ারেন্স পেতে সময়ক্ষেপণ, প্রবাসীদের ভোটাধিকার, প্রবাসীর মৃত্যুতে মরদেহ পরিবহনে বাংলাদেশ সরকারের সব খরচ বহন, বার্সেলোনায় স্থায়ী কনস্যুলার অফিস স্থাপন, বিমানবন্দরে প্রবাসীদের নিরাপত্তাসহ বিভিন্ন বিষয় ওঠে আসে।

spain2

আলোচনাপর্বে অংশ নেয়া প্রবাসী বাংলাদেশিরা তাদের দাবি-দাওয়ার পাশাপাশি দূতাবাসের কার্যক্রমের প্রশংসা করেন। বিশেষ করে প্রায় দেড় বছর ধরে প্রতি দুই মাস অন্তর বার্সেলোনায় এসে কনস্যুলার সেবা দেয়ায় স্থানীয় প্রবাসীরা কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

সভাপতির বক্তব্যে রাষ্ট্রদূত হাসান মাহমুদ খন্দকার প্রবাসীদের মৌলিক দাবিগুলো প্রবাসীদের পক্ষে মন্ত্রীর কাছে তুলে ধরেন। তিনি প্রবাসীদের পাঠানো রেমিটেন্সে চলতি অর্থবছরে অর্জন করা রেমিটেন্স যেকোনো সময় থেকে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ উল্লেখ করে প্রবাসীদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

দুপুর সাড়ে ১২টা থেকে ২টা পর্যন্ত চলা এই মতবিনিময় সভা সঞ্চালনা করেন দূতাবাসের হেড অব চ্যান্সারি হারুন আল রশিদ। সভায় মন্ত্রীর সফর সঙ্গী হিসেবে উপস্থিত সরকারি কর্মকর্তারা প্রবাসীদের দেশের উন্নয়ন অনেক গুরুত্বপূর্ণ সহযোগী উল্লেখ করে বক্তব্য দেন। এ ছাড়া অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন দূতাবাসের প্রথম সচিব (লেবার উইং) মোহাম্মদ শরিফুল ইসলাম।

আলোচনা সভায় বার্সেলোনার স্থানীয় সাংবাদিকসহ বিভিন্ন সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

বিএ/এমএস

প্রবাস জীবনের অভিজ্ঞতা, ভ্রমণ, গল্প-আড্ডা, আনন্দ-বেদনা, অনুভূতি, স্বদেশের স্মৃতিচারণ, রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক লেখা পাঠাতে পারেন। ছবিসহ লেখা পাঠানোর ঠিকানা - jagofeature@gmail.com

আপনার মতামত লিখুন :