সরিয়ে দেয়া হলো কুয়েত দূতাবাসের সেই কর্মচারীকে

সাদেক রিপন
সাদেক রিপন সাদেক রিপন , কুয়েত প্রতিনিধি
প্রকাশিত: ০৩:৪৩ পিএম, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কুয়েত প্রবাসী আজিজুল আকরামের সঙ্গে অসৌজন্যমূলক আচরণের অভিযোগে দূতাবাসের গার্ড শাহিন কবিরকে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে বদলি করা হয়েছে।

রোববার (১৫ সেপ্টেম্বর) পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সংস্থাপন-২ শাখার সহকারী সচিব আলমগীর হোসেন স্বাক্ষরিত এক আদেশে এই বদলি করা হয় ।

আদেশে বলা হয়েছে, নিরাপত্তা সিকিউিরিটি গার্ড শাহিনকে ৯ সেপ্টেম্বরের মধ্যে মন্ত্রণালয়ে যোগদানের নির্দেশ দেয়া হয়েছে। গত ২ সেপ্টেম্বর কুয়েতের মিসিলায় স্থানান্তরিত বাংলাদেশ দূতাবাসে গরমে অতিষ্ঠ হয়ে এক তলায় গিয়ে বিশ্রাম নিলে সেখানে দায়িত্বে থাকা সিকিউিরিটি গার্ড ওই প্রবাসীকে নিচে চলে যেতে বললে এক পর্যায়ে দু’জনের মধ্যে বাকবিতণ্ডা শুরু হয়। এই ধরনের একটি অসৌজন্যমূলক আচরণের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়। ফলে দেশে বিদেশে মানুষের মধ্যে ক্ষোভ সৃষ্টি হয়।

সিলেট প্রবাসী ও সমাজকর্মী আহমেদ রিয়াজ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হওয়া বিষয়টি প্রবাসীদের পক্ষ থেকে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের নজরে আনতে লিখিত অভিযোগ করেন। তিনি বলেন, শাহিন কবিরকে বদলির মাধ্যমে প্রমাণিত হয়েছে প্রবাসী বান্ধব এ সরকার। বাইরের দেশে দূতাবাসগুলোতে যে সব প্রবাসীরা কর্মরত আছেন, তাদের জন্য এটি একটি বার্তা হয়ে থাকবে।

অপ্রত্যাশিত আচরণের জন্য দূতাবাসের গার্ড শাহিনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করায় এবং বাংলাদেশ দূতাবাস কুয়েত ও সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের প্রতি সন্তুষ্টি প্রকাশ করেন কুয়েত প্রবাসীরা। তারা বলেন, প্রবাসের বুকে দূতাবাস হলো আমাদের জন্য এক খণ্ড বাংলাদেশ। ভবিষ্যতে যাতে এই ধরনের ঘটনা আর না ঘটে সেজন্য দূতাবাস ও সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের প্রতির আহ্বান জানান কুয়েত প্রবাসীরা।

ভুক্তভোগী আজিজুল আকরাম বলেন, শাহিন আমার সঙ্গে যে আচরণ করেছেন তার এই শাস্তিটা সব দূতাবাস ও প্রবাসীদের কাছে দৃষ্টান্ত হয়ে থাকবে। আমি বাংলাদেশে নিযুক্ত কুয়েতের রাষ্ট্রদূত এস এম আবুল কালাম স্যারকে ধন্যবাদ জানাই দ্রুত সময়ের মধ্যে তদন্ত করে অভিযুক্ত শাহিনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার। জন্য।

কুয়েতে বাংলাদেশ দূতাবাসের কাউন্সিলর ও দূতালয় প্রধান মোহাম্মদ আনিসুজ্জামান বলেন, কুয়েতে প্রায় সাড়ে তিন লাখ প্রবাসী, সেই অনুপাতে আমাদের দূতাবাসের লোকবল কম। নতুন জাগায় স্থানান্তরিত দূতাবাসকে দালাল মুক্ত রাখা হয়েছে। ইনশাআল্লাহ আগামীতে দূতাবাসে আগত সব বাংলাদেশি ভাইদের ফরম পূরণসহ যেকোনো কাজে দূতাবাসের স্টাফরা সহযোগিতা করবে। বিদেশে দেশের সুনাম অক্ষুণ্ন রাখতে প্রবাসীদের সহযোগিতা কামনা করেন তিনি।

জেএইচ/জেআইএম

প্রবাস জীবনের অভিজ্ঞতা, ভ্রমণ, গল্প-আড্ডা, আনন্দ-বেদনা, অনুভূতি, স্বদেশের স্মৃতিচারণ, রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক লেখা পাঠাতে পারেন। ছবিসহ লেখা পাঠানোর ঠিকানা - [email protected]