প্রধানমন্ত্রীর নিউ ইয়র্ক সফর ঘিরে আ.লীগ-বিএনপিতে উত্তেজনা

কৌশলী ইমা কৌশলী ইমা , যুক্তরাষ্ট্র
প্রকাশিত: ০৩:১২ পিএম, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জাতিসংঘে ৭৪তম সাধারণ অধিবেশনে যোগ দিতে নিউ ইয়র্ক সফরে আসাকে কেন্দ্র করে স্থানীয় আওয়ামী লীগ ও বিএনপির নেতাকর্মীদের মাঝে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। ইতোমধ্যে বিএনপির বিক্ষোভ প্রতিবাদ ও আ.লীগের প্রতিরোধ নামে পাল্টাপাল্টি কর্মসূচি ঘোষণা করেছে।

জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের ৭৪তম অধিবেশন উপলক্ষে আগামী ২২ থেকে ২৮ সেপ্টেম্বর যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্ক সফর করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এবারে তিনি থাকবেন ম্যানহাটনের হোটেল প্যালেসে।

জাতিসংঘে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভাষণ ২৭ সেপ্টেম্বর বিকেলে। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও মোদিসহ বেশ কয়েকটি দেশের প্রেসিডেন্ট প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন।

প্রধানমন্ত্রী জাতিসংঘ সাধারণ অধিবেশনে ভাষণ দেবেন ২৭ সেপ্টেম্বর। ওই ভাষণে রোহিঙ্গা সংকটসহ সমসাময়িক বিভিন্ন ইস্যু স্থান পেতে পারে। একই দিন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিরও ভাষণ দেয়ার কথা রয়েছে। পরদিন ২৮ সেপ্টেম্বর বেলা ১১টায় প্রতি বছরের মতো এবারো বাংলাদেশ মিশনে স্থানীয় গণমাধ্যম কর্মীদের সাথে সংবাদ সম্মেলনে অংশ নেবেন। শনিবার দুপুরে টাইমস স্কোয়ার সংলগ্ন ম্যারিয়ট মারক্যুইস হোটেলের বলরুমে নাগরিক সংবর্ধনা সমাবেশে ভাষণ দেবেন জননেত্রী শেখ হাসিনা।

উল্লেখ্য, ২৮ সেপ্টেম্বর হবে শেখ হাসিনার ৭৩তম জন্মদিন। সেই আলোকেই সবকিছু সাজানো হচ্ছে বলে জানা গেছে। যুক্তরাষ্ট্র সময় ২২ সেপ্টেম্বর সকালে প্রধানমন্ত্রী নিউ ইয়র্ক পৌঁছাবেন। ওইদিন সকালে জনএফ কেনেডি (জেএফকে) বিমানবন্দরে শেখ হাসিনাকে উষ্ণ অভ্যর্থনা জানাতে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ-সংগঠনের নেতাকর্মীরা কর্মসূচি গ্রহণ করেছেন।

এ সময় বিএনপির নেতাকর্মীরাও পাল্টা কর্মসূচি হিসেবে কালো পতাকা প্রদর্শন ও প্রতিবাদ বিক্ষোভ করবে বলে বিএনপির সূত্রটি জানায়।
জাতিসংঘে শেখ হাসিনার ভাষণের সময়ে বাইরে আওয়ামী লীগ করবে শান্তি সমাবেশ, অপরদিকে বিএনপি ঘোষণা দিয়েছে প্রতিবাদ সমাবেশের। বিএনপির কর্মসূচির জন্যও কর্তৃপক্ষের অনুমতি নিয়ে রাখা হয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগও জেএফকে বিমানবন্দর ও জাতিসংঘের সামনে সর্বত্র শান্তিপূর্ণ কর্মসূচির জন্য কর্তৃপক্ষের অনুমতি সংগ্রহ করেছেন বলে দলীয় সূত্রে জানা গেছে।

২৮ সেপ্টেম্বর টাইমস স্কোয়ার সংলগ্ন ম্যারিয়ট মারক্যুইস হোটেলের বলরুমে প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর সম্মানে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ নাগরিক সংবর্ধনার আয়োজন করছে। ওই অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার যোগ দেওয়ার কথা রয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও প্রযুক্তিবিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়সহ বাংলাদেশ সরকার ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের শীর্ষস্থানীয় নেতারা ওই অনুষ্ঠানে অংশ নেবেন।

জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের অধিবেশনের ফাঁকে প্রধানমন্ত্রী বিভিন্ন দেশের নেতাদের সঙ্গে বৈঠক করবেন। শেখ হাসিনা আগামী ২৮ সেপ্টেম্বর রাতে নিউ ইয়র্ক ছাড়বেন। লন্ডন হয়ে তার বাংলাদেশে ফেরার কথা রয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নিউ ইয়র্কে নাগরিক সংবর্ধনার দিন ম্যারিয়ট মারক্যুইস হোটেলের সামনে এবং ২৭ সেপ্টেম্বর জাতিসংঘের সামনে বিক্ষোভ ও কাল পতাকা দেখাবে বিএনপির নেতাকর্মীরা। এজন্যে তারা নিউ ইয়র্ক শহর কর্তৃপক্ষের অনুমতিও যোগাড় করেছেন বলে বিএনপির একটি সূত্র জানিয়েছেন।

আওয়ামী লীগের পক্ষে ঘোষণা দেয়া হয়েছে, প্রতিবাদের নামে জামায়াত-শিবিরের প্ররোচণায় বিএনপি যদি কোনো অসভ্য-অগণতান্ত্রিক আচরণের চেষ্টা করে তাহলে তার সমুচিত জবাব দেয়া হবে।

প্রকাশ থাকে যে, যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সম্মেলনের দাবিতে বেশ কয়েক মাস ধরে আন্দোলন করে আসছেন দলের নেতাকর্মীরা। সম্মেলন সংক্রান্ত প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ উপেক্ষা করে মনগড়া ও একক সিদ্ধান্তে দল পরিচালনা করছেন সিদ্দিক। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে উঠেছে নেতাকর্মীরা। দু’গ্রুপে বিভক্ত হয়ে পড়েছে দল।

ফলে দিন দিন আরও ক্ষোভ প্রকাশ পাচ্ছে। অধিকাংশ নেতাকর্মীরা দাবি করছে প্রধানমন্ত্রী যুক্তরাষ্ট্রে আসার আগেই মেয়াদ শেষ হওয়া কমিটি বাতিল করে সম্মেলনের মাধ্যমে একটি সুষ্ঠু কমিটি গঠন করা হোক। গত বছর গণসংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রীর সামনেই ‘নো মোর সিদ্দিক’ বলে স্লোগান তুলে যে অপ্রীতিকর ঘটনার সৃষ্টি হয়েছিল এবারে যেন সে ঘটনার পুনরাবৃত্তি না ঘটে, এটাই নেতাকর্মীদের দাবি। প্রধানমন্ত্রীর গণসংবর্ধনা সফল করতে দু’গ্রুপেই জোর প্রস্তুতি নিচ্ছেন।

এমআরএম/পিআর

প্রবাস জীবনের অভিজ্ঞতা, ভ্রমণ, গল্প-আড্ডা, আনন্দ-বেদনা, অনুভূতি, স্বদেশের স্মৃতিচারণ, রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক লেখা পাঠাতে পারেন। ছবিসহ লেখা পাঠানোর ঠিকানা - [email protected]